চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২৮ ভাদ্র ১৪২৬, ১২ মহররম ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৫-সূরা রাহ্মান


৭৮ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৬৬। উভয় উদ্যানে আছে উচ্ছলিত দুই প্রস্রবণ।


৬৭। সুতরাং তোমরা উভয়ে তোমাদের প্রতিপালকের কোন্ অনুগ্রহ অস্বীকার করিবে?


৬৮। সেথায় রহিয়াছে ফলমূল -খর্জুর ও আনার।


 


 


 


assets/data_files/web

বাণিজ্যই হলো বিভিন্ন জাতির সাম্য সংস্থাপক। -গ্লাডস্টোন।


 


 


যখন কোনো দলের ইমামতি কর, তখন তাদের নামাজকে সহজ কর।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
ফুটবল খেলায় বয়স নিয়ে দুর্নীতি
১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট আয়োজন করে আগামী দিনের সম্ভাবনাময় ফুটবলার সৃষ্টিতে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ অবদান রেখে চলছে বলে ক্রীড়াবিদরা মনে করছেন। জাতীয় ফুটবল দল বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় উপর্যুপরি পরাজয়ের শিকার হলেও বয়সভিত্তিক দলগুলো ভালো ফলাফল করছে এবং সম্ভাবনার হাতছানিতে সবাইকে আশান্বিত করছে। এর পেছনে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছে প্রাথমিক বিদ্যালয়ভিত্তিক উপরোক্ত দুটি টুর্নামেন্ট। ফুটবল বোদ্ধাদের পর্যবেক্ষণে এটা স্পষ্ট হয়েছে, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশের মেয়েরা যে ফুটবলে ভালো করছে তার পেছনে কাজ করছে বঙ্গমাতা ফুটবল। এভাবে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্ট বাংলাদেশের ফুটবলকে জাগিয়ে তুলতে ঐতিহাসিক ভূমিকা পালন করতে যাচ্ছে। এ দুটি টুর্নামেন্টে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছেলে ও মেয়েরা অংশ নেয়, যেখানে বয়স নিয়ে অনিয়ম করার নূ্যনতম সুযোগ নেই।



সরকার যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে উপজেলা পর্যায়ে আয়োজন করেছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট (অনূর্ধ্ব-১৭)। নিশ্চয়ই সরকারের উদ্দেশ্য হচ্ছে, প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফুটবলে যারা ইতঃমধ্যে ভালো খেলেছে, তারা যেনো শিক্ষা জীবনের পরবর্তী পর্যায়ে উপরোক্ত টুর্নামেন্টটিতে অংশ নিয়ে তাদের ফুটবল প্রতিভা বিকাশের কাজটি অব্যাহত রাখতে পারে। যদিও এ টুর্নামেন্টটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানভিত্তিক না হয়ে ইউনিয়নভিত্তিক হয়ে থাকে। আন্তঃ ইউনিয়ন পর্যায়ে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে উপজেলা পর্যায়ে চ্যাম্পিয়নশীপ, তারপর জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে চ্যাম্পিয়নশীপ এবং সর্বশেষ জাতীয় পর্যায়ে চ্যাম্পিয়নশীপ প্রদান করা হয় উক্ত টুর্নামেন্টে। এই টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী ফুটবলারদের বয়স নিয়ে কম-বেশি অনিয়ম করার সুযোগ সৃষ্টি হচ্ছে আয়োজকদের শৈথিল্যের কারণে-এই অভিযোগ দর্শকদের। চাঁদপুর সদর উপজেলা পর্যায়ে গত সোমবার চাঁদপুর স্টেডিয়ামে শুরু হয় এই টুর্নামেন্ট, যেখানে খেলোয়াড়দের বয়স সংক্রান্ত অনিয়ম সচেতন দর্শকদের চেখ এড়াতে পারেনি।



অধিকাংশ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান-মেম্বার স্থানীয় পর্যায়ে প্রতিভাবান ফুটবলারদের খুঁজে বের করার কষ্টটুকু না করে অন্যত্র থেকে ভাড়াটিয়া ফুটবলার এনে নিজেদের ইউনিয়ন দলকে বিজয়ী হবার উন্মাদনায় বয়স সংক্রান্ত অনিয়মের আশ্রয় নেয়। এক্ষেত্রে তাদের কেউ কেউ প্রভাব খাটিয়ে আয়োজকদের ম্যানেজ করার কাজটি করে থাকে। এই অনিয়মের কারণে বঙ্গবন্ধু অনূর্ধ্ব-১৭ ফুটবল টুর্নামেন্টটি মূল উদ্দেশ্যের দিকে সুষ্ঠুভাবে ধাবিত হতে পারবে না বলে অভিজ্ঞজনদের আশঙ্কা। আমরা এ ব্যাপারে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়কে কাঙ্ক্ষিত পর্যায়ে সচেতন থাকার অনুরোধ জানাচ্ছি।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৩৫০৯১
পুরোন সংখ্যা