চাঁদপুর। সোমবার ১৬ এপ্রিল ২০১৮। ৩ বৈশাখ ১৪২৫। ২৮ রজব ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • হাজীগঞ্জে আটককৃত বিএনপি'র ১৭ নেতাকর্মীকে জেলহাজতে প্রেরন
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৭- সূরা আস-সাফফাত

১৮২ আয়াত, ৫ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

২৯। তারা বলবে, বরং তোমরা তো বিশ^াসীই ছিলে না।

৩০। এবং তোমাদের উপর আমাদের কোনো কর্তৃত্ব ছিল না, বরং তোমরাই ছিলে সীমা লংঘনকারী সম্প্রদায়।

৩১। আমাদের বিপক্ষে আমাদের পালনকর্তার উক্তিই সত্য হয়েছে। আমাদেরকে অবশ্যই স্বাদ আস্বাদন করতে হবে।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


দারিদ্র্যকে যে মাথা পেতে গ্রহণ করে, সে ব্যক্তিত্বহীন পুরুষ।         


-লংফেলো।




মানুষ মিথ্যাবাদী সাব্যস্ত হবার জন্যে এটাই যথেষ্ট যে, সে যা শোনে (যাচাই না করে) তা-ই বলে বেড়ায়।  

 


ফটো গ্যালারি
বর্ষবরণে চাঁদপুর সরকারি কলেজে অভূতপূর্ব আয়োজন
এএইচএম আহসান উল্লাহ
১৬ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


বর্ণাঢ্য আয়োজনে ক্যাম্পাসে এক অভূতপূর্ব উৎসবের দৃশ্য দেখে মনো হলো এটি যেনো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো আয়োজন। বিশাল শোভাযাত্রা দেখে মনে হলো ঢাবির চারুকলা থেকে বের হওয়া মঙ্গল শোভাযাত্রা। মূলত এ দিন চাঁদপুর সরকারি কলেজের পুরো ক্যাম্পাস মেতে উঠেছে বর্ষবরণ উৎসবের আনন্দে। কলেজের প্রতিটি বিভাগ নিজ নিজ অঙ্গনে আয়োজন তো করেছেই, আবার মাঠে রাজু ভবনের সামনে এবং শহীদ মিনারের পাশেও ছিলো বাঙালিয়ানার নানা আয়োজন। খড়কুটো দিয়ে কুঁড়ে ঘরের আদলে স্টল, আর সে স্টলে বাঙালির ঐতিহ্য পিঠা, পুলিসহ বেত ও মাটির তৈরি বিভিন্ন সামগ্রীর পসরা ছিলো চোখ জুড়ানোর মতো। প্রত্যেক বিভাগেই চলছিলো বাঙালির প্রকৃত সংস্কৃতি ভাটিয়ালী, পল্লীগীতি ও ভাওয়াইয়াসহ বাংলা মায়ের নানা গান। পুরো ক্যাম্পাস জুড়ে আনন্দ আর হৈ হুল্লোড়।



আর আনন্দ উৎসবে মনমাতানো এ আয়োজনে প্রাণের টানে চলে আসলেন বাঙালির আরেক অহঙ্কার ডাঃ দীপু মনি এমপি। তাঁকে পেয়ে যেনো সার্বিক আয়োজনের ষোলকলা পূর্ণ হলো। তখন শিক্ষার্থীরা তাকে নিয়েই করলো উল্লাস, প্রতিযোগিতা লেগে গেলো তাঁর সাথে কে কার আগে সেলফি তুলবে। আর মাঝে মধ্যে দেখা গেলো তিনিও যেনো কৈশোরে ফিরে গেলেন। তিনি সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় সকলকে বাংলা নববর্ষের উষ্ণ শুভেচ্ছা জানালেন। ডাঃ দীপু মনিকে তখন অভ্যর্থনা জানান কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. এএসএম দেলওয়ার হোসাইন, উপাধ্যক্ষ প্রফেসর অসিত বরণ দাশসহ শিক্ষক পরিষদের নেতৃবৃন্দ। সাথে ছিলেন কলেজ ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। ডাঃ দীপু মনির সাথে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ ছাড়া বেশ ক'জন সাংবাদিকও ছিলেন। চাঁসক'র বর্ষবরণের এ উৎসব যারাই দেখেছে, তারাই বলেছে, পহেলা বৈশাখ বা নববর্ষের উৎসব তো দেখি এখানেই হচ্ছে। অভূতপূর্ব ও অবিস্মরণীয় ছিলো সামগ্রিক আয়োজন।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৬০৭৯৮৬
পুরোন সংখ্যা