চাঁদপুর। বুধবার ২১ মার্চ ২০১৮। ৭ চৈত্র ১৪২৪। ২ রজব ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৬-সূরা ইয়াসিন

৮৩ আয়াত, ৫ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৪৯। তারা কেবল একটা ভয়াবহ শব্দের অপেক্ষা করছে, যা তাদেরকে আঘাত করবে তাদের পারস্পরিক বাক্বিতন্ডাকালে।

৫০। তখন তারা ওছিয়ত করতেও সক্ষম হবে না এবং তাদের পরিবার-পরিজনের কাছেও ফিরে যেতে পারবে না।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


মাত্রাধিক নম্রতার অর্থই হলো কর্কশতা।     

 -জাপানি প্রবাদ।


ধর্মার্থে প্রাণ উৎসর্গকারী শহীদের রক্ত অপেক্ষা বিদ্বান ব্যক্তির কলমের কালি অধিক পবিত্র।


ফটো গ্যালারি
নবীর প্রতি যাদের মহব্বত নেই তারাই মুসলমানদের নির্যাতন করছে
সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল-হাসানী (মাঃ জিঃ আঃ)
বাবুল মুফতী
২১ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


মাইজভান্ডার দরবার শরীফের বর্তমান গদ্দিনশীন, একমাত্র বেলায়েত ও খেলাফতের স্থলাভিষিক্ত, পার্লামেন্ট অব ওয়ার্ল্ড সুফীজ চেয়ারম্যান, রাহনুমায়ে শরীয়ত ও তরীকত, আন্তর্জাতিক সফল ইসলাম প্রচারক, আনজুমানে রহমানীয়া মইনীয়া মাইজভান্ডারীয়ার সভাপতি, আওলাদে রাসুল (দঃ) আলহাজ্ব শাহ্সুফী মাওলানা হযরত সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল-হাসানী ওয়াল হোসাইনী আল মাইজভান্ডারী (মাঃ জিঃ আঃ) বলেছেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম। ইসলামে শান্তি সম্প্রীতির দর্শন হলো সূফীবাদ। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ইসলামের নামধারী মুসলমানরা ইহুদীদের সাথে অাঁতাত করে মুসলমান নিধন করছে। বিশেষ করে আফগানিস্তান, মায়ানমার, সিরিয়া, ফিলিস্তিনে মুসলমানদের হত্যা করছে। তিনি বলেন, নবীর প্রতি যাদের মহব্বত নেই তারাই মুসলমানদের অত্যাচার করছে। তাই আমাদের অন্তরে নবীর প্রতি মহব্বত তৈরি করতে হবে।



গত ১৫ মার্চ শুক্রবার রাতে মিরপুর হযরত শাহ আলী বোগদাদি (রঃ) মাজার প্রাঙ্গণে সুন্নী মহাসম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি ওই কথাগুলো বলেন। আঞ্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভান্ডারীয়ার ব্যবস্থাপনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মুফতি আব্দুল হালিম রেজভি, ঘিলাতলী দরবার শরিফের নায়েবে সাজ্জাদানশীল, মুফতি বাকী বিল্লাহ আজহারী, আঞ্জুমানে রহমানীয়া মইনিয়া মাইজভান্ডারীয়ার কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক ও খলিফা মাওলানা রুহুল আমিন ভূঁইয়া চাঁদপুরী, মাওলানা ইসমাঈল হোসেন সিরাজী (চট্টগ্রাম), মাওলানা খাজা বাহাউদ্দীন, মাওলানা শাহ আলম মোল্লা প্রমুখ। সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন প্রধান খাদেম আলহাজ্ব মোহসীন মোহন, খাদেম সালাউদ্দিন আহম্মেদ, খাদেম দুলাল মিয়া, শাহ মোহাম্মদ আক্তারুজ্জামান, খাদেম শরীফ হোসেন, মইনীয়া যুব ফোরামের সমন্বয়ক খলিফা শাহ মোহাম্মদ আসলাম, আঞ্জুমান কেন্দ্রীয় কমিটির গণমাধ্যম ও তথ্য বিষয়ক সহ-সম্পাদক সাংবাদিক ঢালী কামরুজ্জামান হারুন, ঢাকা মহানগর যুব ফোরামের সমন্বয় কমিটির সদস্য সচিব জিএম রাবি্ব, যুব ফোরাম নেতা মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন, আমিনুর রহমান, জামাল খান, ফয়েজ আহম্মেদ, জুনায়েদ সিদ্দিকী, মাসুদ লিটন, মনির হোসেন সরকার, রাশেদ খান মেনন, নাঈম আরেফিন বাধন প্রমুখ।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৫২৯৩১৪
পুরোন সংখ্যা