চাঁদপুর। বুধবার ২৪ জানুয়ারি ২০১৮। ১১ মাঘ ১৪২৪। ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯
kzai
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৪-সূরা সাবা

৫৪ আয়াত, ৬ রুকু, মাক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

২৪। বলুন, নভোম-ল ও ভূমন্ডল থেকে কে তোমাদেরকে রিযিক দেয়। বলুন, আল্লাহ। আমরা অথবা তোমরা সৎপথে অথবা স্পষ্ট বিভ্রান্তিতে আছি ও আছ?

২৫। বলুন, আমাদের অপরাধের জন্যে তোমরা জিজ্ঞাসিত হবে না এবং তোমরা যা কিছু কর, সে সম্পর্কে আমরা জিজ্ঞাসিত হব না।

২৬। বলুন, আমাদের পালনকর্তা আমাদেরকে সমবেত করবেন, অতঃপর তিনি আমাদের মধ্যে সঠিকভাবে ফয়সালা করবেন। তিনি ফয়সালাকারী, সর্বজ্ঞ।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


বুদ্ধিমান লোক নিজে নত হয়ে বড় হয়, আর নির্বোধ ব্যক্তি নিজেকে বড় বলে অপদস্থ হয়।                              

-হযরত আলী (রাঃ)।


যে ব্যক্তি উদরপূর্তি করিয়া আহার করে, বেহেশতের দিকে তাহার জন্যে পথ উন্মুক্ত হয় না।


ফটো গ্যালারি
প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ-২০১৮-এর উদ্বোধন
কৃষক ও খামারিরা লাভবান হলে দেশ সুখী সমৃদ্ধ হবে
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ মাঈনুল হাসান
মুহাম্মদ আবদুর রহমান গাজী
২৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


'বাড়াবো প্রাণিজ আমিষ গড়বো দেশ-স্বাস্থ্য মেধা সমৃদ্ধির বাংলাদেশ' এ সস্নোগান নিয়ে ৬ দিনব্যাপী প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ-২০১৮-এর উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের সামনে গত ২০ জানুয়ারি থেকে এ উপলক্ষে মেলা শুরু হলেও গতকাল সোমবার উদ্বোধনী র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ মেলা চলবে আগামীকাল ২৫ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার পর্যন্ত।



উদ্বোধনী কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় প্রাণিসম্পদ কার্যালয় থেকে শুরু হয়ে চাঁদপুর শহরের গুরত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে একটি র‌্যালি বের করা হয়। পরে মেলা মাঠে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।



আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (আইসিটি ও শিক্ষা) মোঃ মাঈনুল হাসান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোঃ মিজানুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, জেলা কৃষি সম্পসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক মোঃ জাকির হোসেন, চাঁদপুর সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) অভিষেক দাস প্রমুখ।



জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডাঃ সুবোধ কুমার দাসের সভাপতিত্বে ও সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের ভেটেরিনারি সার্জন ডাঃ ফারহানা জাহানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন হাফেজ মোঃ রায়হান। খামারিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মোহাম্মদ উল্লাহ, মোঃ হাশেম খান ও শাহীনা আক্তার।



এ উপলক্ষে আয়োজিত মেলায় খামারিদের বিনামূল্যে ঔষধ বিতরণ করা হয়। এছাড়া ৮টি স্টলে বিভিন্ন জাতের গবাদি পশু, হাঁস-মুরগী, ভেড়া, ছাগল এবং প্রাণিজ খাদ্য ও ঔষধপত্র প্রদর্শন করা হয়। সবশেষে অতিথিবৃন্দ স্টলগুলো পরিদর্শন করেন।



প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, বর্তমান সরকার কৃষক ও খামারিদের প্রতি খুবই আন্তরিক। কৃষক ও খামারিরা লাভবান হলে সুখী সমৃদ্ধ হবে এ দেশ। প্রাণিসম্পদ হাসপাতাল বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ব্যবসায়ী খামারির জন্যে গুরুত্বপূর্ণ। এখানে সেবা যতো সহজ হবে, খামারিদের সংখ্যা ততো বেশি হবে। তিনি বলেন, কৃষির নিরন্তর সম্ভাবনার দেশ বাংলাদেশ। বাংলার কৃষি এবং বাংলার কৃষক একই সুতোয় বাঁধা। এটিকে ওয়ানস্টপ বা সিঙ্গেলডোর সার্ভিসও বলা যেতে পারে। কেননা যে কৃষক ধান ফলায়, সে বাড়ির আঙ্গিনায় শাক সবজির আবাদ করে, সে আবার তার পুকুরে মাছের চাষও করে। তিনিই আবার দুটো ছাগল, একটি গরু, দশটি কবুতর পালন করেন। কেননা দৈনন্দিন জীবনে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মধ্যে এগুলো আবশ্যকীয়ভাবে প্রয়োজন পড়ে। আর এসবের বিকল্প নেই। একজন কৃষক-কৃষাণী তার আঙ্গিনা থেকে নিত্যপ্রয়োজনীয় সব কিছু অনায়াসে পেয়ে যায় এবং বাড়তি অংশ বাজারে বিক্রি করে অতিরিক্ত দু'পয়সা আয় করতে পারেন। তিনি বলেন, এদেশে প্রতিটি পরিবার যদি সমৃদ্ধ হয়ে সুখে থাকে তাহলে নিশ্চিত সুখে থাকবে বাংলাদেশ। বক্তৃতা শেষে প্রধান অতিথি ৬ দিনব্যাপী প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ-২০১৮-এর শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
২৭২৩৫৩
পুরোন সংখ্যা