চাঁদপুর, রবিবার ২৪ মে ২০১৫ | ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২২ | ৫ শাবান ১৪৩৬
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ছেলেটির করোনা ভাইরাস নেগেটিভ পাওয়া গেছে। অর্থাৎ সে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী নয়। তথ্য সূত্র: আরএমও ডাঃ সুজাউদ্দৌলা রুবেল। || বৈদ্যনাথ সাহা ওরফে সনু সাহা করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যায় নি : সিভিল সার্জন
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

১৯-সূরা : র্মাইয়াম

৯৮ আয়াত, ৬ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহ্র নামে শুরু করছি।



৬৫। তিনি আকাশমণ্ডলী, পৃথিবী ও তাহাদের অন্তবর্তী যাহা কিছু, তাহার প্রতিপালক। সুতরাং তাঁহারই ‘ইবাদত কর এবং তাঁহার ‘ইবাদতে ধৈর্যশীল থাক। তুমি কি তাঁহার সমগুণ সম্পন্ন কাহাকেও জান?

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন

 


একটি মহৎ আত্মা সমুদ্রে ভাসমান জাহাজের মতো।

-ফ্লেচার।


নিরপেক্ষ লোকের দোয়া সহজে কবুল হয়।

  - হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)


ফটো গ্যালারি
কৃষি ঋণ বিতরণ বাড়ানোর নির্দেশ
কৃষিকণ্ঠ রিপোর্ট
২৪ মে, ২০১৫ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাংকগুলোকে কৃষি ঋণ বিতরণে অধিকগুরুত্ব দিতে বলা হয়েছে। সম্প্রতি অনুষ্ঠিত ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিবের সঙ্গে রাষ্ট্রায়ত্ব বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর সিইও ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকে এ নির্দেশ দেয়া হয়। সভার কার্যবিবরণী থেকে পাওয়া গেছে এ তথ্য। এ প্রসঙ্গে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব ড. এম আসলাম আলম বলেন, আমরা ছোট ঋণ দেয়াকে বেশি প্রাধান্য দিচ্ছি। কৃষি ঋণ বিতরণে অনেক ব্যাংক লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারছে না। যে কারণে কৃষি ঋণ বিতরণে গুরুত্ব দেয়ার কথা বলা হয়েছে। রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাংকগুলোর এসএমই ঋণ, কৃষি ঋণ ছোট আকারের ঋণ ও খেলাপি ঋণ আদায়ের কার্যক্রম সম্প্রতি পর্যালোচনা করেছে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ। সেখানে দেখা গেছে গবাদিপশু পালন খাতে রাষ্ট্রায়ত্ত খাতের সবচেয়ে বড় আর্থিক প্রতিষ্ঠান সোনালী ব্যাংকসহ রূপালী ব্যাংক ও বেসিক ব্যাংক খুব কম ঋণ দিয়েছে।

পাশাপাশি মাছ চাষে কম ঋণ বিতরণ করেছে বেসিক ব্যাংক। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠান বিভাগের প্রতিবেদনে বলা হয়, এসব খাতে ঋণ বিতরণের ক্ষেত্রে অন্যান্য ব্যাংকের অগ্রগতি অসন্তোষজনক।

এসএমই ঋণ বিতরণে দেখা গেছে, একইভাবে শীর্ষ ব্যাংক সোনালী ব্যাংকসহ রূপালী ব্যাংক ও বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক কম ঋণ প্রদান করেছে। পর্যালোচনা প্রতিবেদনে বলা হয়, গত মার্চ পর্যন্ত অন্যান্য ব্যাংকের ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা সন্তোষজনক নয়। এসব প্রেক্ষাপট বিবেচনায় নিয়ে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান এ ক্ষেত্রে ঋণ বিতরণে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। বিশেষ করে কৃষি ঋণ বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে। শ্রেণীকৃত ঋণ পরিস্থিতি নিয়ে একটি পর্যালোচনা করেছে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ। সেখানে দেখা গেছে, ২০১৪ সালে জনতা ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক, বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক ও বেসিক ব্যাংক খেলাপিদের কাছ থেকে টাকা আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা কম ধার্য করেছে।

আরও দেখা গেছে, শ্রেণীকৃত ঋণ আদায়ের শতকরা হারে অগ্রণী ব্যাংক ও বেসিক ব্যাংক পিছিয়ে আছে।

খবরটি সর্বমোট 1 বার পড়া হয়েছে
আজকের পাঠকসংখ্যা
১০৮৬০৬
পুরোন সংখ্যা