চাঁদপুর। শুক্রবার ১৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২ পৌষ ১৪২৩। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮
ckdf

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • --
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৬-সূরা শু’আরা


২২৭ আয়াত, ১১ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


১৩০। এবং যখন তোমরা আঘাত হান তখন আঘাত হানিয়ে থাক কঠোরভাবে। 


১৩০। তোমরা আল্লাহকে ভয় কর এবং আমার আনুগত্য কর।   


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


সফলতা কখনো অন্ধ হয়  না। 


                           -টমাস ফুলার।   


সেই ব্যক্তি শ্রেষ্ঠ মর্যাদার অধিকারী যে স্বল্পাহারে সন্তুষ্ট থাকে অল্প হাসে এবং লজ্জাস্থান ঢাকিবার উপযোগী বস্ত্রে পরিতুষ্ট।     


  

ফটো গ্যালারি
ডাঃ দীপু মনির প্রতিশ্রুতি-জেলাবাসীর স্বস্তি
রাসেল হাসান
১৬ ডিসেম্বর, ২০১৬ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


 



৮ ডিসেম্বর চাঁদপুরের মাসব্যাপী মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি এপিজি আবুল কালামের একটি উদ্ধৃতিকে উল্লেখ করে ডাঃ দীপু মনি এমপি বলেছিলেন, মানুষ ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে যা দেখে তা স্বপ্ন নয়, বরং জেগে জেগে যা দেখে তা-ই স্বপ্ন। এ উক্তিটির প্রসঙ্গ টেনে ডাঃ দীপু মনি তাঁর বক্তব্যে উপস্থাপন করলেন তাঁর জাগ্রত কিছু স্বপ্নের কথা। আর এসব স্বপ্ন চাঁদপুরকে ঘিরে। তিনি বলেন, আমাদের চাঁদপুর শহরে একটি এসবি খাল রয়েছে। যে খালটির অনেক অংশ এখন ভূমিখোরদের দখলে চলে গেছে। আমার খুব ইচ্ছা এই এসবি খালটিকে ঢাকার হাতিরঝিলে পরিণত করা। এক সময় এ খাল দিয়ে পাল তোলা নৌকা চলতো, জোয়ারের পানি বইতো। আমরা চাঁদপুরবাসী কি পারি না এই খালটিকে সুন্দর করে সাজাতে? তিনি চাঁদপুরের জেলা প্রশাসককে এই খালটি সংস্কার করে হাতিরঝিলে রূপ দেয়ার লক্ষ্যে কাজ শুরু করার নির্দেশ দেন।



এ জেলার মানুষের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন ছিলো চাঁদপুরে একটি মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর হোক। মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সূচনা বক্তব্যে আবারো সে দাবি রাখেন বিজয় মেলার চেয়ারম্যান অ্যাডঃ মোঃ জহিরুল ইসলাম। এ প্রসঙ্গে ডাঃ দীপু মনি বলেন, আমি অনুষ্ঠান চলাকালীন মাননীয় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর সাথে এ বিষয়ে কথা বলেছি। তিনি বলেছেন অচিরেই চাঁদপুরে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক জাদুঘর স্থাপন করা হবে। ডাঃ দীপু মনি বলেন, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধকালীন লোরাম জাহাজকে ঘিরে আমরা চাঁদপুরে একটি ভাসমান মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক জাদুঘর স্থাপন করবো।



অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চাঁদপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. এএসএম দেলোয়ার হোসেন তাঁর কলেজ ক্যাম্পাসে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি সম্বলিত একটি ম্যুরাল তৈরি ও মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে একটি ভাস্কর্য নির্মাণের আবেদন জানান। এ আবেদনকে স্বাগত জানিয়ে ডাঃ দীপু মনি অধ্যক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, আপনি অচিরেই শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এ বিষয়ে অনুমতি চেয়ে একটি আবেদন পাঠান। আমি নিজে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর সাথে এ বিষয়ে কথা বলবো এবং আমরা চেষ্টা করবো আগামী বছরের মধ্যেই যেনো কলেজ ক্যাম্পাসে জাতির জনকের ম্যুরাল ও মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে স্মৃতি স্তম্ভ নির্মাণ করা যায়।



অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিশিষ্টজনরা মনে করেন, চাঁদপুর-৩ আসনের এমপি ডাঃ দীপু মনি ৮ ডিসেম্বরের বক্তব্যে যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তা বাস্তবায়িত হলে চাঁদপুরের আপামর জনতা বিশেষ করে মুক্তিযোদ্ধাদের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পূরণ হবে। সে সাথে এসবি খালকে দখলমুক্ত করে হাতিরঝিলে পরিণত করার যে স্বপ্ন তিনি দেখিয়েছেন তা করতে পারলে চাঁদপুরের রূপই পাল্টে যাবে। চাঁদপুরবাসীর প্রত্যাশা-ডাঃ দীপু মনি তাঁর এসব স্বপ্নের পূর্ণ বাস্তবায়ন করে এ জেলাকে অচিরেই একটি মডেল জেলায় পরিণত করবেন।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৭৭৭৭৭৭
পুরোন সংখ্যা