চাঁদপুর। রোববার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ৩ আশ্বিন ১৪২৩। ১৫ জিলহজ ১৪৩৭
ckdf

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • --
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৫-সূরা ফুরকান

৭৭ আয়াত, ৬ রুকু, ‘মক্কী’

পরম করুণাাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৪৫। তুমি কি তোমার প্রতিপালকের প্রতি লক্ষ্য কর না কিভাবে তিনি ছায়া সম্প্রসারিত করেন? তিনি ইচ্ছা করিলে ইহাকে তো স্থির রাখিতে পারিতেন; অনন্তর আমি সূর্যকে করিয়াছি ইহার নির্দেশক।        

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


যে ব্যক্তি হালাল পথে রুজি করে সে প্রকৃত মুসলমান।  

-হযরত আঃ কাদের জিলানী (রহঃ)।


বিনয় ও সৌজন্য ঈমানের দুই শাখা এবং বৃথা বাক্যালাপ ও জাঁকজমক কপটতা (মুনাফেকির) দুই শাখা।     

-হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)


শিশু গৃহকর্মী নির্যাতন : গৃহকর্তাসহ আটক ৩ জন কাশিমপুর কারাগারে
এম রহমান
১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

গাজীপুরে শিশু গৃহকর্মী জান্নাতকে নির্যাতনের ঘটনায় আটক গৃতকর্তা ওমর ফারুক ও গৃহকর্ত্রী মনি বেগমসহ ৩ জনকে গাজীপুর জেলার কাশিমপুর কারাগারে প্রেরণ করা হয়। ঈদে বাড়ি যেতে চাওয়ায় গৃহকর্মী জান্নাতকে পিটিয়ে জখম করা হয়। জয়দেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার রেজাউল হাসান রেজা জানান, সর্বশেষ শুক্রবার রাতে ঢাকার বাড্ডায় এক আত্মীয়ের বাসা থেকে গৃহকর্মী মনি বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়। ঈদে বাড়ি যেতে চাওয়ায় চাঁদপুরের হাইমচরের শিশু জান্নাতকে (৯) পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠে গৃহকর্তা ওমর ফারুক ও তার স্ত্রী মনি বেগমের বিরুদ্ধে। জান্নাত হাইমচর উপজেলার বাংলাবাজারের বেড়িবাঁধ এলাকার মন্টু মাতব্বরের মেয়ে। বৃহস্পতিবার তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতেই জান্নাতের এক প্রতিবেশী বাদী হয়ে জয়দেবপুর থানায় ওমর ফারুক, মোস্তাফা সর্দার ও মনি বেগমকে আসামী করে মামলা করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জয়দেবপুর থানার এসআই আবদুল আজিজ জানান, গৃহকর্মী নির্যাতনের ঘটনায় প্রথমে গৃহকর্তা ওমর ফারুক ও তার ভায়রা মোস্তফা সর্দারকে গ্রেপ্তার করা হয়। শুক্রবার তাদের গাজীপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে বিচারক তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। আর শুক্রবার রাতে আটক হওয়া গৃহকর্তী মনি বেগমকে গতকাল শনিবার একই আদালতে হাজির করা হলে আদালতে তাকেও জেলহাজতে পাঠায়। জান্নাতকে এক বছর আগে মোস্তফা সর্দার তার ভায়রা গাজীপুর শহরের ভুরুলিয়া এলাকার বাসিন্দা ওমর ফারুকের বাসায় কাজ করতে নিয়ে যায়। ঈদের আগে গ্রামের বাড়ি যেতে চাওয়ায় এবং ঈদে নতুন জামা কিনে দিতে বলায় ওমর ফারুক ও তার স্ত্রী মনি বেগম মিলে জান্নাতের উপর নির্মম নির্যাতন চালায় বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে। শিশুটি বর্তমানে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৮৪৯৬৮
পুরোন সংখ্যা