চাঁদপুর। মঙ্গলবার ১৪ আগস্ট ২০১৮। ৩০ শ্রাবণ ১৪২৫। ২ জিলহজ ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৪০-সূরা আল মু’মিন

৮৫ আয়াত, ৯ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৪৩। এতে সন্দেহ নেই যে, তোমরা আমাকে যার দিকে দাওয়াত দাও, ইহকালে ও পরকালে তার কোন দাওয়াত নেই! আমাদের প্রত্যাবর্তন আল্লাহর দিকে এবং সীমা লঙ্ঘনকারীরাই জাহান্নামী।

৪৪। আমি তোমাদেরকে যা বলছি, তোমরা একদিন তা স্মরণ করবে। আমি আমার ব্যাপার আল্লাহর কাছে সমর্পণ করছি। নিশ্চয়ই বান্দারা আল্লাহর দৃষ্টিতে রয়েছে।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


মনের বেদনা দৈহিক বেদনা থেকে আরও খারাপ।                           


-সাইরাস।


ধনের যদি সদ্ব্যবহার করা হয় তবে তা সুখের বিষয় এবং সদুপায়ে ধন বৃদ্ধির জন্যে সকলেই বৈধভাবে চেষ্টা করতে পারে।


ফটো গ্যালারি
শিক্ষক সাক্ষাৎকার : মোঃ রিদওয়ান খান
শিক্ষার্থীকে তথ্য-প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার সম্পর্কে জানতে হবে
১৪ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


মোঃ রিদওয়ান খান। শিক্ষকতা করছেন চাঁদপুর শহরের লেডী দেহলভী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে। তিনি আইসিটির শিক্ষক। সম্প্রতি শিক্ষা, শিক্ষকতা, আইসিটিসহ নানা বিষয় নিয়ে তার সাথে কথা হয় শিক্ষাঙ্গন বিভাগের। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন আল-আমিন হোসাইন।



 



শিক্ষাঙ্গন : কেমন আছেন?



মোঃ রিদওয়ান খান : আলহামদুলিল্লাহ, ভালো আছি।



 



শিক্ষাঙ্গন : আপনার শিক্ষাজীবন সম্পর্কে কিছু বলুন।



মোঃ রিদওয়ান খান : ২০০৮ সালে মতলব আদর্শ স্কুল থেকে এসএসসি ও ২০১০ সালে হাজীগঞ্জ মডেল কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হই। তারপর চাঁদপুর সরকারি কলেজ থেকে অর্থনীতিতে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করি।



 



শিক্ষাঙ্গন : শিক্ষকতা পেশায় কেনো এলেন?



মোঃ রিদওয়ান খান : ছাত্রাবস্থা থেকেই শিখানোর মধ্যে একটা আনন্দ খুঁজে পাই। নিজের অর্জিত জ্ঞান সবার মাঝে ছড়িয়ে দেয়া একটি মহৎ কাজ। আর শিক্ষকতার মহান দায়িত্বের প্রতি অকৃত্রিম শ্রদ্ধাবোধ থেকেই এ পেশায় পদার্পন করি।



 



শিক্ষাঙ্গন : শিক্ষকতা জীবনের মজার কোনো স্মৃতি সম্পর্কে বলুন।



মোঃ রিদওয়ান খান : শহরে কিংবা শহরের বাহিরে গ্রামের পথে অপরিচিত জায়গায় হঠাৎ কেউ একজন এসে সালাম দিয়ে যখন বলেছে, স্যার কেমন আছেন? তখনই খুব ভালো লেগেছে। বেশ কয়েকবার হয়েছে এমন ঘটনা।



 



শিক্ষাঙ্গন : আপনি আইসিটি শিক্ষক। শিক্ষার্থীরা আইসিটির প্রতি কতটা আগ্রহী?



মোঃ রিদওয়ান খান : বর্তমান সরকারের ভিশন-২০২১ বাস্তবায়নের কারণে শিক্ষা কার্যক্রমে ব্যাপক গতিশীলতা এসেছে। আধুনিক ও গুণগত শিখন-শিখানো কার্যক্রমের মাধ্যমে শিক্ষার মান দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর বিদ্যালয়গুলোতে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম ব্যবহারের কারণে শিক্ষার্থীরা অনেক বেশি মনযোগী ও আগ্রহী হচ্ছে।



 



শিক্ষাঙ্গন : আপনার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে বলুন।



মোঃ রিদওয়ান খান : লেডী দেহলভী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় চাঁদপুর শহরের অন্যতম নারীশিক্ষা প্রতিষ্ঠান। নারীশিক্ষার উন্নয়নে জোরালো ভূমিকা রাখতে এ প্রতিষ্ঠানটি বদ্ধপরিকর। আপনি জেনে আনন্দিত হবেন, শহরের বেসরকারি বিদ্যালয়গুলোর মধ্যে আমরাই প্রথম ডিজিটাল এডুকেশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমে শ্রেণি ও পরীক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছি। যার ফলে বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী উপস্থিতি বাড়ছে ও ফলাফলে উন্নতি হচ্ছে। আমরা আশা করছি, আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই এই প্রতিষ্ঠানটি শহরের সেরা বিদ্যালয়ে পরিগণিত হবে।



 



শিক্ষাঙ্গন : পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলা কতটা প্রয়োজনীয়?



মোঃ রিদওয়ান খান : পড়াশোনার পাশাপাশি মেধা ও মননকে উজ্জ্বীবিত রাখতে প্রয়োজন খেলাধুলা। এটি কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মেধাবিকাশে সহায়তা করে। তাই অবশ্যই ছাত্র-ছাত্রীদের লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলাও করতে হবে।



 



শিক্ষাঙ্গন : অনেকের অভিযোগ, বর্তমান শিক্ষার্থীরা বই বিমুখ। প্রযুক্তি শিক্ষার্থীদের বই বিমুখ করছে। আপনার কী মনে হয়?



মোঃ রিদওয়ান খান : নতুন মলাটের বই সেই ছোটবেলার কথা মনে করিয়ে দেয়। আর পড়ার প্রতি অন্যরকম এক আনন্দ এনে দেয়। প্রযুক্তি আমাদের জীবনে গতি এনেছে তা নির্দ্বিধায় স্বীকার করতে হবে। কিন্তু সকল ক্ষেত্রেই অপব্যবহারের একটি প্রভাব অবশ্যই রয়েছে। প্রযুক্তিপণ্য ব্যবহারের জন্যে শিক্ষার্থীদের আগে উপযোগী করে গড়ে তুলতে হবে। যাতে সে প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার করতে পারে। প্রকৃত অর্থে এমন নিরাপত্তা বলয় তৈরি করতে হবে যাতে শিক্ষার্থীরা পথভ্রষ্ট না হয়। তখন প্রযুক্তি অভিশাপ না হয়ে আশীর্বাদ হয়ে ধরা দিবে। আর শিক্ষার্থীরা বই পড়ার প্রতি আকৃষ্ট হবে। তাই শিক্ষার্থীকে তথ্য-প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার সম্পর্কে জানতে হবে।



 



শিক্ষাঙ্গন : অবসর সময়ে কী করেন?



মোঃ রিদওয়ান খান : ছুটি কিংবা অবসর সময় পেলে ঘুরতে ভালো লাগে। খুব দূরে না হোক, নদীর তীর কিংবা নির্জন গ্রামের পথ ধরে হেঁটে চলা উপভোগ করি। আর বাসায় থাকলে বই পড়তে ভালো লাগে।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৮২৯৫৮
পুরোন সংখ্যা