চাঁদপুর । শুক্রবার ২০ জুলাই ২০১৮ । ৫ শ্রাবণ ১৪২৫ । ৬ জিলকদ ১৪৩৯
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৯-সূরা আয্-যুমার

৭৫ আয়াত, ৮ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৫৮। অথবা আযাব প্রত্যক্ষ করার সময় না বলে, যদি কোনরূপে একবার ফিরে যেতে পারি, তবে আমি সৎকর্মপরায়ণ হয়ে যাব।

৫৯। হ্যাঁ, তোমার কাছে আমার নির্দেশ এসেছিল; অতঃপর তুমি তাকে মিথ্যা বলেছিলে, অহংকার করেছিলে এবং কাফেরদের অন্তর্ভুক্ত হয়ে গিয়েছিলে।

৬০। যারা আল্লাহর প্রতি মিথ্যা আরোপ করে, কেয়ামতের দিন আপনি তাদের মুখ কাল দেখবেন। অহংকারীদের আবাসস্থল জাহান্নামে নয় কি?

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন





 


প্রত্যেক মানুষেরই কিছু না কিছু মূল্য আছে।

-ডাব্লিউ এস গিলবার্ট।

                         


কবর এবং গোসলখানা ব্যতীত সমগ্র দুনিয়াই নামাজের স্থান।

 


ফটো গ্যালারি
বকুলতলায় জ্বরে আক্রান্ত হয়ে এক শিশুর অকাল মৃত্যু
বিশেষ প্রতিনিধি
২০ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

প্রচন্ড জ্বর ও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ইসরাত (৭) নামে চাঁদপুর শহরে এক শিশুর অকাল মৃত্যু হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে চাঁদপুর শহরের বকুলতলা এলাকার ইঞ্জিনিয়ারিং কলোনীতে এ মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। জানা যায়, শহরের রেলওয়ে বকুলতলা এলাকায় বসবাসরত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সুমন ভূঁইয়ার কন্যা ইসরাত আক্তার কয়েক দিন যাবৎ জ্বর ও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে পড়ে। তাকে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হয় এবং বিভিন্ন পরীক্ষ-নিরীক্ষার পর চিকনগুনিয়া ও টাইফয়েড কোনোটাই নির্ণয় করা সম্ভব হয়নি। গত বুধবার বিকেলে শিশুটির জ্বর ও ডায়রিয়ার কিছুটা উন্নতি হলে তাকে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতাল থেকে বাসায় নিয়ে আসা হয়। এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় শিশুটি পুনরায় ডায়রিয়া ও জ্বরে আক্রান্ত হয়ে অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে তাৎক্ষণিক হাসপাতালে নেয়ার পথে শিশুটি মারা যায় বলে তার পিতা সুমন ভূঁইয়া জানান। তারপরও তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। একমাত্র শিশু সন্তানকে হারিয়ে তার মা শাহানাজ আক্তার পাগলের মতো বার বার মূর্ছা যাচ্ছেন। দুপুরে বাদ জোহর শিশুকে বড় স্টেশন এলাকার মাদ্রাসা রোডস্থ রেলওয়ে কবরস্থানে জানাজার নামাজ শেষে দাফন করা হয়েছে।

আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৬৮২১৯
পুরোন সংখ্যা