চাঁদপুর। বুধবার ১৩ জুন ২০১৮। ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫। ২৭ রমজান ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • ফরিদগঞ্জের চান্দ্রার খাড়খাদিয়ায় ট্রাক চাপায় সাইফুল ইসলাম (১২) নামের ৭ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী ও সদর উপজেলার দাসাদি এলাকায় পিকআপ ভ্যান চাপায় কৃষক ফেরদৌস খান নিহত,বিল্লাল নামে অপর এক কৃষক আহত হয়েছে।
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৮-সূরা ছোয়াদ

৮৮ আয়াত, ৫ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৬৬। তিনি আসমান-যমীন ও এতদুভয়ের মধ্যবর্তী সব কিছুর পালনকর্তা, পরাক্রমশালী  মার্জনাকারী।

৬৭। বলুন, এটি এক মহাসংবাদ।

৬৮। যা থেকে তোমরা মুখ ফিরিয়ে নিয়েছ।

৬৯। ঊর্ধ্ব জগৎ সম্পর্কে আমার কোন জ্ঞান ছিল না যখন ফেরেশতারা কথাবার্তা বলছিল।  

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


দুঃখীদের মনের জোর কম থাকে

-রবার্ট হেরিক


নিঃসন্দেহে তিন প্রকার লোকের দোয়া কবুল হয়- পিতার দোয়া, মোসাফিরের দোয়া এবং অত্যাচারিত ব্যক্তির দোয়া।


ফটো গ্যালারি
শাহরাস্তি উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় মনোনায়ন প্রত্যাশী মোঃ হুমায়ুন কবির মজুমদার
মোঃ ফারুক চৌধুরী
১৩ জুন, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


শাহরাস্তি উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় মনোনায়ন প্রত্যাশী মোঃ হুমায়ুন কবির মজুমদার। তাঁর জন্ম ১৯৫৪ সালের ২০ নভেম্বর এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে। তাঁর পিতা-মৃত আব্দুল মতিন মজুমদার, মাতা-মৃত জোহরা খাতুন। স্থায়ী ঠিকানা-গ্রাম : সুরসই (মজুমদার বাড়ি), ডাকঘর : ওয়ারুক বাজার, উপজেলা : শাহরাস্তি, জেলা : চাঁদপুর। ছাত্রজীবন থেকে তিনি একজন আওয়ামী পরিবারের সদস্য। ছাত্রলীগ পরবর্তী বৃহত্তর টামটা ইউনিয়নে সাংগঠনিকভাবে আওয়ামী লীগের ভিত মজবুতকরণে তাঁর অসামান্য অবদান রয়েছে। তাঁর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বৃহত্তর টামটা ইউনিয়নকে বলা হতো 'মুজিব নগর'। আজও ওই ইউনিয়নের 'মুজিব নগর' নামের খ্যাতি রয়েছে। তাঁর শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচএসসি পাস। পারিবারিক জীবনে তিনি এক ছেলে ও এক মেয়ের জনক। তাঁর ছেলের নাম মোঃ আলমগীর কবির মজুমদার (পলাশ), মেয়ের নাম মোসাঃ শারমিন কবির মজুমদার। বৃহত্তর টামটা ইউপির টানা ৩১ বছর যাবৎ চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করে রেকর্ড গড়েছেন।



টামটা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের কিংবদন্তিতুল্য পুরুষ মোঃ হুমায়ুন কবির মজুমদারের নিকট তাঁর রাজনৈতিক ও সামাজিক অবস্থান সর্ম্পকে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি ১৯৬৮ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগে যোগ দেই। ১৯৬৯ সালে গণঅভ্যুত্থানে অংশগ্রহণ করি। ১৯৭০ সালে জাতীয় নির্বাচনী প্রচারে অংশগ্রহণ করি। ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে মুক্তিযুদ্ধে বিএলএফ সংগঠনের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করি। ১৯৭৫ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের তৎকালীন হাজীগঞ্জ থানা শাখার সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করি। পরবর্তীতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ হাজীগঞ্জ থানা এবং শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহিত বিভিন্ন পর্যায়ে কাজ করি। ১৯৯২ সালে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটিতে সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হই। ১৯৯৭ সালে শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক নিযুক্ত হই। ২০০৫ সালে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পদে নিযুক্ত হই এবং ২০১৭ সালে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য হবার সুযাগ লাভ করি। ১৯৭৮ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচারের কাজ করি। ১৯৮৮ সালে ইউপি নির্বাচনে বৃহত্তর টামটা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচত হই, একই পদে নির্বাচনের মাধ্যমে ২০১১ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করি। ২০১১ সালে বৃহত্তর টামটা ইউনিয়ন বিভক্ত হওয়ার পরে টামটা উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হই। ২০১৪ সালে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পক্ষে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করি, দলীয় দ্বন্দ্বের কারণে নির্বাচনে অকৃতকার্য হই। বর্তমানে দুটি উচ্চ বিদ্যালয়, একটি আলিম মাদ্রাসার সভাপতি, একটি স্কুল এন্ড কলেজের সদস্য, একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সভাপতির দায়িত্ব পালন করছি।



হুমায়ুন কবির মজুমদার চাঁদপুর জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্য। তাঁর রক্তের প্রতিটি অণু-পরমাণুতে আছে রাজনীতির সাথে সামাজিক কাজকর্মের সীমাহীন তাগিদ। সেজন্যে তিনি বিভিন্ন ক্লাব, সামাজিক সংগঠনের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া শহীদ স্মৃতি পাঠাগারের সভাপতির দায়িত্বও পালন করছেন। আগামী উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে চেযারম্যান পদে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীক প্রত্যাশী এবং শাহরাস্তি উপজেলার সর্বস্তরের জনগণের সহযোগিতা ও দোয়া প্রত্যাশী।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
১১৮৪৩০
পুরোন সংখ্যা