চাঁদপুর । বৃহস্পতিবার ১২ জুলাই ২০১৮ । ২৮ আষাঢ় ১৪২৫ । ২৭ শাওয়াল ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • কচুয়ায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছে জেলা দায়রা জজ আদালত
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৯-সূরা আয্-যুমার

৭৫ আয়াত, ৮ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৪২। আল্লাহ মানুষের প্রাণ হরণ করেন তার মৃত্যুর সময়, আর যে মরে না, তার নিদ্রাকালে। অতঃপর যার মৃত্যু অবধারিত করেন, তার প্রাণ ছাড়েন না এবং অন্যান্যের ছেড়ে দেন এক নির্দিষ্ট সময়ের জন্যে। নিশ্চয় এতে চিন্তাশীল লোকদের জন্যে নিদর্শনাবলি রয়েছে।

৪৩। তারা কি আল্লাহ ব্যতীত সুপারিশকারী গ্রহণ করেছে? বলুন, তাদের কোন এখতিয়ার না থাকলেও এবং তারা না বুঝলেও?

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন

 


খাবার টেবিলে বসে যারা কথা বলে বেশি, তারা বেশি খেতে পারে না।  


-ও ডাব্লিউ ছোলম।


মানবতার সেবায় যিনি নিজের জীবন নিঃশেষে বিলিয়ে দিতে পারেন, তিনিই মহামানব।





                           


ফটো গ্যালারি
অধ্যক্ষ ফেন্সি হত্যাকান্ড
সতিন জুলেখার ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর
স্টাফ রিপোর্টার
১২ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর শহরের ষোলঘর পাকা মসজিদ এলাকার আলোচিত অধ্যক্ষ শাহিন সুলতানা ফেন্সির হত্যাকা-ে আটক সন্দেহভাজন অ্যাডঃ মোঃ জহিরুল ইসলামের ২য় স্ত্রী জুলেখা বেগমের ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।



সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ কায়সার মোশাররফ ইউসুফের আদালতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ইন্সপেক্টর মোঃ মহিউদ্দিন ও জেলা সিআইডি পুলিশ যৌথভাবে ৩ দিন পূর্বে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। গতকাল বুধবার রিমান্ড শুনানি শেষে বিজ্ঞ বিচারক জুলেখা বেগমের ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।



গতকাল সকাল ১০টায় চাঁদপুর জেলা কারাগার থেকে পুলিশ ও কারারক্ষীদের পাহারায় ফেন্সি হত্যাকা-ের সন্দেহভাজন আসামী জুলেখা বেগমকে আদালতে নিয়ে আসা হয়। এ সময় জুলেখার গর্ভজাত শিশু সন্তানরা পরিবারের অন্য লোকজনের সাথে আদালতে উপস্থিত ছিলো। জুলেখা বেগম কান্নাজড়িতভাবে তার শিশু কন্যাটিকে নিয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন। রিমান্ডের শুনানি শেষে জুলেখা বেগমকে পুনরায় আদালত থেকে হাজতে নিয়ে যাওয়ার সময় তিনি আবারও শিশু সন্তানকে কোলে নিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।



উল্লেখ্য, গত ৪ জুন ষোলঘর পাকা মসজিদ এলাকার অ্যাডঃ জহিরুল ইসলামের বাসায় তার প্রথম স্ত্রী ফরিদগঞ্জ গল্লাক আদর্শ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ শাহিন সুলতানা ফেন্সি নির্মমভাবে খুন হন। খুনের ঘটনার পর পুলিশ বাসা থেকে প্রথমে অ্যাডঃ জহিরুল ইসলামকে আটক করে। পরে তার দ্বিতীয় স্ত্রী জুলেখা বেগমকে শহরের নাজিরপাড়া থেকে আটক করা হয়। এই ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে জুলেখা বেগমের ভগি্নপতি ওয়ায়েছকুরুনিকে আটক করা হয়।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
১৩৬৩৯৫
পুরোন সংখ্যা