চাঁদপুর। বৃহস্পতিবার ১৭ আগস্ট ২০১৭। ২ ভাদ্র ১৪২৪। ২৩ জিলকদ ১৪৩৮

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • শুক্রবার সকালে হাজীগঞ্জের সৈয়দপুর সর্দার বাড়ির পুকুর থেকে শাহিদা আক্তার মুক্তা নামের এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ॥ স্বামী হাছান সর্দার পলাতক || হাজীগঞ্জের সৈয়দপুর সর্দার বাড়ির পুকুর থেকে শাহিদা আক্তার মুক্তা নামের এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ॥ স্বামী হাছান সর্দার পলাতক
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৯-সূরা আনকাবূত


৬৯ আয়াত, ৭ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৩১। যখন আমার প্রেরিত ফিরিশ্তাগণ সুসংবাদসহ ইব্রাহীমের নিকট আসিল, তাহারা বলিয়াছিল, ‘আমরা এই জনপদবাসীকে ধ্বংস করিব, ইহার অধিবাসীরা তো যালিম।  


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


 


জীবনে শুধু একবার বিবাহ করা যায়, সে উৎসবের পুনরাবৃত্তি অসুন্দর।                     


                            -অন্নদাশঙ্কর।


 


মুসলমান ভাইয়ের সাথে ঝগড়া ফ্যাসাদ করিও না, ওয়াদা ভঙ্গ করিও না।


 

ফটো গ্যালারি
শোক দিবসে আমাদের শপথ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা আমরা গড়বোই
জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওচমান গনি পাটওয়ারী
স্টাফ রিপোর্টার
১৭ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে চাঁদপুর জেলা পরিষদের উদ্যোগে প্রথম বারের মতো ব্যাপক কর্মসূচি পালিত হয়েছে। দিনব্যাপী কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওচমান গনি পাটওয়ারী। অনুষ্ঠানে প্রশাসনিক কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশগ্রহণ করেন।



সভাপতির বক্তব্যে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওচমান গনি পাটওয়ারী বলেন, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত একটি সুখী, সমৃদ্ধ, আধুনিক, উন্নত, গণতান্ত্রিক ও অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখেছিলেন বঙ্গবন্ধু। এক কথায় বলতে গেলে সত্যিকারের সোনার বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন জাতির পিতা। কিন্তু স্বাধীনতার পরাজিত শক্তি পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট সপরিবারে জাতির জনককে হত্যা করেছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বঙ্গবন্ধুর কাঙ্ক্ষিত উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বাস্তবায়িত হতে চলেছে। আজকে শোক দিবসে আমাদের শপথ হোক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা আমরা গড়বোই।



মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় শহরের শপথ চত্বরে বঙ্গবন্ধুর অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণের মধ্য দিয়ে শোক দিবসের কর্মসূচি শুরু করে জেলা পরিষদ। সেখান থেকে শোক র‌্যালি শুরু হয়ে চাঁদপুর প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়। এরপর সকাল ১০টায় প্রেসক্লাব সংলগ্ন মাঠে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি, সোয়া ১০টায় চাঁদপুর প্রেসক্লাব সংলগ্ন রেডক্রিসেন্ট ইউনিট কার্যালয়ে স্বেচ্ছায় রক্তদান ও রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি, সকাল সাড়ে ১০টায় চাঁদপুর প্রেসক্লাব সংলগ্ন মাঠে বঙ্গবন্ধুর বর্ণাঢ্য জীবনীর উপর প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন, সকাল সোয়া ১১টায় বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কণ্ঠশিল্পী পলাশ দে'র প্রথম গানের সিডি 'ঋণী যে মোরা তোমারই কাছে'-এর মোড়ক উন্মোচন, সকাল সাড়ে ১১টায় 'জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বাংলাদেশ' শীর্ষক আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল, দুপুর পৌনে ২টায় চাঁদপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তন ও সংলগ্ন মাঠে গণভোজ অনুষ্ঠিত হয়।



এছাড়া দুপুর ২টায় বালিয়া কমিউনিটি সেন্টারে ত্রিপুরা গোষ্ঠীর ব্যবস্থাপনায় বিশেষ প্রার্থনা, হরিজন সম্প্রদায়ের বিশেষ প্রার্থনা, সন্ধ্যা ৬টায় চাঁদপুর ব্যাপটিস্ট মিশনে বিশেষ প্রার্থনা, দুপুর ও সন্ধ্যায় শ্রী শ্রী কালিবাড়ি মন্দিরে জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের ব্যবস্থাপনায় বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। দিবসটি উপলক্ষে চাঁদপুর জেলা পরিষদের সকল স্থাপনা এবং চাঁদপুরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ভবন ও স্থানে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ব্যানার স্থাপন করা হয়। জাতীয় শোক দিবসে জেলা পরিষদের উদ্যোগে চাঁদপুরের সকল দৈনিক পত্রিকায় বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশিত হয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রচিত 'অসমাপ্ত আত্মজীবনী' এবং 'কারাগারের রোজনামচা' নামক স্মৃতিগ্রন্থ দু'টির শতাধিক কপি জেলা যুবলীগ ও জেলা ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দের হাতে তুলে দেন আলহাজ্ব ওচমান গনি পাটওয়ারী।



জেলা পরিষদের আয়োজনে শোক দিবসের আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল মান্নান। অনুষ্ঠানে যোগদান করেন জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডল, পুলিশ সুপার শামসুন্নাহারসহ প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ। অনুষ্ঠানের নিরাপত্তায় পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাবের টহল ছিল। সারা জেলা থেকে প্রচুর সাধারণ মানুষও অনুষ্ঠানে যোগদান করেন।



চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জি এম শাহীনের সঞ্চালনায় উন্মুক্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখেন প্রেসক্লাব সভাপতি শরীফ চৌধুরী, জেলা বিএমএ'র সাবেক সভাপতি ডাঃ হারুন-অর-রশিদ সাগর, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বি এম হান্নান, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার আবদুর রব ভূঁইয়া, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা রফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া, জেলা যবুলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক সালাউদ্দিন মোঃ বাবর, যুগ্ম আহ্বায়ক ঝন্টু দাস, চাঁদপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র ছিদ্দিকুর রহমান ঢালী, জেলা পরিষদ সদস্য যথাক্রমে মুকবুল হোসেন মিয়াজী, মশিউর রহমান মিঠু ও জসিম উদ্দিন, জেলা জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মোস্তাফিজুর রহমান, বাসস্ট্যান্ড মাদ্রাসার মোহতামিম মাওলানা আবদুর রশিদ, লেডি দেহলভী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইলিয়াছ মিয়া, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক এস এম জয়নাল আবেদীন, যুগ্ম আহ্বায়ক এমএ হাসান লিটন, হাইমচর উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি আতিকুর রহমান পাটওয়ারী, ফরিদগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক আলমগীর হোসেন রিপন, জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারহানা আক্তার রুমা, জেলা বিদ্যুৎ শ্রমিক লীগের সভাপতি ইসমাইল হোসেন, ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জান্নাতুল বাকী বিল্লাহ উপম পাটওয়ারী, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য চৌধুরী আঃ কাদের জিলানাী, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পারভেজ করিম বাবু, সহ-সভাপতি হাসিব পাটওয়ারী, হাইমচর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, চাঁদপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মাসুদুর রহমান পরান প্রমুখ।



অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ পাটওয়ারী, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ইকরাম চৌধুরী, সাবেক সভাপতি শাহ মোঃ মাকসুদুল আলম, সাবেক সভাপতি শহীদ পাটওয়ারী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন মিলন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মিজানুর রহমান কালু ভূঁইয়া, যুগ্ম আহ্বায়ক আবু পাটওয়ারী, যুগ্ম আহ্বায়ক মোঃ আলী জিন্নাহ, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি অ্যাডঃ জসিম উদ্দিন পাটওয়ারী, জেলা পরিষদ সদস্য নূরুল ইসলাম পাটওয়ারী, জেলা পরিষদের সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য খোদেজা রহমান, জোবেদা মজুমদার খুশি, জান্নাতুল ফেরদৌসী, সদর উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি নাজমুল হোসেন পাটওয়ারী, শহর যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বজলুর রহমান মোল্লা, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক কে এম মাসুদ, জেলা পরিষদের সহকারী প্রকৌশলী ইকবাল হোসেন, প্রশাসনিক কর্মকর্তা শেখ মহিউদ্দিন রাসেল, হিসাবরক্ষক মোঃ ইকবাল হোসেনসহ জেলা পরিষদর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।



 



অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জেলা পরিষদের উচ্চমান সহকারী মোঃ মজিবুর রহমান। গীতা পাঠ করেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক লক্ষ্মণ চন্দ্র সূত্রধর। মিলাদ ও দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন জাফরাবাদ মাদ্রাসার মোহতামিম মাওলানা জাফর আহমেদ।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৫১৬৫
পুরোন সংখ্যা