চাঁদপুর। সোমবার ১৬ এপ্রিল ২০১৮। ৩ বৈশাখ ১৪২৫। ২৮ রজব ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • হাজীগঞ্জে আটককৃত বিএনপি'র ১৭ নেতাকর্মীকে জেলহাজতে প্রেরন
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৭- সূরা আস-সাফফাত

১৮২ আয়াত, ৫ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

২৯। তারা বলবে, বরং তোমরা তো বিশ^াসীই ছিলে না।

৩০। এবং তোমাদের উপর আমাদের কোনো কর্তৃত্ব ছিল না, বরং তোমরাই ছিলে সীমা লংঘনকারী সম্প্রদায়।

৩১। আমাদের বিপক্ষে আমাদের পালনকর্তার উক্তিই সত্য হয়েছে। আমাদেরকে অবশ্যই স্বাদ আস্বাদন করতে হবে।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


দারিদ্র্যকে যে মাথা পেতে গ্রহণ করে, সে ব্যক্তিত্বহীন পুরুষ।         


-লংফেলো।




মানুষ মিথ্যাবাদী সাব্যস্ত হবার জন্যে এটাই যথেষ্ট যে, সে যা শোনে (যাচাই না করে) তা-ই বলে বেড়ায়।  

 


ফটো গ্যালারি
বাংলা নববর্ষ যেনো এক অনন্ত আনন্দস্রোতপুষ্ট সাংস্কৃতিক মিলনমোহনা
অধ্যক্ষ রতন কুমার মজুমদার
১৬ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


পুরানবাজার ডিগ্রি কলেজে বিগত বছরের ন্যায় এবারও বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পালিত হয়েছে বাংলা নববর্ষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। পহেলা বৈশাখ সকাল সাড়ে ৮টায় ছাত্র-ছাত্রী এবং শিক্ষকদের সমন্বয়ে কলেজ ক্যাম্পাস থেকে আনন্দ শোভাযাত্রা বের হয়ে নতুনবাজার কালীবাড়ি মোড় হয়ে আবার কলেজে গিয়ে শেষ হয়। পরবর্তীতে কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের পরিবেশনায় অনুষ্ঠিত হয় বর্ষবরণ অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে কলেজ অধ্যক্ষ রতন কুমার মজুমদার তাঁর বক্তব্যে বলেন, বাঙালির আবহমানকালের প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ ও বাংলা নববর্ষ, অজস্র নদীর উর্বর পলিতে গড়ে ওঠেছে এই বাংলাভূমি। এই ভূমিতেই প্রথিত আছে আমাদের হাজার বছরের ঐতিহ্যঋদ্ধ সংস্কৃতির শেকড়। বাঙালির এ প্রাণের উৎসবে আমরা আমাদের অস্তিত্ব খুঁজে পাই লালনের অসামপ্রদায়িক চেতনায়। আমাদের অস্তিত্ব জারি সারি আর ভাটিয়ালিতে। তারই নতুন বারতা নিয়ে প্রতি বছর পহেলা বৈশাখ উপনীত হয় আমাদের দ্বারে অসামপ্রদায়িক চেতনায় বাঙালির উৎসব হয়ে। আমরা বরণ করে নেই বাংলা এবং বাঙালিত্বকে। শেকড়ের টানে উদ্বেলিত প্রাণে আজ জেগেছে চরাচর। সেই উৎসবের অনাবিল খুশির কল্লোলে মাতোয়ারা হয়ে ওঠে আমাদের ভেতর বাহির মনপ্রাণ।



তিনি আরো বলেন, পহেলা বৈশাখ কেবল উৎসব নয় বাঙালির আত্মপরিচয় খুঁজে নেবার এক মহাতীর্থ। বাংলা নববর্ষ যেনো এক অনন্ত আনন্দস্রোতপুষ্ট সাংস্কৃতিক মিলনমোহনা। এ নতুন বছর মুছে যাক সকল গ্লানি, দূর হোক বিরাজিত জরা। জীর্ণ অতীত কাটিয়ে সমৃদ্ধির আগামী এসে ভরিয়ে দিক সবার জীবন। জঙ্গিবাদ নয় ধর্মান্ধতা নয়, বিশ্বের বুকে বাঙালি জাতি জাগ্রত হোক উদার অসামপ্রদায়িক চেতনার জাতি হিসেবে।



অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠের প্রধান সম্পাদক কাজী শাহাদাত, বার্তা সম্পাদক এইচএম আহসান উল্যা, কলেজ গভর্নিং বডির সদস্য আলহাজ্ব মোঃ জাহাঙ্গীর আখন্দ সেলিমের সহধর্মিণী আফরোজ জাহান আখন্দ প্রমুখ। চাঁদপুর কণ্ঠের প্রধান সম্পাদক কাজী শাহাদাত তাঁর বক্তব্যে বলেন, এ কলেজ ধীরে ধীরে চাঁদপুরের মধ্যে একটি মানসম্মত কলেজে পরিণত হচ্ছে। ছাত্র-ছাত্রীরা যে মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক পরিবেশনা করেছে তাতে আমরা মুগ্ধ। আমরা আশা করছি কলেজটি অচিরেই একটি ভালোমানের প্রতিষ্ঠান হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে। অনুষ্ঠানের অতিথি আফরোজা জাহান আখন্দ বলেন, বাঙালির এটি প্রাণের উৎসব। উৎসবটি সার্বজনীন। ছাত্র-ছাত্রীদের পরিবেশনা দেখে আমি মুগ্ধ।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
১১৭৫৭৩৮
পুরোন সংখ্যা