চাঁদপুর । শনিবার ২১ জুলাই ২০১৮ । ৬ শ্রাবণ ১৪২৫ । ৭ জিলকদ ১৪৩৯
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৯-সূরা আয্-যুমার

৭৫ আয়াত, ৮ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৬১। আর যারা শিরক থেকে বেঁচে থাকতে, আল্লাহ তাদেরকে সাফল্যের সাথে মুক্তি দেবেন, তাদেরকে অনিষ্ট স্পর্শ করবে না এবং তারা চিন্তিতও হবে না।

৬২। আল্লাহ সর্বকিছুর স্রষ্টা এবং তিনি সবকিছুর দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

৬৩। আসমান ও জমিনের চাবি তাঁরই নিকট। যারা আল্লাহর আয়াতসমূহকে অস্বীকার করে, তারাই ক্ষতিগ্রস্ত।

৬৪। বলুন, হে মূর্খরা, তোমরা কি আমাকে আল্লাহ ব্যতীত অন্যের এবাদত করতে আদেশ করছ?

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন







                              





 


প্রকৃতি তার গোপন কথা একদিন বলবেই।

 -এমিলি ডিকের্ন্স।


যার হাত এবং জবান থেকে মানবজাতি নিরাপদ, তিনি খাঁটি মুসলমান।



 


ফটো গ্যালারি
মতলব উত্তরে গ্রাম আদালত বিষয়ক উঠোন বৈঠক
গ্রামীণ প্রান্তিক জনগোষ্ঠির কাছে গ্রাম আদালতের বিচারিক সেবার বার্তা পৌঁছাতে হবে
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তার গ্রামের
২১ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে গ্রাম আদালত সম্পর্কে ব্যাপক জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে উঠোন বৈঠকের আয়োজন করা হয়। বৈঠকটি মতলব উত্তর উপজেলার সাদুল্লাপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মিয়াজী বাড়িতে অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ সরকার, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং ইউএনডিপির আর্থিক সহায়তায় পরিচালিত বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্প-এর সহযোগিতায় উঠোন বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। সাদুল্লাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান লোকমান হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তার। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন মতলব উত্তর উপজেলায় কর্মরত গ্রাম আদালত প্রকল্পের উপজেলা সমন্বয়কারী মোঃ সগীর আহম্মেদ। এতে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের সকল ওয়ার্ড মেম্বার, এলাকার শিক্ষক, মুক্তিযোদ্ধা ও বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার লোকজনসহ প্রায় ২৫০ জন অংশগ্রহণ করেন। উঠোন বৈঠকটি এক পর্যায়ে সমাবেশে রূপ নেয়। বৈঠকটি আয়োজনের পেছনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ব্যক্তিগত উৎসাহ ও উদ্দীপনা ছিলো ব্যাপক। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তার তাঁর বক্তৃতায় বলেন, দরিদ্র ও সুবিধা বঞ্চিত প্রান্তিক গ্রামীণ জনগণ বিশেষ করে নারী, দরিদ্র ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠি তাদের প্রতি সংঘটিত অন্যায়ের প্রতিকার যাতে স্থানীয় পর্যায়ে গ্রাম আদালতের মাধ্যমে অল্প সময়ে ও স্বল্প খরচে সঠিক বিচার পেতে পারে তা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে সরকার দেশের প্রতিটি ইউনিয়নে গ্রাম আদালত চালু করেছে। ইউনিয়ন পর্যায়ে স্থাপিত গ্রাম আদালত সর্বোচ্চ ৭৫,০০০ টাকা মূল্যমানের দেওয়ানী ও ফৌজদারী সংক্রান্ত মামলা নিষ্পত্তি করে থাকে। তিনি আরো বলেন, গ্রাম আদালতে ফৌজদারী মামলার আবেদন ফি ১০ টাকা ও দেওয়ানী আবেদন ফি ২০ টাকা ছাড়া গ্রাম আদালতে আর কোনো খরচ নেই। গ্রাম আদালতে অল্প সময়ে, স্বল্প খরচে এবং সহজে বিরোধ ও বিবাদ নিষ্পত্তির সুযোগ রয়েছে। পক্ষগণ নিজের কথা নিজে বলতে পারে। এখানে কোনো আইনজীবী দরকার হয় না। গ্রাম আদালত নারী-পুরুষ সবার জন্যে নিরাপদ ও ভয়মুক্ত। গ্রাম আদালত দরিদ্র, সুবিধাবঞ্চিত প্রান্তিক জনগোষ্ঠির বিচার ব্যবস্থায় প্রবেশাধিকার নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে কাজ করছে। তাই অল্প সময়ে ও স্বল্প খরচে সঠিক বিচার পেতে সাধারণ জনগোষ্ঠী গ্রাম আদালতে আসতে পারেন। গ্রামে অনেক ছোট-খাটো ঘটনা ঘটলেও সাধারণ মানুষ তার প্রতিকার চাইতে থানা বা জেলা আদালতে আসেন। ফলে অনেক সময় ও অর্থ ব্যয় হয়। এটা না করে তিনি ভুক্তভোগীদের গ্রাম আদালতে আসতে বলেন। গ্রাম আদালত প্রকল্পের উপজেলা সমন্বয়কারী মোঃ সগীর আহম্মেদ বলেন, মতলব উত্তর উপজেলার মোট ৮টি ইউনিয়নে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্পটি কাজ করছে। গত জুলাই ২০১৭ হতে জুন ২০১৮ পর্যন্ত প্রকল্পভুক্ত এসব ইউনিয়নে মোট ৪৪৩টি মামলা গৃহীত হয়েছে এবং এর মধ্যে ৪২৬টি মামলা (শতকরা ৯৬ ভাগ) নিষ্পত্তি হয়েছে। ১১



ফরিদগঞ্জে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহের পুরস্কার বিতরণ প্রবীর চক্রবর্তী



ফরিদগঞ্জে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৮-এর পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে। উপজেলা পরিষদের অডিটোরিয়ামে ইউএনও এএইচএম মাহফুজুর রহমানের সভাপ্রধানে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদ সদস্য ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভঁূইয়া এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবু সাহেদ সরকার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইমরান হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াহিদুর রহমান রানা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিনা নাসরিন, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আব্দুল আহাদ, কৃষি কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান, একাডেমিক সুপারভাইজার আব্দুল্যা আল-মামুন, উপজেলা শিক্ষা উন্নয়ন কমিটির সদস্য সচিব রফিকুল আমিন কাজল প্রমুখ। আলোচনা শেষে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ২০১৬, ২০১৭ ও ২০১৮ সালের জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন অতিথিবৃন্দ।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৯৬৪২৭
পুরোন সংখ্যা