চাঁদপুর। মঙ্গলবার ২১ মার্চ ২০১৭। ৭ চৈত্র ১৪২৩। ২১ জমাদিউস সানি ১৪৩৮
ckdf

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • ***
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৭-সূরা নাম্ল 


৯৩ আয়াত, ৭ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৫৫। ‘তোমরা কি কামতৃপ্তির জন্য নারীকে ছাড়িয়ে পুরুষে উপগত হইবে? তোমরা তো এক অজ্ঞ সম্প্রদায়।’ 


৫৬। উত্তরে তাহার সম্প্রদায় শুধু বলিল, ‘লূত-পরিবারকে তোমাদের জনপদ হইতে বহিস্কৃত কর, ইহারা তো এমন লোক যাহারা পবিত্র সাজিতে চাহে।’  


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


কলমকে হৃদয়ের জিহ্বা বলা যায়।     -কারভেনটেস।

যে মুসলমান অবৈধ (হারাম) বস্তু হইতে দূরে থাকে ও ভিক্ষাবৃত্তি হইতে দূরে থাকে, যাহার শুধু একটি পরিবার (স্ত্রী), খোদাতায়ালা তাহাকেই ভালোবাসেন।   


চাঁদপুর অযাচক আশ্রম পরিদর্শনে ৩ ভারতীয় স্থপতি
স্টাফ রিপোর্টার
২১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


বিশ্ব অখন্ড সংঘের প্রধান কার্যালয় ভারতের কোলকাতায় অবস্থিত শ্রীশ্রী গুরুধামের বিশ্ব অখ- সংঘ প্রধান শ্রী শ্রীমৎ তপন ব্রহ্মচারী মহারাজ (দাদামনি) কর্তৃক ভারতের ৩ জন স্থপতি গত ১৯ মার্চ চাঁদপুর আসেন। তারা অখ-মন্ডলেশ্বর শ্রী শ্রী স্বামী স্বরূপানন্দ পরমহংসদেবের পুণ্য জন্মস্থান চাঁদপুর পুরাতন আদালত পাড়ায় অবস্থিত অযাচক আশ্রম পরিদর্শন করেন এবং চাঁদপুর অযাচক আশ্রমে বিশ্বমানের ধ্যানমন্দির নির্মাণকল্পে প্রণীত নকশা পর্যালোচনা পূর্বক তার বিষয়ে আশ্রম অধ্যক্ষ কবিরাজ সুখরঞ্জন ব্রহ্মচারীর সাথে মতবিনিময় করেন এবং শ্রী শ্রীমৎ স্বামী স্বরূপানন্দ পরমহংসদেবের পুণ্য জন্মভূমি চাঁদপুর অযাচক আশ্রমের কার্যক্রমসহ সুন্দর পরিবেশ দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং বাবামনির পুণ্য জন্মস্থানে আসতে পেরে নিজেদেরকে ধন্য মনে করেন। তারা যত দ্রুত স্বামী স্বরূপ নন্দের ধ্যান মন্দির নির্মাণ করা যায়, সেই ব্যাপারে আশ্রম কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্যও অনুরোধ জানান। তারা ধ্যান মন্দির নির্মাণ নকশার দ্রুত বাস্তবায়নে বিশ্ব অখ- সংঘ প্রধান শ্রী শ্রীমৎ তপন ব্রহ্মচারী (দাদামনির) মহারাজেরও সহায়তা কামনা করেন। আগত পশ্চিম বঙ্গ সরকারের পি ডবিস্নউ ডির সাবেক প্রধান প্রকৌশলী শংকর রায় চৌধুরী, প্রকৌশলী সুবল চন্দ্র দে, স্থপতি সঞ্জিত কুমার ঝাঁ, চাঁদপুর চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায়, চরিত্র গঠন আন্দোলন উপদেষ্টা কাজী শাহাদাত, চরিত্র গঠন আন্দোলনের আহ্বায়ক ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়াসহ সদর উপজেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদ নেতৃবৃন্দের সাথেও সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। তারা স্বামী স্বরূপানন্দ পরমহংসদেবের পুণ্য জন্মস্থানে ধ্যান মন্দির নির্মাণে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। আগত স্থপতিদের স্বাগত জানান বোর্ড অব ট্রাস্টি চাঁদপুর অযাচক আশ্রমের সদস্য দুলাল চন্দ্র দাস, চাঁদপুর জেলা সম্মিলিত অখন্ড সংগঠনের সভাপতি প্রফেসর রাধেশ্যাম কুড়ি, বিশিষ্ট কণ্ঠ শিল্পী মানিক চন্দ্র রায় প্রমুখ।



প্রায় ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ধ্যান মন্দির নির্মাণ করা হবে বলে জানা যায়। ধ্যান মন্দির কার্যক্রমে অনাথ অসহায় ছাত্রদের জন্য ছাত্রাবাস, দুঃস্থ মাতাদের জন্য আবাসন ব্যবস্থা, শ্রীশ্রী স্বামী স্বরূপানন্দ পরমহংসদেবের ব্যবহৃত সামগ্রী নিয়ে সংগ্রহশালা, ভক্ত নিবাসসহ বিভিন্ন সেবামূলক কার্যক্রম পরিচালিত হবে এবং ধ্যানমন্দিরে প্রায় হাজারো ভক্ত একসাথে প্রার্থনা করতে পারবে বলেও জানা যায়।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৮৫৯৬৬
পুরোন সংখ্যা