চাঁদপুর । বুধবার ১৮ জুলাই ২০১৮ । ৩ শ্রাবণ ১৪২৫ । ৪ জিলকদ ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৯-সূরা আয্-যুমার

৭৫ আয়াত, ৮ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৫৩। বলুন, হে আমার বান্দাগণ যারা নিজেদের উপর যুলুম করেছে তোমরা আল্লাহর রহমত থেকে নিরাশ হয়ো না। নিশ্চয় আল্লাহ সমস্ত গুনাহ মাফ করেন। তিনি ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু।

৫৪। তোমরা তোমাদের পালনকর্তার অভিমুখী হও এবং তার আজ্ঞাবহ হও তোমাদের কাছে আযাব আসার পূর্বে। এরপর তোমরা সাহায্যপ্রাপ্ত হবে না;  

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


প্রত্যেক মানুষের একটা দুর্বল দিক থাকে, জেনে শুনে সেখানে আঘাত দেওয়া উচিত নয়।

 -জন রে।


নামাজ বেহেশতের চাবি এবং অজু নামাজের চাবি।



 


ফটো গ্যালারি
হাইমচরে সাব রেজিস্ট্রার অফিসে সপ্তাহে কার্যদিবস একদিন হওয়ায় সংশ্লিষ্ট সকলে দুর্ভোগের শিকার
হাইমচর প্রতিনিধি
১৮ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


হাইমচরের সাব রেজিস্ট্রার অফিসে সপ্তাহে কার্যদিবস একদিন হওয়ায় বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আসা দলিল দাতা ও গ্রহীতারা সময় স্বল্পতার কারণে দলিল রেজিস্ট্রী করে বাড়ি ফেরায় বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন। প্রতিনিয়ত দলিলদাতা-গ্রহীতারা অফিসে আসলেও সাব রেজিস্ট্রার না থাকায় চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। ইতিপূর্বে হাইমচর সাব রেজিস্ট্রার অফিসে মোঃ মফিজুল ইসলাম অতিরিক্ত দায়িত্বে সপ্তাহে দুইদিন থাকাকালীন চাপ কিছুটা কমলেও বর্তমানে একদিন হওয়াতে তা সামলিয়ে উঠা সম্ভব হচ্ছে না।



সরজমিনে গিয়ে দলিলদাতা-গ্রহীতাদের কাছে জানতে চাইলে তারা জানান, সাব রেজিস্ট্রার প্রতি বুধবার সকাল ১১টায় আসলে তাড়াহুড়া করে ২টার পূর্বে চলে যান। তাদের দাবি, উক্ত অফিসে নিয়মিত একজন সাব রেজিস্ট্রার দেয়ার জন্যে। গত ১২ জুলাই বৃহস্পতিবার ১১টায় উক্ত অফিসে গিয়ে বড় আকারের তালা ঝুলানো দেখতে পাওয়া যায়।



এ ব্যাপারে জেলা রেজিস্ট্রার অফিসের অফিস সহকারী মোস্তফা জানান, হাইমচরে প্রতি বুধবারে একদিন সাব রেজিস্ট্রার তার কার্যক্রম পরিচালনা করেন। আমাদের অফিসারের অভাবের কারণে ফরিদগঞ্জের সাব রেজিস্ট্রার অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে হাইমচরে কর্মরত আছেন। তবে নতুন অফিসার নিয়োগ হলে সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। আপনারা আপনাদের উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও নির্বাহী অফিসারের কাছে আবেদন করেন। তাহলে কিছুটা হলেও সমাধানের পথ খুঁজে পাবেন।



এ ব্যাপারে জেলা রেজিস্ট্রার সৈয়দা রৌশনারা মুঠোফোনে জানান, সমস্যার যে কথা বলেছেন অচিরেই তা সমাধান করা হবে। এলাকাবাসী হাইমচরে সাব রেজিস্ট্রার অফিসে একজন সাব রেজিস্ট্রার পরিপূর্ণভাবে নিয়োগ দিয়ে সংশ্লিষ্টদের দুর্ভোগ থেকে পরিত্রাণের জন্যে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৮১১৫৩
পুরোন সংখ্যা