চাঁদপুর। শুক্রবার ১৩ অক্টোবর ২০১৭। ২৮ আশ্বিন ১৪২৪। ২২ মহররম ১৪৩৯
kzai
muslim-boys

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩০-সূরা রূম


৬০ আয়াত, ৬ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


২৮। আল্লাহ তোমাদের জন্য তোমাদের নিজেদের মধ্যে একটি দৃষ্টান্ত পেশ করিতেছেন : তোমাদেরকে আমি যে রিযিক  দিয়াছি, তোমাদের অধিকারভুক্ত দাস-দাসিগণের কেহ কি তাহাতে অংশীদার? ফলে তোমরা কি এই ব্যাপারে সমান? তোমরা কি উহাদেরকে  সেইরূপ ভয় কর যেইরূপ তোমরা পরস্পর পরস্পরকে ভয় কর?  এইভাবেই আমি বোধশক্তিসম্পন্ন লোকদের নিকট নির্দশনাবলী বিবৃত করি।


২৯। বরং সীমালংঘনকরীরা অজ্ঞতাবশত তাহাদের খেয়াল-খুশির অনুসরণ করে, সুতরাং আল্লাহ যাহাকে পথভ্রষ্ট করিয়াছেন, কে তাহাকে সৎপথে পরিচালিত করিবে?  আর তাহাদের কোন সাহায্যকারী নাই।


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


 


প্রেমহীন দাম্পত্য জীবন ব্যভিচারের নামান্তর। 


           -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

যা ইচ্ছা আহার করতে পারো, যা ইচ্ছা পরিধান করতে পারো, যদি তোমাদেরকে অপব্যয় ও গর্ব স্পর্শ না করে।


বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্টের জেলা পর্যায়ের খেলা উদ্বোধন
মিজানুর রহমান
১৩ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও চাঁদপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য ডাঃ দীপু মনি বলেছেন, আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি। তাঁর জন্ম না হলে হয়তো আমরা স্বাধীন এই বাংলাদেশ পেতাম না। এ মানুষটি যখন টুঙ্গিপাড়ার খোকা ছিলেন, তখন তিনি অনেক বেশি ফুটবল খেলতেন। গ্রামে তাঁর একটা ফুটবল দলও ছিলো। বঙ্গবন্ধুর পাশে সবসময় ছায়ার মতো ছিলেন বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব অর্থাৎ বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী। স্বামী বঙ্গবন্ধু যখন দেশের কাজে ব্যস্ত, তখন সবসময় তাঁকে উৎসাহ-অনুপ্রেরণা দিয়েছেন, উদ্দীপনা যুগিয়েছেন, কখনো তাঁকে বাধা দেননি। তিনি গতকাল ১২ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় চাঁদপুর স্টেডিয়ামে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্ট ২০১৭-এর জেলা পর্যায়ের খেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথাগুলো বলেন।



জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের আয়োজনে এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপ্রধানের বক্তব্য রাখেন জেলা টুর্নামেন্ট কমিটির আহ্বায়ক জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডল। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার পিপিএম ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন টুর্নামেন্ট কমিটির সদস্য সচিব ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার খোরশেদ আলম। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি হাফেজ আহম্মদ। উপস্থিত ছিলেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তা আলহাজ্ব মোঃ জাহাঙ্গীর আখন্দ সেলিম, আলহাজ্ব এমএ মাসুদ ভূঁইয়া, চাঁদপুর চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায়, জেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি ডাঃ মোঃ একিউ রুহুল আমিন, সাবেক সভাপতি ডাঃ এসএম সহিদ উল্লাহ, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শামছুল হক মন্টু পাটওয়ারী, তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাবু, সদস্য শাহির হোসেন পাটওয়ারী, অ্যাডঃ জাহিদুল ইসলাম রোমান, পৌর প্যানেল মেয়র হুমায়ুন কবির খানসহ জেলা ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, শিক্ষকম-লী, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ, রাজনৈতিক দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ এবং ফুটবলপ্রিয় দর্শকগণ।



ডাঃ দীপু মনি এমপি এমপি তাঁর বক্তব্যে আরো বলেন, শিশুদের জন্যে এই বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ টুর্নামেন্টের আয়োজনের একটি উদ্দেশ্য হচ্ছে, খেলাধুলার মাঝে আমরা আমাদের ছেলে-মেয়েদের ব্যস্ত রাখা এবং তাদেরকে খেলাধুলার সুযোগ করে দেয়া। যাতে তাদের শারীরিক সুস্থতা বজায় থাকে, মানসিক বিকাশ ঘটে। তাদের মধ্যে খেলোয়াড়সুলভ মনোভাব গড়ে ওঠে। তারা হার জিত মেনে নিতে পারে। আর এতে তারা একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া শিখবে। পাশাপাশি সামাজিক যেসব ব্যাধি আছে মাদক, ইভটিজিং, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ এবং বাল্যবিবাহ এসব থেকেও তাদের আমরা দূরে রাখতে পারবো।



তিনি আরো বলেন, যাঁদের নামে এ টুর্নামেন্ট সেই বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা, খেলার মাধ্যমে শিশুরা এ দু'জন মানুষের জীবন সম্পর্কে, দেশের প্রতি ত্যাগ, মানুষের প্রতি তাদের যে অপার ভালোবাসা ছিলো তা জানবে এবং নিজেরা উদ্বুদ্ধ হবে। বঙ্গবন্ধুর বড় সস্তান আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিনিও ক্রীড়ামোদী মানুষ। এদেশের ক্রীড়ার উন্নয়নে সবসময় তিনি ভাবেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন আমাদের ক্রীড়াঙ্গনের ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। ডাঃ দীপু মনি এমপি টুর্নামেটের সফলতা কামনা করে এর শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।



উদ্বোধনী খেলায় বঙ্গবন্ধু ফুটবলে চাঁদপুর সদর উপজেলার বালিয়ার কুমুরুয়া সূর্য রায় নন্দী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ৬-১ গোলের সহজ জয় পায়। তারা কচুয়া জগতপুর চকরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে পরাজিত করে। বিজয়ী দলের পক্ষে নাজমুল হাসান ২টি, রেজাউল ইসলাম মিজি, ইনসান শেখ, মুন্না ও সালেহ হৃদয় ১টি করে গোল করেন। আর বঙ্গমাতা ফুটবলে চাঁদপুর সদরের কল্যান্দী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ১-০ গোলে কচুয়ার সানন্দকরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে পরাজিত করে। বিজয়ী দলের পক্ষে শারমিন গোলটি করে। উপজেলা পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন ৮টি করে ১৬টি বালক-বালিকা স্কুল ফুটবল দল জেলা পর্যায়ের এ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৩৪৪৬৪
পুরোন সংখ্যা