চাঁদপুর। সোমবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৭। ২৭ ভাদ্র ১৪২৪। ১৯ জিলহজ ১৪৩৮

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • ---------
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৯-সূরা আনকাবূত


৬৯ আয়াত, ৭ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৫৩। উহারা তোমাকে শাস্তি ত্বরান্বিত করিতে বলে। যদি নির্ধারিত কাল না থাকিত তবে শাস্তি তাহাদের উপর অবশ্যই আসিত। নিশ্চয়ই উহাদের উপর শাস্তি আসিবে আকস্মিকভাবে, উহাদের অজ্ঞাতসারে।


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


সুকর্ম কখনো হারিয়ে যায় না।


-রেসিল।

নীরবতাই শ্রেষ্ঠতম এবাদত। 


বাণী
১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


সভ্য মানুষের যোগাযোগের উৎকৃষ্ট মাধ্যম তার যুক্তি। ব্যক্তি যুক্তির ঋদ্ধতা, বক্তব্যের স্বচ্ছতা এবং তত্ত্ব ও তথ্যনিষ্ঠতার মাধ্যমে একে অপরের সাথে নিজেকে মেলে ধরতে পারে। এই সমুদয় বিষয় যে বাচিক শিল্পের মাধ্যমে চর্চিত হয় তাই-ই বিতর্ক। বিতর্ক একটি প্রাচীন শিল্প। জ্ঞান নির্ভর ও তথ্যসমৃদ্ধ সমাজ নির্মাণে বিতর্ক চর্চা একটি অনন্য পন্থা। আজকের তারুণ্য বড় অস্থির সময়ের মধ্য দিয়ে গড়ে উঠছে। এ'সময় তাদের দরকার জ্ঞান ও যুক্তি নির্ভর চর্চা। বিতর্ক মুক্তবুদ্ধির চর্চা সম্পন্ন প্রজন্ম তৈরিতে কার্যকর উপায়। বিতর্ক হলো সমাজ নির্মাণ ও সমাজ বদলের হাতিয়ার। সক্রেটিস, প্লেটো, অ্যারিস্টটল প্রমুখ মনীষীরা বিতর্ককে জ্ঞান চর্চার উৎকৃষ্ট মাধ্যমরূপে বিবেচনা করতেন। আজকের এই সভ্যতার চরম উৎকর্ষের কালে বিতর্ক চর্চা পৌঁছে গেছে ঘরে ঘরে।



ইলিশের বাড়ি চাঁদপুর ইতোমধ্যেই বিতর্ক চর্চার সূতিকাগার হয়ে উঠেছে। বিগত নয় বছর ধরে ধারাবাহিকভাবে এখানে জেলা জুড়ে বিশাল পরিসরে বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। এর দ্বারা প্রমাণ হয়, বিতর্ক চর্চা এখানে অত্যন্ত গ্রহণযোগ্য মর্যাদা অর্জন করেছে। সমাজের জন্যে এটি অত্যন্ত আশার কথা। চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক ফাউন্ডেশন (সিকেডিএফ) আয়োজিত পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতা ব্র্যান্ড জেলা চাঁদপুরের অনন্য ব্র্যান্ডে পরিণত হয়েছে। এই নান্দনিক ও শ্রমসাধ্য কর্মযজ্ঞটি যারা সম্পন্ন করে চলেছেন আমি তাদের আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞতা জানাই। আমি আশা করি, এই বিতর্ক প্রতিযোগিতা এক সময় শতবর্ষ পুরানো হয়ে উঠবে নিরন্তর ধারাবাহিকতায়।



আমি পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতার সার্বিক সাফল্য কামনা করি।



 



প্রফেসর মফিজুর রহমান



চেয়ারম্যান, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ,



ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং



প্রভোস্ট, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল।



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৩৫৩৮৭
পুরোন সংখ্যা