চাঁদপুর, রোববার ৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৮ জিলহজ ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও কাজী ট্রেডার্সের স্বত্ত্বাধিকারী লায়ন কাজী মাহাবুবুল হক ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহে ----রাজেউন) || চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শাহ মোহাম্মদ মাকসুদুল আলম মুত্যুবরণ করেছেন। বাদ আসর তালতলা করিম পাটোয়ারী বাড়ির মসজিদ প্রাঙ্গণে তার নামাজে জানাজা।
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭৭-সূরা মুর্সালাত


৫০ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৬। ওযর-আপত্তি রহিতকরণ ও সতর্ক করার জন্য


৭। নিশ্চয়ই তোমাদিগকে যে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হইয়াছে তাহা অবশ্যম্ভাবী।


৮। যখন নক্ষত্ররাজির আলো নির্বাপিত হইবে,


 


assets/data_files/web

যে ব্যাপারকে নিয়ন্ত্রণ করবার ক্ষমতা আমার নেই, তা নিয়ে আমি কখনো ভাবি না।


-বুথ টাসিংটন।


 


 


 


আল্লাহর আদেশ সমূহের প্রতি প্রগাঢ় ভক্তি প্রদর্শন এবং যাবতীয় সৃষ্ট জীবের প্রতি সহানুভূতি-ইহাই ইসলাম।


 


ফটো গ্যালারি
ফিশিং বোট ও পিকআপভর্তি সাগরের ইলিশে ভরপুর চাঁদপুর মাছঘাট
মিজানুর রহমান ॥
০৯ আগস্ট, ২০২০ ০৩:৫৬:২৭
প্রিন্টঅ-অ+


সাগরে ২০ মে হতে ২৩ জুলাই পর্যন্ত সব ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ ছিলো। মাছ ধরার ওপর সেই নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার পর এখন সাগরে জেলেদের জালে ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে রূপালী ইলিশ। কিন্তু ইলিশ নেই চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনায়। সাগর ও উপকূলীয় অঞ্চলে আহরিত বিপুল পরিমাণ ইলিশে ভরপুর চাঁদপুর মাছঘাট। ফিশিং বোট ও সড়কপথে পিকআপে হাজার হাজার মণ ইলিশ এই ঘাটে আসছে। ইলিশ বাণিজ্যকেন্দ্র চাঁদপুর মাছঘাটে প্রতিদিন সকাল-বিকেল ইলিশবোঝাই ট্রলার ভিড়ছে। আরো আসছে পিকআপবোঝাই ডালা এবং ঝুড়িভর্তি ইলিশ। চাঁদপুর মাছঘাট এখন রীতিমতো ইলিশে ইলিশে সয়লাব। ঈদের পরদিন থেকে টানা গত ক’দিন এখানে প্রচুর পরিমাণে ইলিশ ক্রয়-বিক্রয় হয়েছে।

ইলিশ নিয়ে স্থানীয় আড়তদার, বেপারী আর পাইকারি ক্রেতাদের ভিড়ে মুখর হয়ে আছে মাছঘাট। তবে ইলিশে সয়লাব হলেও দাম এখনো সাধারণ ক্রেতাদের নাগালের বাইরেই রয়ে গেছে। পাইকারিতে দাম কমলেও খুচরা বাজারে দাম বেশি। বড় সাইজের ইলিশ ৭০০ থেকে হাজার টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। যা সাধারণ ক্রেতাদের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে।

সরজমিনে ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, হাজী মালেক খন্দকার, কালু ভূঁইয়া, গফুর জমাদার, শবে বরাত সরকার, বাবুল হাজী, মেজবাহ মাল, বড় সিরাজ চোকদার, ছোট সিরাজ চোকদার, ইকবাল বেপারীসহ অন্যান্য সকল আড়তে ধুমধাম ইলিশ ক্রয়-বিক্রয় ও আড়তদারি চলছে। ইলিশের স্তূপের কারণে পা রাখারও জায়গা নেই। এসব ইলিশ হাতিয়া, পাথরঘাটা, দৌলতপুর, মনপুরা এলাকা থেকে এসেছে বলে জানা যায়। এর মধ্যে হাতিয়ার ইলিশই বেশি। চাঁদপুর ঘাটে আসা ফিশিং বোটের জেলেদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, নিষেধাজ্ঞা শেষে গত ২৩ জুলাই থেকে ট্রলার নিয়ে জেলেরা গভীর সমুদ্রে মাছ শিকারে বেরিয়ে পড়ে। শনিবার (২৫ জুলাই) থেকে এসব ট্রলার মাছভর্তি করে তীরে ফিরছে জেলেরা।

জেলেরা জানান, সমুদ্রে প্রচুর পরিমাণে ইলিশ ধরা পড়ছে। ইলিশের আকারও বেশ বড়। দামও বেশি পাওয়া যাচ্ছে। এ কারণে তারা চাঁদপুর এসে মাছ বিক্রি করে যান।



 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৩,৩৯,৩৩২ ২,৯২,০১,৬৮৫
সুস্থ ২,৪৩,১৫৫ ২,১০,৩৫,৯২৬
মৃত্যু ৪,৭৫৯ ৯,২৮,৬৮৬
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৫৩৭০৪
পুরোন সংখ্যা