চাঁদপুর। সোমবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৭। ২৭ ভাদ্র ১৪২৪। ১৯ জিলহজ ১৪৩৮

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • ---------
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৯-সূরা আনকাবূত


৬৯ আয়াত, ৭ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৫৩। উহারা তোমাকে শাস্তি ত্বরান্বিত করিতে বলে। যদি নির্ধারিত কাল না থাকিত তবে শাস্তি তাহাদের উপর অবশ্যই আসিত। নিশ্চয়ই উহাদের উপর শাস্তি আসিবে আকস্মিকভাবে, উহাদের অজ্ঞাতসারে।


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


সুকর্ম কখনো হারিয়ে যায় না।


-রেসিল।

নীরবতাই শ্রেষ্ঠতম এবাদত। 


প্রধান অতিথির বাণী
১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


বিতর্ক একটি প্রাচীন যুক্তিনির্ভর বাচিক শিল্প। জ্ঞানঋদ্ধ সমাজ বিনির্মাণে বিতর্ক চর্চা একটি নান্দনিক হাতিয়ার। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসামপ্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে হলে মুক্তবুদ্ধির চর্চাকে এগিয়ে নেয়া জরুরি। কেননা মুক্তবুদ্ধির মানুষেরাই সমাজ নির্মাণের মুখ্য কারিগর। আগামী প্রজন্মকে মুক্তবুদ্ধি সম্পন্ন আদর্শ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হলে বিতর্ক চর্চার প্রচার ও প্রসার জরুরি। জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই সুন্দর ও যৌক্তিকভাবে নিজের মতামত অন্যের সামনে তুলে ধরা প্রয়োজন। একই সঙ্গে প্রত্যেকটি বিষয়কেই যে ভিন্ন ভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে ভিন্ন ভিন্ন ভাবে দেখা ও বিবেচনা করা সম্ভব তা বিতর্কের মাধ্যমে অনুধাবন করা সহজ। পরমতসহিষ্ণুতা বিতর্কের মাধ্যমে অন্যতম প্রধান প্রাপ্তি, যা সমাজে ভিন্ন ভিন্ন মতের মানুষের শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের জন্য অতীব জরুরি। নিজেকে বহুর মধ্যে সেরা রূপে প্রতিষ্ঠিত করতে হলে বিতর্ক শিল্পের চর্চার কোনো বিকল্প নেই। একজন প্রকৃত বিতার্কিকের শব্দ চয়ন, উচ্চারণ, বাচনভঙ্গি এবং তথ্য ও তত্ত্ব ব্যবহারের সক্ষমতা খুব সহজেই তাকে অনেকের মধ্যে আলাদা করে চিনিয়ে দেয়। আর এর মাধ্যমেই তার জীবনে সফলতা ও সার্থকতা উভয়ই অর্জিত হবার পথ সুগম হয়।



আমি জেনে আনন্দিত যে, চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক ফাউন্ডেশন (সিকেডিএফ)-এর আয়োজনে পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতা নয় বছর ধরে জেলাব্যাপী ধারাবাহিকভাবে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। এর মাধ্যমে অনেক প্রতিভাবান বিতার্কিক তৈরি হয়েছে এবং অনেক প্রতিশ্রুতিশীল বিতার্কিকের সন্ধান পাওয়া গেছে। আমি এও জেনেছি যে, ইতোমধ্যেই অনেক স্থানীয় বিতার্কিক এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে পরিশীলিত হয়ে বর্তমানে উচ্চস্তরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ও জাতীয়ভাবে বিতার্কিকের স্বীকৃতির স্বাক্ষর রেখে চলেছে। এই কৃতিত্ব পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতার এবং এর আয়োজকদের। আমি এই বিশাল ও মহৎ কর্মযজ্ঞের আয়োজকদের ধন্যবাদ জানাই এবং বিতার্কিকদের হয়ে কৃতজ্ঞতা জানাই। স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা বিতর্ক চর্চার এত বড় মঞ্চ পেয়ে এবং তা সদ্ব্যবহারের মাধ্যমে সমাজ হতে কুসংস্কার, ধর্মান্ধতা, জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্তি দূর করবে এবং এতে যুক্তির স্বচ্ছধারায় সমাজ ও রাষ্ট্রের কাঙ্ক্ষিত অবগাহন হবে।



আমি পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতার সার্বিক সফলতা কামনা করি এবং এর উত্তরোত্তর সাফল্য ও ধারাবাহিকতা কামনা করি। বিতর্ক আন্দোলন দীর্ঘজীবী হোক।



 



জয় বাংলা। জয় বঙ্গবন্ধু।



বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।



 



ডাঃ দীপু মনি



জাতীয় সংসদ সদস্য, চাঁদপুর-৩



(চাঁদপুর সদর-হাইমচর)



ও সভাপতি, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৭৯৫৬
পুরোন সংখ্যা