চাঁদপুর। রোববার ২২ এপ্রিল ২০১৮। ৯ বৈশাখ ১৪২৫। ৫ শাবান ১৪৩৯

বিজ্ঞাপন দিন

jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৭- সূরা সাফ্ফাত

১৮২ আয়াত, ৫ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৫৪।  আল্লাহ বলবেন, তোমরা কি তাকে উঁকি দিয়ে দেখতে চাও?

৫৫। অপর সে উঁকি দিয়ে দেখবে এবং তাকে জাহান্নামের মাঝখানে দেখতে পাবে।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


পরিশ্রমী লোকের নিকট সবচেয়ে সুখপ্রদ জিনিস হচ্ছে ঘুম।

  -জনবুলিয়ান।


মজুরের গায়ের ঘাম শুকাবার আগে তার মজুরি দিয়ে দাও।


ফটো গ্যালারি
মতলব দক্ষিণে ১০ম পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতার প্রান্তিক পর্ব সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন
বিতর্ক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে যৌক্তিক মন বিকশিত হয় : উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শাহিদুল ইসলাম
প্রত্যেক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ যেন শিক্ষার্থীদের বিতর্কে সহায়তা করে : উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার
২২ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


রেদওয়ান আহমেদ জাকির ও আরিফ বিল্লাহ



নিবন্ধিত সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে মতলব দক্ষিণে ১০ম পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতার প্রান্তিক পর্ব সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। সকাল ৮টায় র‌্যালির পর প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শাহিদুল ইসলাম। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, বির্তক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে যৌক্তিক মন বিকশিত হয়। শুধু জয়ের জন্য বিতর্ক নয়। বিতর্কের মাধ্যমে আগামী দিনের নেতৃত্ব তৈরি হয়। যৌক্তিকভাবে সামাজিক, রাজনৈতিক ও ব্যক্তিগত জীবনে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার কৌশল হলো বিতর্ক। একজন স্ব-নির্ভর মানুষ হিসেবে গড়ে ওঠার অন্যতম নিয়ামক হলো বিতর্ক। বিতর্কে একে অপরের সাথে যুক্তি-তর্ক করার মাধ্যমে নেতৃত্বের গুণাবলি সৃষ্টি হয়। শিক্ষার্থীদের বিতর্ক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে মনোবল এবং আত্মশক্তি বৃদ্ধি পায়। জাতীয় সমস্যা ও সম-সাময়িক বিষয়গুলো সম্পর্কেও তারা জানতে পারে। বিতর্ক প্রতিযোগিতায় কেউ বা কোনো দল প্রকৃতপক্ষে কখনও হারে না। সু-নাগরিক হওয়ার জন্যে বিতর্ক প্রতিযোগিতা একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ১০ম পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতার আগামী দিনের পথচলা আরও সুন্দর হোক এ প্রত্যাশা করছি।



'যুক্তিতে বেঁধেছি ঘর-বিতর্কের দশ বছর' এ শ্লোগান নিয়ে শুরু হওয়া এবারের প্রতিযোগিতায় মতলব দক্ষিণ উপজেলায় প্রাইমারী স্কুল, হাই স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা থেকে ১৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করে। এ প্রতিযোগিতার সার্বিক ব্যবস্থাপনায় রয়েছে চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক ফাউন্ডেশন (সিকেডিএফ) ও চাঁদপুর বিতর্ক একাডেমি। সকাল ৮টায় উপজেলা পরিষদ থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি শুরু হয়ে মতলব শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সমাপ্ত হয়।



উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠের বার্তা সম্পাদক এএইচএম আহসান উল্লাহর সভাপতিত্বে ও সিকেডিএফের সভাপতি ও চাঁদপুর কণ্ঠের প্রধান সম্পাদক রোটাঃ কাজী শাহাদাতের সঞ্চালনায় উদ্বোধন ঘোষণাসহ বক্তব্য রাখেন মতলব সূর্যমুখী কচি-কাঁচার মেলার পরিচালক মাকসুদুল হক বাবলু। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মতলব দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা রোটাঃ ডাঃ একেএম মাহাবুবুর রহমান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক ফাউন্ডেশন মতলব শাখার সাধারণ সম্পাদক ও চাঁদপুর কণ্ঠ অনলাইন সম্পাদনা পরিষদের সহ-সম্পাদক রোটাঃ রেদওয়ান আহমেদ জাকির।



উদ্বোধীন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রোটারী ক্লাব অব মতলবের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক রোটাঃ মোফাজ্জল হোসেন, কচি-কাঁচা প্রি-ক্যাডেট স্কুলের প্রধান শিক্ষক ফারুক আহমেদ বাদল, উপজেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সহ-সভাপতি উত্তম কুমার ঘোষ, সাপ্তাহিক দিবাকণ্ঠ ও মতলবের জনপদের সম্পাদক ও প্রকাশক শ্যামল চন্দ্র দাস, দৈনিক চাঁদপুর প্রবাহের নিজস্ব প্রতিবেদক গোলাম হায়দার মোল্লা, দেশ সেরা শিক্ষিকা ও ১১১নং মতলব মডেল সপ্রাবির প্রধান শিক্ষিকা উম্মে কুলসুম শেফা ও সহকারী শিক্ষিকা নুরুন নাহার আক্তার বকুল, এবি সিদ্দিক ফাউন্ডেশনের অর্থ সম্পাদক জাবেদ হাসান সিদ্দিক, সিকেডিএফ মতলব দক্ষিণ উপজেলার সহ-সভাপতি মোঃ আরিফ বিল্লাহ, দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষক মোঃ ওয়ালী উল্লাহ, মোঃ ইয়াছিন, রিনা রাণী বণিক, আব্দুল আউয়াল, শরীফুল ইসলাম, মোঃ আনোয়ার হোসেন, মাইনুল ইসলাম টিপু, কাজী মোঃ শহীদ উল্লাহ, শিপন শেখ, আনোয়ার হোসেন, জাকির হোসেন, মোঃ আলমগীর, দৈনিক চাঁদপুর জমিনের মতলব প্রতিনিধি সফিকুল ইসলাম রিংকু প্রমুখ।



১৬টি দলের মধ্য থেকে মতলব দক্ষিণ উপজেলার বিজয়ী ৮টি দল হচ্ছে : কলেজ পর্যায়ে রয়মনেন নেছা মহিলা ডিগ্রি কলেজ ও নারায়ণপুর ডিগ্রি কলেজ। হাই স্কুল পর্যায়ে মতলবগঞ্জ জে.বি. পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, লিটল স্কলার্স একাডেমি, কচি-কাঁচা প্রি-ক্যাডেট স্কুল, নারায়ণপুর পপুলার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, নওগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় এবং প্রাথমিক পর্যায়ে কচি-কাঁচা প্রি-ক্যাডেট স্কুল।



৮টি বিতর্ক শেষে বেলা ১টায় আয়োজন করা হয় পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের। সিকেডিএফ মতলব দক্ষিণ উপজেলা শাখার সভাপতি অধ্যাপিকা আইনুন্নাহার কাদ্রীর সভাপতিত্বে এবং সিকেডিএফের সভাপতি ও চাঁদপুর কণ্ঠের প্রধান সম্পাদক রোটাঃ কাজী শাহাদাতের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুর রহিম খান।



তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, বিতর্ক মানুষকে যুক্তিশীল করে গড়ে তোলে। বিতর্ক মানুষের মননে ধরে রাখতে হবে। ভবিষ্যতে একজন ভালো মানুষ হওয়ার জন্যে বিতর্ক অত্যন্ত সহায়ক। যারা বিতর্কে অংশগ্রহণ করে তারা কখনও হারে না। প্রত্যেক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ সহকারী শিক্ষক যেন ছাত্র-ছাত্রীদের বিতর্কে সহায়তা করে। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা ফারহানা আক্তার রুমা, চাঁদপুর বিতর্ক একাডেমির উপদেষ্টা মাহমুদা খানম, বঙ্গবন্ধু লেখক পরিষদ চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি সামীম আহমেদ খান, সিকেডিএফ-এর সহ-সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠের বার্তা সম্পাদক এএইচএম আহসান উল্লাহ, রোটারী ক্লাব অব মতলবের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন, কচি-কাঁচা প্রি-ক্যাডেট স্কুলের প্রধান শিক্ষক ফারুক আহমেদ বাদল, সাপ্তাহিক দিবাকণ্ঠ ও মতলবের জনপদের সম্পাদক শ্যামল চন্দ্র দাস, মাইটিভির মতলব দক্ষিণ প্রতিনিধি রোকনুজ্জামান রোকন, দৈনিক চাঁদপুর প্রবাহের নিজস্ব প্রতিবেদক গোলাম হায়দার মোল্লা, দেশ সেরা সহকারী শিক্ষিকা নুরুন নাহার আক্তার বকুল প্রমুখ। ফলাফল ঘোষণা করেন সিকেডিএফের সাধারণ সম্পাদক রাজন চন্দ্র দে। মডারেটরের দায়িত্ব পালন করেন সিকেডিএফের কার্যকরী সদস্য মোঃ আবু সালেহ, বির্তাকিক আব্দুল্লাহ আল নোমান ও মোঃ রোবেল হোসেন। বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন বঙ্গবন্ধু লেখক পরিষদের চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি সামীম আহমেদ খান, সিকেডিএফএর সহ-সভাপতি এএইচএম আহছান উল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক রাজন চন্দ্র দে।



মতলব দক্ষিণ উপজেলায় কলেজ পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ বক্তা নির্বাচিত হন : রয়মনেন নেছা মহিলা ডিগ্রি কলেজের দল প্রধান আফসানা মিমি ও নারায়ণপুর ডিগ্রি কলেজের ২য় বক্তা সানজিদা আক্তার, স্কুল পর্যায়ে মতলবগঞ্জ জেবি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ২য় বক্তা মোঃ খায়রুল ইসলাম নাবিল, লিটল স্কলার্স একাডেমির দলপ্রধান তাফফিয়া হামিদ হাবিবা, কচি-কাঁচা প্রি-ক্যাডেট স্কুলের দলপ্রধান শাফরিদা সুলতানা সুখী, নারায়ণপুর পপুলার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দলপ্রধান শামীমা আক্তার সাথী, নওগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের দল প্রধান মুশফিকা মীম, প্রাথমিক পর্যায়ে-কচি-কাঁচা প্রি-ক্যাডেট স্কুলের ২য় বক্তা প্রাপ্তি রায় চৌধুরী।



পরবর্তীতে বিজয়ী দলগুলো জেলা সদরে গিয়ে অন্যান্য উপজেলার বিজয়ী দলগুলোর সাথে 'অভিযাত্রা' পর্বে অংশ নেবে।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪১০৩২
পুরোন সংখ্যা