চাঁদপুর। রোববার ১৩ আগস্ট ২০১৭। ২৯ শ্রাবণ ১৪২৪। ১৯ জিলকদ ১৪৩৮

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • --
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৯-সূরা আনকাবূত

৬৯ আয়াত, ৭ রুকু, ‘মক্কী’

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

২৮। স্মরণ কর লুতের কথা, সে তাহার সম্প্রদায়কে বলিয়াছিল, ‘তোমরা তো এমন অশ্লীল কর্ম করিতেছ, যাহা তোমাদের পূর্বে বিশ্বে কেহ করে নাই।   

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন




একটি সুন্দর মন থাকা একটি সুন্দর রাজ্যে বসবাস করার আনন্দের মতো।                     

 -জনওয়েলস।


রাসূল (সাঃ) বলেছেন, নামাজ আমার নয়নের মণি।


৯ম পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতার অগ্রযাত্রা ২য় পর্ব (স্কুল)-এর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান
আজকের বিতার্কিকরাই আগামী দিনে আদর্শ মানুষ ও সুবক্তা হবে
চাঁদপুর চেম্বার অব কমার্স সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায়
১৩ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


বিমল চৌধুরী



প্রাকৃতিক দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া ও দিনভর বৃষ্টির মাঝেই উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হলো ৯ম পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতার অগ্রযাত্রা ২য় পর্ব (স্কুল)। 'বিতর্কের বন্ধনে তারুণ্যের শৃঙ্খলা' এ শ্লোগানকে সামনে রেখে গতকাল ১২ আগস্ট সকালে চাঁদপুর রোটারী ভবনের ডাঃ নূরুর রহমান কনফারেন্সের হল রুমে আয়োজিত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় নির্ধারিত বিষয়ের উপর চাঁদপুর জেলার ১৫টি উচ্চ বিদ্যালয়ের বিতার্কিক ছাত্র-ছাত্রীরা অংশগ্রহণ করে। শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী, অভিভাবক ও বিতর্কপ্রেমীদের উপস্থিতিতে বিতার্কিকদের উত্থাপিত যুক্তি ও তর্কে মুখরিত হয়ে উঠে ডাঃ নূরুর রহমান কনফারেন্স হল। বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া প্রতিটি দলই মরিয়া হয়ে উঠে নির্ধারিত বিষয়ের উপর তাদের যুক্তি উপস্থাপনের মধ্য দিয়ে বিজয়ী হওয়ার জন্য।



এই বিতর্ক প্রতিযোগিতার সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি ও জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের নব-নির্বাচিত সভাপতি বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী রোটারিয়ান সুভাষ চন্দ্র রায়। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, চাঁদপুর কণ্ঠ পত্রিকা শুধু সংবাদ পরিবেশন করে না, সামাজিক কর্মকা-েও তাদের অনেক অবদান রয়েছে। পত্রিকাটি তাদের বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের মধ্য দিয়ে আজও পাঠক মহলে তাদের অগ্রযাত্রা ধরে রেখেছে। পত্রিকাটি আমার খুবই প্রিয় এ জন্যে যে, তারা সকল ভালো কাজের সাথে সম্পৃক্ত থাকতে চেষ্টা করে। এজন্যে পত্রিকার প্রধান সম্পাদক রোটারিয়ান কাজী শাহাদাতের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে তিনি বলেন, ইলিশের বাড়ি চাঁদপুর আজ জাতীয়ভাবে স্বীকৃতি পেয়েছে। চাঁদপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির আয়োজনে ইলিশের বাড়ি চাঁদপুর-এর উপর বৃহৎ পরিসরে চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ঢাকায় চাঁদপুর জেলা ব্র্যান্ডিং ফ্যাস্টিভ্যাল অনুষ্ঠিত হয়। এর উপর ভিত্তি করে চাঁদপুরে দর্শনীয় ও উল্লেখযোগ্য স্থানের পরিচিতি তুলে ধরে একটি সুদৃশ্য মোড়কে 'ইলিশের বাড়ি চাঁদপুর' নামে ম্যাগাজিন প্রকাশিত হয়। এ ম্যাগাজিন প্রকাশে চাঁদপুরের বিতর্ক প্রতিযোগিতার অগ্রনায়ক রোটারিয়ান কাজী শাহাদাতের অবদান উল্লেখযোগ্য।



তিনি বিতার্কিকদের উৎসাহ দিয়ে বলেন, তোমরা ছাত্র-ছাত্রীরাই আমার দেশের গর্ব। আজকের বিতার্কিকরাই আগামী দিনে আদর্শ মানুষ ও সুবক্তা হবে। বিতর্ক প্রতিযোগিতার মাঝে অনেক কিছু শিক্ষণীয় আছে। যে কোনো কাজে জয়-পরাজয় থাকবে। জীবনে বড় হতে হলে প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে হবে। আর হারজিৎ বড় কথা নয়, প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়াই হলো বড় কথা। আজ যে হারবে সে আগামীতে বিজয়ী হবে। আর এ বিজয়ী হওয়ার জন্যে তাকে আরো বেশি বেশি করে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। জীবনে বড় হতে হলে সামনে এগিয়ে যেতে হবে। তিনি মেধা বিকাশে এ ধরনের বিতর্ক প্রতিযোগিতার বিকল্প নেই বলেও উল্লেখ করেন এবং চাঁদপুর কণ্ঠ আয়োজিত বিতর্ক প্রতিযোগিতার সফলতা কামনা করেন।



সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপ্রধানের দায়িত্ব পালন করেন চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রোটারিয়ান কাজী শাহাদাত। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ফরিদগঞ্জ উপজেলা সিকেডিএফের যুগ্ম সম্পাদক মোঃ রাসেল হাসান। অনুষ্ঠানে বিতর্ক প্রতিযোগিতায় বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন সিকেডিএফের উপদেষ্টা ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়া, সহ-সভাপতি এএইচএম আহসান উল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক রাজন চন্দ্র দে, চাঁদপুর হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক সিনিয়র শিক্ষক আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল মালেক, সিকেডিএফ ফরিদগঞ্জ উপজেলার যুগ্ম সম্পাদক রাসেল হাসান।



মডারেটরের দায়িত্ব পালন করেন সিকেডিএফের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মোঃ আরিফ হোসেন, কার্যকরী সদস্য মোঃ আবু সালেহ, সিকেডিএফ ফরিদগঞ্জ শাখার সদস্য শামীম হাসান ও বিতর্ক অনুরাগী রত্না আক্তার।



গতকাল অনুষ্ঠিত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হয় হাজীগঞ্জ উপজেলার রামপুর উচ্চ বিদ্যালয় (শ্রেষ্ঠ বক্তা হন একই বিদ্যালয়ের ইফরাত আরা নূর মিমতা), হাজীগঞ্জ উপজেলার রাজারগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় (শ্রেষ্ঠ বক্তা একই বিদ্যালয়ের সানজিদা মজুমদার মাহি), চাঁদপুর সদর উপজেলার ফরক্কাবাদ উচ্চ বিদ্যালয় (শ্রেষ্ঠ বক্তা একই বিদ্যালয়ের রিমা আক্তার পপি), হাইমচর উপজেলার দুর্গাপুর উচ্চ বিদ্যালয় (শ্রেষ্ঠ বক্তা একই বিদ্যালয়ের সালমা সুলতানা), কচুয়া উপজেলার রহিমানগর বিএবি উচ্চ বিদ্যালয় (শ্রেষ্ঠ বক্তা একই বিদ্যালয়ের রাবেয়া আক্তার), শাহরাস্তি উপজেলার মেহার উচ্চ বিদ্যালয় (শ্রেষ্ঠ বক্তা নিজ মেহার মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী ফাতেমা জাহান), কচুয়া উপজেলার কচুয়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় (শ্রেষ্ঠ বক্তা চাঁদপুর সদর উপজেলার জিলানী চিশতী উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র রাইফুল ইসলাম) এবং ফরিদগঞ্জ উপজেলার বালিথুবা আব্দুল হামিদ উচ্চ বিদ্যালয় (শ্রেষ্ঠ বক্তা একই বিদ্যালয়ের লুৎফুন্নাহার লুবনা)।



এই ৮টি বিতর্ক দল আগমী ১৯ আগস্ট কোয়ার্টার ফাইনাল (জয়যাত্রা) পর্বে অংশগ্রহণ করবে।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৭৬৯১৫
পুরোন সংখ্যা