চাঁদপুর। মঙ্গলবার ২৪ এপ্রিল ২০১৮। ১১ বৈশাখ ১৪২৫। ৭ শাবান ১৪৩৯

বিজ্ঞাপন দিন

jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৭- সূরা সাফ্ফাত

১৮২ আয়াত, ৫ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৬১। এমন সাফল্যের জন্যে পরিশ্রমীদের পরিশ্রম করা উচিত।

৬২। এই কি উত্তম আপ্যায়ন, না যাক্কুম বৃক্ষ?

৬৩। আমি যালেমদের  জন্যে একে বিপদ করেছি।

৬৪। এটি একটি বৃক্ষ, যা উদগত হয় জাহান্নামের মূলে।

৬৫। এর গুচ্ছ শয়তানের মস্তকের মত।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


বুদ্ধিজীবীরাই দেশের সম্পদ, তারাই দেশের সম্পদ তুলে ধরে।            


-লংফেলো


পিতার আনন্দে খোদার আনন্দ এবং পিতার অসন্তুষ্টিতে খোদার অসন্তুষ্টি।


ফটো গ্যালারি
মতলব উত্তরের ধনাগোদা-তালতলী উচ্চ বিদ্যালয়ে শতাধিক শিক্ষার্থী অসুস্থ হাসপাতালে ভর্তি অর্ধশত
বাবুল মুফতী
২৪ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


মতলব উত্তর উপজেলার বাগানবাড়ি ইউনিয়নের ধনাগোদা-তালতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে যায়। পরে তাদেরকে মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং বিভিন্ন হাসপাতাল ও স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছে ৪১ জন। উন্নত চিকিৎসার জন্য ৩ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।



ঘটনার সংবাদ পেয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অসুস্থ শিক্ষার্থীদের দেখতে যান ও ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনজুর আহমদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম সরকার ইমন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নিলুফা আক্তার, থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আনোয়ারুল হক কামাল, ওসি (তদন্ত) মোঃ আলমগীর হোসেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কাজী আঃ ওয়াহিদ মোঃ সালেহ, সহকারী শিক্ষা অফিসার আশরাফুল আলম, মোহনপুর ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল হক চৌধুরী বাবুল, বাগানবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা নান্নু মিয়া, ফতেপুর পূর্ব ইউপি চেয়ারম্যান আজমল হোসেন চৌধুরী প্রমুখ।



ধনাগোদা-তালতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ ফারুকুল ইসলাম জানান, জাতীয় সংগীত পরিবেশনের সময় ৬ষ্ঠ শ্রেণির একজন ছাত্রী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাৎক্ষণিক তাকে শ্রেণি কক্ষে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর ক্লাস চলাকালীন আরো ২ জন অসুস্থ হয়। বেলা ১১টার পর পর্যায়ক্রমে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণির প্রায় শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়লে বিষয়টি ইউএনওকে অবহিত করে স্কুল ছুটি দিয়ে দেই। স্কুল ছুটির পর কেউ পথিমধ্যে আবার কেউ বা বাড়িতে যাওয়ার পরও অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন যানবাহনযোগে অসুস্থদের মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাই। এছাড়াও পারিবারিকভাবে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য অভিভাবকরা নিয়ে যান বলে আমি জানতে পারি।



মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রোগীরা হলো : আবিরা সুলতানা (১৪), সুমাইয়া আক্তার (১৫), আয়েশা (১৪), উর্মি আক্তার (১২), মিতু (১৪), নাজমা (১৪), তৃপ্তি (১২), সাথী (১৬), মনিরা (১৬), বৃষ্টি (১৫), শিখা (১৩), মনিরা (১৬), হাওয়া (১৭) খাদিজা (১৭), সুর্বণা (১২), সানজিদা (১৬), সামিয়া (১৩), ফাতেমা (১৬), রাফিয়া (১২), তামান্না (১৪), মিম (১৪), খাদিজা (১৮), লিমা (১৫), সামিয়া (১৩), সাথী (১৬), মারিয়া (১৪), মাজহারুল (১২), হীরামনি (১২), মারিয়া (১৫), মুনি্ন (১৫), পার্বতী (১৬), জিহাদ (১৪), নিপা (১৩), মাহমুদা (১৬), ইমন (১২), রূপালী (১৬) ও সুমাইয়া (১৪)।



মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ শংকর কুমার সাহা বলেন, অসুস্থ ৩৫ জনকে চিকিৎসা দেয়ার পর সুস্থ হয়ে ওঠে। গুরুতর অসুস্থ ৩ জনকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়। এছাড়াও আরো ৩ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, কোনো রোগ চিহ্নিত করা যায়নি। তবে সন্দেহজনক গণমনস্তাত্তি্বক রোগ (এক জনের দেখাদেখি আরেকজন আতঙ্কিত হয়ে যাওয়া) বলে ধারণা করা যাচ্ছে।



আহতদের চিকিৎসা দেন মতলব দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ একেএম মাহবুবুর রহমান, ডাঃ ইসমাইল হোসেন, ডাঃ মেহেদী হাসান, ডাঃ আল-আমিন, ডাঃ হাসনিন জাহান, ডাঃ নিগার সুলতানা, ডাঃ সৌরভ।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৪০২৩
পুরোন সংখ্যা