চাঁদপুর । বুধবার ১৮ জুলাই ২০১৮ । ৩ শ্রাবণ ১৪২৫ । ৪ জিলকদ ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৯-সূরা আয্-যুমার

৭৫ আয়াত, ৮ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৫৩। বলুন, হে আমার বান্দাগণ যারা নিজেদের উপর যুলুম করেছে তোমরা আল্লাহর রহমত থেকে নিরাশ হয়ো না। নিশ্চয় আল্লাহ সমস্ত গুনাহ মাফ করেন। তিনি ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু।

৫৪। তোমরা তোমাদের পালনকর্তার অভিমুখী হও এবং তার আজ্ঞাবহ হও তোমাদের কাছে আযাব আসার পূর্বে। এরপর তোমরা সাহায্যপ্রাপ্ত হবে না;  

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


প্রত্যেক মানুষের একটা দুর্বল দিক থাকে, জেনে শুনে সেখানে আঘাত দেওয়া উচিত নয়।

 -জন রে।


নামাজ বেহেশতের চাবি এবং অজু নামাজের চাবি।



 


ফটো গ্যালারি
প্রতারণার অভিযোগে ভেদেরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের ছেলে আটক
স্টাফ রিপোর্টার
১৮ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


জমি বিক্রির নামে প্রতারণা করে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ভেদেরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন মাঝির ছেলে সুমন মাঝিকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল ১৭ জুলাই মঙ্গলবার বিকেলে পুরাণবাজার নিতাইগঞ্জ থেকে স্থানীয় লোকজন তাকে আটক করে পুরাণবাজার ফাঁড়ি পুলিশের হাতে সোপর্দ করে। তার বিরুদ্ধে পুলিশ সুপার বরাবর প্রতারণার অভিযোগ এবং চাঁদপুর সদর আদালতে নারী নির্যাতন মামলা রয়েছে।



পুরাণবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইন্সপেক্টর আঃ রশীদ জানান, আটক সুমন একজন প্রতারক। তার বিরুদ্ধে জমি বিক্রির নামে টাকা আত্মসাৎ, প্রতারণা, নারী নির্যাতন ও মাদকাসক্তের অভিযোগ রয়েছে। লোকজন তাকে ধরে আমাদের কাছে সোপর্দ করেছে। আমরা তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবো।



এদিকে শারমিন বেগম (২৪) জানান, তার স্বামী আব্বাস মাঝি কুয়েত প্রবাসী। চাঁদপুরের তরপুরচ-ীতে ৫ শতাংশ জমি বিক্রি করার নামে ২০১৩ সালে আনোয়ার চেয়ারম্যানের ছেলে সুমন মাঝির সাথে বায়না করা হয়। ওই সময়ে এককালিন জমি ক্রয় বাবদ আমার স্বামী সুমন মাঝিকে ৭ লাখ টাকা প্রদান করেছে। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে আরো ২ লাখ টাকা অলিখিতভাবে নিয়েছে। কিন্তু অদ্য পর্যন্ত সে জমি বুঝিয়ে দেয়নি। এমনকি টাকাও ফেরৎ দিচ্ছে না। বর্তমানে টাকা ফেরৎ চাইলে উল্টো বিভিন্নভাবে হুকমি-ধমকি দিয়ে থাকে।



অপর একটি সূত্রে জানা যায়, সুমনের স্ত্রী লায়লা চোকদার স্বপ্না (৩০) বাদী হয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে চাঁদপুর সদর আদালতে নারী-নির্যাতনের মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলা এখনো আদালতে বিচারাধীন।



এলাকা সূত্রে জান াযায়, সুমন মাঝি জমির দালালী করতে গিয়ে বিভিন্ন মানুষের সাথে প্রতারণা করে টাকা আত্মসাৎ করে থাকে। সে নিজে মাদকাসক্ত এবং গোপনে মাদক বিক্রি করে বলেও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। চরাঞ্চলের নিরীহ মানুষ সুমন মাঝির নানা অপকর্মে অতিষ্ঠ। তারা এর সুবিচার চায়।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৪৯৬১৪
পুরোন সংখ্যা