চাঁদপুর । বৃহস্পতিবার ১৯ জুলাই ২০১৮ । ৪ শ্রাবণ ১৪২৫ । ৫ জিলকদ ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৯-সূরা আয্-যুমার

৭৫ আয়াত, ৮ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৫৫। তোমাদের প্রতি অবতীর্ণ উত্তম বিষয়ের অনুসরণ কর তোমাদের কাছে অতর্কিত ও অজ্ঞাতসারে আযাব আসার পূর্বে।

৫৬। যাতে কেউ না বলে, হায় হায়, আল্লাহ সকাশে আমি কর্তব্যে অবহেলা করেছি এবং  আমি ঠাট্টা-বিদ্রুপকারীদের অন্তর্ভূক্ত ছিলাম।

৫৭। অথবা না বলে, আল্লাহ যদি আমাকে পথপ্রদর্শন করতেন, তবে অবশ্যই আমি পরহেযগারদের একজন হতাম।  

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন





 


শাসন করা তারই সাজে সোহাগ করে যে গো।

 -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।


নারী পুরুষের যমজ অর্ধাঙ্গিনী।

 


ফটো গ্যালারি
জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ আসাদুল বাকী
চাঁদপুরে চাহিদার চেয়ে ২০ হাজার টন বেশি মৎস্য উৎপাদন হচ্ছে
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট
১৯ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


১৮ থেকে ২৪ জুলাই সারাদেশে একযোগে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৮ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এবার এই মৎস্য সপ্তাহের প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে 'স্বয়ংসম্পূর্ণ মাছে দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ'। চাঁদপুর জেলায় এ মৎস্য সপ্তাহ সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে। এছাড়া আজ র‌্যালি হবে এবং ২২, ২৩ ও ২৪ জুলাই মৎস্য মেলা অনুষ্ঠিত হবে।



চাঁদপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়ে গতকাল বুধবার সকালে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ আসাদুল বাকী মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে গৃহীত কর্মসূচি উপস্থাপন করেন এবং চাঁদপুরের মৎস্য সম্পদের অবস্থা সম্পর্কে ধারণা প্রদান করেন। তিনি বলেন, চাঁদপুরকে মাছের সূতিকাগার বলা যায়। দেশীয় সকল ধরনের মাছ চাঁদপুরে উৎপাদন হয়। তিনি জানান, চাঁদপুর জেলায় মাছের যে পরিমাণ চাহিদা রয়েছে, তার চেয়ে ২০ হাজার টন বেশি মৎস্য চাঁদপুরে উৎপাদন হচ্ছে। ইলিশ সংরক্ষণের বিষয়ে তিনি বলেন, ইলিশ রক্ষায় চাঁদপুরের সাংবাদিকদের বেশ অবদান রয়েছে। সাংবাদিকরা জাটকা মৌসুম এবং মা ইলিশ সংরক্ষণের সময় আমাদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করে থাকেন। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ফরিদগঞ্জে মাছ চাষে বৈপ্লবিক সাধন হয়েছে। কিন্তু এ মাছ আমরা চাঁদপুর জেলার মানুষ পাচ্ছি না। এ মাছ চলে যায় ফেনী, লক্ষ্মীপুর, রায়পুর, রামগঞ্জসহ আশপাশের জেলায়। সেখানে দাম ভালো পাওয়ায় মৎস্যচাষীরা সেসব এলাকায় নিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া দেশিমাছ উৎপাদন ও সংরক্ষণে খাঁচা একটি বিরাট উপকরণ বলে তিনি জানান। খাঁচায় মাছ চাষ যেখানে হয় সেখানে খাঁচার আশপাশে প্রচুর ছোট দেশীয় মাছ খাবার খেতে চলে আসে। এ সুবাদে দেশীয় মাছের উৎপাদন বাড়ে। এ মৎস্য সপ্তাহ সফলভাবে সম্পন্ন করতে তিনি সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেন।



অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের মধ্য থেকে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ইকরাম চৌধুরী, শাহ মোহাম্মদ মাকসুদুল আলম, বর্তমান সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক মির্জা জাকির, সাংবাদিক পার্থনাথ চক্রবর্তী, আলম পলাশ, এএইচএম আহসান উল্লাহ, রিয়াদ ফেরদৌস, মুনাওয়ার কানন, কেএম মাসুদ, মানিক দাস, তালহা জুবায়ের ও মোঃ আলমগীর হোসেন। এছাড়া স্বাগত বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা সিনিয়র সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম। অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় ছিলেন সদর উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা ফিরোজ আহমেদ মৃধা। আরো বক্তব্য রাখেন জাতীয় মৎস্যজীবী সমিতির সভাপতি আঃ মালেক দেওয়ান।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৪৮১০৬
পুরোন সংখ্যা