চাঁদপুর, মঙ্গলবার ৩০ জুন ২০২০, ১৬ আষাঢ় ১৪২৭, ৮ জিলকদ ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭২-সূরা জিন্ন্


২৮ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


৫। অথচ আমরা মনে করিতাম মানুষ এবং জিন্ন্ আল্লাহ সম্বন্ধে কখনও মিথ্যা আরোপ করিবে না।


৬। 'আরও এই যে, কতিপয় মানুষ কতক জিন্ন্রে শরণ লইত, ফলে উহারা জিন্নদের আত্মম্ভরিতা বাড়াইয়া দিত।'


 


assets/data_files/web

কথার শক্তিকে না জেনে মানুষকে জানা অসম্ভব।


-কনফুসিয়াম।


 


 


 


 


যে নামাজে হৃদয় নম্র হয় না, সে নামাজ খোদার নিকট নামাজ বলিয়াই গণ্য হয় না।


 


 


ফটো গ্যালারি
চাঁদপুর রোটারী ক্লাব সৃষ্টির ঐতিহাসিক পটভূমি
৩০ জুন, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


১৯৭০ সালের নভেম্বর মাসের প্রথমার্ধে এক শুভ সন্ধ্যায় কুমিল্লা রোটারী ক্লাবের সভাপতি রোটারিয়ান মুজিবুর রহমান চাঁদপুরের ডাঃ নূরুর রহমানের বাসগৃহ 'রিপোজ'-এ শুভাগমন করে এক মহতী সভায় চাঁদপুর শহরের বিভিন্ন পেশা ও ব্যবসায় নিয়োজিত এবং সমাজে প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তিবর্গের সমন্বয়ে রোটারীর উদ্দেশ্য ও আদর্শ এবং সর্বোপরি বন্ধুত্বের মাধ্যমে সমাজসেবায় সুযোগ নেয়ার বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। পরবর্তীতে ১৯৭০ সালের নভেম্বর মাসের ২০ তারিখে প্রথম সভা ডাঃ নূরুর রহমানের বাসভবন 'রিপোজে' অনুষ্ঠিত হয়। পর্যায়ক্রমে প্রতি শুক্রবার চক্রাকারে প্রতি সদস্যের বাড়িতে নির্ধারিত সময়ে সভা অনুষ্ঠিত হতে থাকে। এভাবে প্রস্তাবিত চাঁদপুর রোটারী ক্লাবের জন্ম হয়। সাপ্তাহিক সভাগুলোতে ক্লাবের সদস্যগণের আলোচনার মাধ্যমে সামাজিক উন্নয়নমূলক প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়নের মাধ্যমে ক্লাবের কার্যক্রম ১৯৭১ সালের মার্চ মাসের তৃতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে পরিচালিত হয়। অতঃপর ২৫ মার্চের কালো রাতে পাকিস্তানী দখলদার বাহিনীর ঘৃণ্য কর্মকা- শুরু হলে তাদের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধ চলার কারণে ক্লাবের কার্যক্রম ব্যাহত হয়। যুদ্ধোত্তর বিধ্বস্ত বাংলাদেশের পুনর্গঠন কাজে নিয়োজিত রোটারী ইন্টারন্যাশনালের বিশেষ প্রতিনিধি আজিজুল হকের বিশেষ প্রচেষ্টায় এবং আর আই ডিস্ট্রিক্ট-৩২৫-এর গভর্নর বিজয় এস ভা-ারীর সুপারিশক্রমে রোটারী ইন্টারন্যাশনাল ১৯৭৪ সনের ১২ এপ্রিল চাঁদপুর রোটারী ক্লাবকে আরআই সদস্য হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। সেমতে ১৯৭৪ সনের ২৪ জুন সদস্য সনদপত্র আনুষ্ঠানিকভাবে চাঁদপুর রোটারী ক্লাবের চার্টার প্রেসিডেন্ট রোটাঃ ডাঃ নূরুর রহমানের নিকট তৎকালীন আরআই ডিস্ট্রিক্ট-৩২৫-এর গভর্নর রোটাঃ মোতি লাল গুপ্তা হস্তান্তর করেন। ১৯৭১ সালের মার্চে সেবা ও উন্নয়নমূলক কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর মুক্তিযুদ্ধকালীন সাময়িকভাবে তা' বন্ধ হয়ে গেলেও পরবর্তীতে উক্ত সনদপ্রাপ্তির মধ্য দিয়ে চাঁদপুর রোটারী ক্লাব রোটারী বিশ্বের মানচিত্রে নিজের স্থান করে নেয়।



চাঁদপুর রোটারী ক্লাবের শুরুতে ২৯ জন চার্টার সদস্য নিয়ে ক্লাবের সেবামূলক কার্যক্রম পরিচলিত হয়। এখনো এই ক্লাবে ১ জন চার্টার সদস্য আছেন। তিনি হচ্ছেন রোটারিয়ান আলহাজ্ব এম এ মাসুদ ভূঁইয়া। চাঁদপুর রোটারী ক্লাবের বর্তমান সদস্য সংখ্যা ৬২ জন।



এক নজরে ক্লাবের বিবরণ : স্থাপিত : ২০ নভেম্বর, ১৯৭০।



সনদপ্রাপ্তি : ১২ এপ্রিল, ১৯৭৪; আনুষ্ঠানিক সনদপ্রাপ্তি : ২৪ জুন, ১৯৭৪।



সভা : প্রতি শুক্রবার, শীতকালে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা গ্রীষ্মকালে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা



ঠিকানা : রোটারী ভবন, কবি নজরুল সড়ক, চাঁদপুর।



এ পর্যন্ত যে সব ক্লাবকে চাঁদপুর রোটারী ক্লাব স্পন্সর করেছে :



১। চাঁদপুর সেন্ট্রাল রোটারী ক্লাব



২। বরিশাল রোটারী ক্লাব



৩। হাজীগঞ্জ রোটারী ক্লাব



৪। চাঁদপুর রোটার‌্যাক্ট ক্লাব



৫। চাঁদপুর রূপসী রোটার‌্যাক্ট ক্লাব



৬। চাঁদপুর ইন্টার‌্যাক্ট ক্লাব (কার্যক্রম স্থগিত)



৭। পুরাণ আদালত পাড়া আরসিসি (বিলুপ্ত)



 



 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ১,৯০,০৫৭ ১,৩০,৪২,৩৪০
সুস্থ ১,০৩,২২৭ ৭৫,৮৮,৫১০
মৃত্যু ২,৪২৪ ৫,৭১, ৬৮৯
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৮২৯৯২
পুরোন সংখ্যা