চাঁদপুর। বৃহস্পতিবার ১২ জানুয়ারি ২০১৭। ২৯ পৌষ ১৪২৩। ১৩ রবিউস সানি ১৪৩৮

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • শুক্রবার সকালে হাজীগঞ্জের সৈয়দপুর সর্দার বাড়ির পুকুর থেকে শাহিদা আক্তার মুক্তা নামের এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ॥ স্বামী হাছান সর্দার পলাতক || হাজীগঞ্জের সৈয়দপুর সর্দার বাড়ির পুকুর থেকে শাহিদা আক্তার মুক্তা নামের এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ॥ স্বামী হাছান সর্দার পলাতক
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৬-সূরা শু’আরা


২২৭ আয়াত, ১১ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


১৮৪। ‘এবং ভয় করো তাঁহাকে যিনি তোমাদিগকে ও তোমাদের পূর্বে যাহারা গত হইয়াছে তাহাদিগকে সৃষ্টি করিয়াছেন।’


১৮৫। উহারা বলিল, ‘তুমি তো জাদুগ্রস্তদের অন্তর্ভূক্ত’। 


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


বন্যেরা বনে সুন্দর শিশুরা মাতৃক্রোড়ে।


       -সঞ্জীবচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়/পালামৌ। 

যার দ্বারা মানবতা উপকৃত হয়, তিনিই মানুষের মধ্যে শ্রেষ্ঠ।       


ফটো গ্যালারি
যৌতুকের দাবি মিটিয়েও খুন হতে হলো এক সন্তানের জননীকে স্বামী আটক
এম রহমান
১২ জানুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর সদর উপজেলার ১০নং লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়নের উত্তর রঘুনাথপুর খান বাড়িতে স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যা করেছে পাষ- স্বামী বাবুল। স্বামীর যৌতুকের দাবি মেটাতে স্ত্রী এনজিও থেকে যে ঋণ নিয়েছে সে ঋণের সাপ্তাহিক কিস্তির টাকা পরিশোধ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়ার এক পর্যায়ে স্ত্রীকে খুন করে স্বামী। গতকাল ১১ জানুয়ারি বুধবার ভোররাতে এ ঘটনা ঘটে। চাঁদপুর মডেল থানা ও পুরাণবাজার ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গতকাল সকালে নিহত গৃহবধূ সালমা বেগম (২২)-এর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্যে মর্গে প্রেরণ করেছে। একই সময় ওই বাড়ি থেকে ঘাতক স্বামীকে আটক করে পুলিশ। সে পেশায় দিনমজুর বলে জানা গেছে।



পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত ৪ বছর আগে রঘুনাথপুর তেরিজপুল কালাম মাস্টার খান বাড়ির মৃত নজিবউল্লাহ খানের ছেলে বায়েজীদ খান বাবুল (৩২)-এর সাথে একই ইউনিয়নের দোকানঘর এলাকার মিজি বাড়ির লতিফ মিজির মেয়ে সালমা বেগমের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের সময় সালমার পিতা আশা নামক এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে মেয়ের জামাই ও তার পরিবারের চাহিদা অনুযায়ী ২ লাখ টাকার মধ্যে নগদ ৬০ হাজার টাকা যৌতুক প্রদান করেন। তাদের সংসারে রিফাত নামে আড়াই বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। ওই সূত্র থেকে আরো জানা যায়, গত কিছুদিন পূর্বে স্বামীর যৌতুকের চাহিদা মেটাতে স্ত্রী সালমা বেগম পুনরায় আশা এনজিও থেকে ৪০ হাজার টাকা ঋণ নেয়। এ ঋণ প্রতি সপ্তাহে ১১শ' টাকা করে কিস্তিতে পরিশোধ করার কথা ছিলো। গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে স্ত্রী তার স্বামীর কাছে কিস্তি পরিশোধ করার জন্যে ১১শ' টাকা চায়। স্বামী সে টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করে উল্টো সালমার বাপের বাড়ি থেকে টাকা এনে কিস্তি পরিশোধ করার জন্যে বলে। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে স্বামী বাবুল তার স্ত্রীর গলাটিপে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। এদিকে এ হত্যার পর বাবুল ঘরেই ছিলো। ঘটনা টের পেয়ে বাড়ির লোকজন ভোর বেলা ওই ঘরের দিকে আসতে থাকলে ঘাতক বাবুল পালিয়ে যেতে চেষ্টা করে। তখন বাড়ির লোকজন তাকে আটক করে। এরই মধ্যে নিহত সালমার বাড়িতে খবর গেলে তার বাবা-মা ঘটনাস্থলে হাজির হন। খবর পেয়ে চাঁদপুর মডেল থানা ও পুরাণবাজার ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে বাড়ির লোকজন ঘাতক বাবুলকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। এ বিষয়ে বাবুল পুলিশের কাছে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলে তদন্ত কর্মকর্তা ও পুরাণবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই জাহাঙ্গীর আলম জানিয়েছেন।



খবর পেয়ে চাঁদপুর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মহিউদ্দিন ও এসআই সিরাজ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় নিহত সালমার পিতা লতিফ মিজি বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৫৭৭৯
পুরোন সংখ্যা