চাঁদপুর। বুধবার ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮। ৫ পৌষ ১৪২৫। ১১ রবিউস সানি ১৪৪০
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৪৪-সূরা দুখান

৫৯ আয়াত, ৩ রুকু, ‘মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৫৬। প্রথম মৃত্যুর পর তাহারা সেথায় আর মৃত্যু আস্বাদন করিবে না। আর তাহাদিগকে জাহান্নামের শাস্তি হইতে রক্ষা করিবেন।

৫৭। তোমার প্রতিপালক নিজ অনুগ্রহে। ইহাই তো মহাসাফল্য।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


কর্মোজ্জ্বল দিনগুলো প্রকৃতপক্ষে সোনালি দিন।  


-মিল্টন।


যে ব্যক্তি আল্লাহ ও আখেরাতের উপর ঈমান রাখে তার ভালো ও পরিচ্ছন্ন কথা বলা উচিত অথবা নীরব থাকা বাঞ্ছনীয়। পরিচ্ছন্ন কথা হচ্ছে দান কাজের সমতুল্য।



 


ফটো গ্যালারি
চাঁদপুর শহরে পথসভা ও গণসংযোগ
একের পর এক হামলা করে বিএনপিকে নির্বাচন থেকে সরানোর পাঁয়তারা করা হচ্ছে
শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক
স্টাফ রিপোর্টার
১৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর-৩ আসনে বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক গণসংযোগ, পথসভা ও উঠোন বৈঠক অব্যাহত রেখেছেন। তিনি দলের নেতা-কর্মী, সমর্থকদের নিয়ে ভোটারের সাথে কুশল বিনিময় করে ধানের শীষ প্রতীকে ভোট চেয়ে দোয়া চেয়েছেন।



গতকাল ১৮ ডিসেম্বর মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর পর্যন্ত তিনি চাঁদপুর পৌর এলাকার ৭নং ও ৮নং ওয়ার্ডে ব্যাপক গণসংযোগ ও পথসভা করেন। এর মধ্যে চৌধুরী পাড়া, ঘোষপাড়া, মমিন পাড়া, কোড়ালিয়া, নিশি বিল্ডিং, লঞ্চঘাট এলাকায় গণসংযোগ ও পথসভা করেন। বিএনপি নেতৃবৃন্দ জানান, তাদের প্রার্থী শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক দুপুরে পৌর এলাকার ৭নং ওয়ার্ডের মাদ্রাসা রোড এলাকায় আসলে পেছন থেকে সরকার দলীয় কিছু কর্মী তাদের উপর দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় বিএনপির ১৫ নেতা-কর্মী আহত হয়। শেখ মানিক পরে গণসংযোগ সংক্ষেপ করেন। এ ঘটনার পর শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।



বিভিন্ন পথসভায় চাঁদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও বিএনপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির প্রবাসী কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক বলেন, একের পর এক হামলা করে বিএনপিকে নির্বাচন থেকে সরানোর পাঁয়তারা করছে সরকার। ঈশানবালা, ইব্রাহিমপুর, হাইমচর, পুরাণবাজারসহ বিভিন্ন জায়গায় আমার গণসংযোগে যুবলীগ, ছাত্রলীগ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে নেতা-কর্মীদের উপর হামলা করেছে। নিজেদের পরাজয় নিশ্চিত জেনে তারা এখন আমাকে নির্বাচন থেকে সরাতে এসব হামলা করছে। জনগণ আমার সাথে আছে। যতই হামলা করুক না কেনো আমি নির্বাচন থেকে সরবো না।



তিনি আরো বলেন, জনগণের ভোট কারচুপি করতে তারা নানা চেষ্টা করে যাচ্ছে। কিন্তু জনগণ এবার সোচ্চার, তারা ভোট কারচুপি করতে দিবে না। ভোটের দিন সকাল সকাল মা বোনেরা ভোট কেন্দ্রে উপস্থিত হতে হবে। কারো রক্তচক্ষুকে ভয় করবেন না। নিজের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিবেন। জয় আমাদেরই হবে ইনশাআল্লাহ। সারাদেশে ধানের শীষের জোয়ার ওঠেছে।



নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তারা যতই অত্যাচার, হামলা করুক না কেনো সকলকে শান্ত থাকতে হবে। মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিতে আমাদের কষ্ট করতে হবে। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পৌর বিএনপির সভাপতি আক্তার হোসেন মাঝি, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডঃ হারুনুর রশিদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি অ্যাডঃ জাহাঙ্গীর হোসেন খান, বিএনপি নেতা হাজী মোশারফ, পৌর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আঃ কাদির বেপারী, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক নূরুল আমিন খান আকাশ, ওয়ার্ড নেতৃবৃন্দের মধ্যে ৮নং ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খোকন মিজি, ৭নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি শামছল প্রধানিয়া, সাধারণ সম্পাদক কবির সরকার, ৮নং ওয়ার্ড যুবদলের সভাপতি লিটন মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল মাল, ৭নং ওয়ার্ড যুবদলের সভাপতি রিপন মাল, সাধারণ সম্পাদক জহির ছৈয়ালসহ নেতৃবৃন্দ।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৬৭৮৩০
পুরোন সংখ্যা