চাঁদপুর । বৃহস্পতিবার ১২ জুলাই ২০১৮ । ২৮ আষাঢ় ১৪২৫ । ২৭ শাওয়াল ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৯-সূরা আয্-যুমার

৭৫ আয়াত, ৮ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৪২। আল্লাহ মানুষের প্রাণ হরণ করেন তার মৃত্যুর সময়, আর যে মরে না, তার নিদ্রাকালে। অতঃপর যার মৃত্যু অবধারিত করেন, তার প্রাণ ছাড়েন না এবং অন্যান্যের ছেড়ে দেন এক নির্দিষ্ট সময়ের জন্যে। নিশ্চয় এতে চিন্তাশীল লোকদের জন্যে নিদর্শনাবলি রয়েছে।

৪৩। তারা কি আল্লাহ ব্যতীত সুপারিশকারী গ্রহণ করেছে? বলুন, তাদের কোন এখতিয়ার না থাকলেও এবং তারা না বুঝলেও?

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন

 


খাবার টেবিলে বসে যারা কথা বলে বেশি, তারা বেশি খেতে পারে না।  


-ও ডাব্লিউ ছোলম।


মানবতার সেবায় যিনি নিজের জীবন নিঃশেষে বিলিয়ে দিতে পারেন, তিনিই মহামানব।





                           


ফটো গ্যালারি
বেলজিয়ামের লক্ষ্য এখন বিশ্বকাপে তৃতীয় হওয়া
চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম
১২ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

বিশ্বকাপের শুরু থেকেই ফুটবলভক্তদের মাঝে ভালো খেলা উপহার দিয়েছে তরুণ ফুটবলারদের নিয়ে গড়া দল বেলজিয়াম। রাশিয়া বিশ্বকাপের প্রথম সেমি-ফাইনালে তারা ১ গোলে হেরে যায় ফ্রান্সের কাছে। আর বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনাল থেকে ছিটকে পড়ায় ভীষণ হতাশ দলকে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচের জন্যে চাঙ্গা করার চেষ্টা চালাচ্ছেন বেলজিয়ামের কোচ রবের্তো মার্তিনেস। সেন্ট পিটার্সবার্গ স্টেডিয়ামে গত মঙ্গলবার রাশিয়া বিশ্বকাপের প্রথম সেমি-ফাইনালে ফ্রান্সের কাছে ১-০ গোলে হারে বেলজিয়াম। ৫১তম মিনিটে অঁতোয়ান গ্রিজমানের কর্নারে লাফিয়ে উঠে করা সামুয়েল উমতিতির গোলটিই মার্তিনেসের দলের বিদায় ঘণ্টা বাজিয়ে দেয়। সেট পিস থেকে গোলে হেরে যাওয়ায় বেলজিয়াম কোচের হতাশা আরও বেশি।

কোচ খেলা শেষে তার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, আমরা তাদের প্রতি আক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করেছিলাম। আমরাও বল পেয়েছিলাম কিন্তু ফ্রান্স যেভাবে রক্ষণ সামলেছে সেজন্যে তাদের কৃতিত্ব দিতে হবে এবং আমরা গোলমুখে একটু জাদুর ছোঁয়া খুঁজে পাইনি। আমি চাই না আমার কোনো খেলোয়াড়ই হতাশ হয়ে পড়ুক। কিন্তু এই আবেগ নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন। ছেলেরা হতাশ কেননা তারা সেমি-ফাইনালে হেরেছে এবং এখন ইতিবাচক মানসিকতা নিয়ে আরেকটা ম্যাচ খেলা তাদের জন্যে কঠিন। হতাশা ভুলে দলকে তৃতীয় স্থান নিয়ে রাশিয়ার আসর শেষ করার তাগিদ দিচ্ছেন মার্তিনেস।

"আমাদের পুনরায় একত্রিত হয়ে এবং ধাক্কা কাটিয়ে উঠে সুযোগটা দেখা দরকার। তৃতীয় হয়ে বিশ্বকাপ শেষ করতে যাওয়ার সুযোগও সচরাচর আসে না। বেলজিয়ান ফুটবলে এটা ১৯৮৬ সালে একবারই ঘটেছিল, যখন আমরা চতুর্থ হয়ে শেষ করেছিলাম।"

আজকের পাঠকসংখ্যা
৭৬৯৩৬০
পুরোন সংখ্যা