চাঁদপুর। বৃহস্পতিবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮। ২৯ ভাদ্র ১৪২৫। ২ মহররম ১৪৪০
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুরের নতুন জেলা প্রশাসক হিসেবে যোগ দেবেন মোঃ কামরুজ্জামান। তিনি বর্তমানে এলজিইডি মন্ত্রণালয়ে উপ-সচিব হিসেবে কর্মরত আছেন।
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৪১-সূরা হা-মীম আস্সাজদাহ,

৫৪ আয়াত, ৬ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

২৩। তোমাদের প্রতিপালক সম্বন্ধে তোমাদের এই ধারণাই তোমাদের ধ্বংস এনেছে। ফলে তোমরা হয়েছো ক্ষতিগ্রস্ত।

২৪। এখন তারা ধৈর্যধারণ করলেও জাহান্নামই হবে তাদের আবাস এবং তারা অনুগ্রহ চাইলেও তারা অনুগ্রহ প্রাপ্ত হবে না।

২৫। আমি তাদের জন্যে নির্ধারণ করে দিয়েছিলাম সহচর যারা তাদের সম্মুখ ও পশ্চাতে যা আছে তা তাদের দৃষ্টিতে শোভন করে দেখিয়েছিল এবং তাদের ব্যাপারেও তাদের পূর্ববর্তী জি¦ন ও মানবদের ন্যায় শাস্তির কথা বাস্তব হয়েছে। তারা তো ছিল ক্ষতিগ্রস্ত।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন



 


সব সমস্যার প্রতিকার হচ্ছে ধৈর্য ও চেষ্টা।

-প্লুটাস।


ন্যায়পরায়ণ বিজ্ঞ নরপতি আল্লাহ’র শ্রেষ্ঠ দান এবং অসৎ মূর্খ নরপতি তার নিকৃষ্ট দান।



 


ফটো গ্যালারি
খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে চাঁদপুর জেলা বিএনপির প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন
শহীদ জিয়াকে হত্যার পর এখন খালেদা জিয়াকে হত্যার চেষ্টা করা হচ্ছে
অ্যাডঃ সেলিম উল্লাহ সেলিম
মিজানুর রহমান
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে চাঁদপুর জেলা বিএনপির আয়োজনে প্রতীকী অনশন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল ১২ সেপ্টেম্বর বুধবার সকাল ১০টায় জেলা বিএনপি কার্যালয়ে শুরু হয়ে বেলা ১২টা পর্যন্ত চলে এ অনশন কর্মসূচি। জেলা, থানা, পৌর, ওয়ার্ড বিএনপিসহ অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যাক নেতা-কর্মী পুলিশি বেষ্টনীর মধ্যে দলীয় কার্যালয়ে উপস্থিত হয় এবং কেন্দ্র ঘোষিত এই কর্মসূচিতে অংশ নেয়।



এ সময় জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডঃ সলিম উল্লাহ সেলিম বলেন, শহীদ জিয়াকে হত্যার পর এখন খালেদা জিয়াকে হত্যার চেষ্টা করা হচ্ছে। তারেক রহমানকেও তারা হত্যার পরিকল্পনা করে রেখেছে। খালেদা জিয়ার কিছু হলে জিয়ার সৈনিকরা ঘরে বসে থাকবে না। আমরা অতীতে দেখেছি, রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনের সময় পুলিশ বাহিনী আইনশৃঙ্খলার স্বার্থে লাঠি নিয়ে আসতেন। প্রয়োজন হলে লাঠিচার্জ করতেন। কিন্তু শেখ হাসিনা পুলিশের সেই লাঠি নিয়ে শুধু বিএনপিকে দমানোর জন্যে আধুনিক অস্ত্র তাদের হাতে দিয়েছে। সারাদেশে নতুন করে ৫শ' নেতা-কর্মীকে আটক করা হয়েছে। চাঁদপুরে আমরা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করছি। নেতা-কর্মীরা মিছিল করে দলীয় কার্যালয়ের দিকে আসছিলো। পুলিশ মিছিলে হামলা করেছে। অথচ আওয়ামী লীগ যখন মিছিল করে, পুলিশের সাথে থেকে হেমলেট বাহিনী নিরীহ ছাত্র-ছাত্রীদের ওপর হামলা করলেও তখন তাদের কিছু বলে না। পুলিশ বিএনপিকে দমন করতে পারবে না।



জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মুনির চৌধুরীর পরিচালনায় প্রতীকী অনশনে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মাহবুব আনোয়ার বাবলু, ফেরদৌস আলম বাবু, চাঁদপুর পৌর বিএনপির সভাপতি অ্যাডঃ হারুনুর রশীদ, জেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক হযরত আলী, জেলা যুবদলের সভাপতি মোফাজ্জল হোসেন চান্দু, পৌর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আঃ কাদির বেপারী, জেলা কৃষক দলের সভাপতি এনায়েত উল্যাহ খোকন, জেলা যুবদলের সাবেক সহ-সভাপতি সরোয়ার হোসেন গাজী, জেলা জিয়া মঞ্চের সভাপতি শোহেব কলিম, পৌর যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক মোস্তফা বন্দুকসী, জাফর প্রধানীয়া, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ইমান গাজী, সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল পাটওয়ারী, স্বেচ্ছাসেবক দলনেতা ফজলুর রহমান ফজলু প্রমুখ।



বিএনপি ও অঙ্গ-সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সদর থানা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ আলী খান, পৌর বিএনপির সহ-সভাপতি আহছান উল্লাহ সেন্টু পাটওয়ারী, যুগ্ম সম্পাদক দ্বীন মোঃ জিল্লু, অর্থ সম্পাদক মোঃ কাইয়ুম খান, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ইমান আলী মিয়াজী, জেলা যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মানিকুর রহমান মানিক, বিএনপি নেতা সেকুল বেপারী, আনিছ বেপারী, শাহজালাল শেখ, জেলা যুবদলের সাবেক সহ-সভাপতি সরোয়ার গাজী, হুমায়ূন কবির হুমা, যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলাম নজু, সদর থানা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আক্তার হোসেন সাগর, সাংগঠনিক সম্পাদক মান্নান খান কাজল, যুবদল নেতা শহীদ প্রধানীয়া, হিরণ মাঝি, রাজ্জাক হাওলাদার, কবির মিয়াজী, মোঃ কাইয়ূম খান, চাঁসক ছাত্রদলের সভাপতি জিয়াউর রহমান সোহাগ, এমএইচ শাকিল, কামরুল ইসলাম সোহেল, শাহজাহান শেখ প্রমুখ।



বক্তারা কারাগার থেকে আদালত প্রত্যাহার, স্বাধীন বিচার বিভাগ, খালেদা জিয়াকে নিঃশর্ত মুক্তি, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হলে সংসদ ভেঙ্গে দেয়া, সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করার দাবি জানান। তা না হলে জিয়ার সৈনিকরা বাংলার মাটিতে কোনো নির্বাচন করতে দিবে না। তিনদিনের কর্মসূচি সফল করায় নেতা-কর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়ে অ্যাডঃ সলিম উল্লাহ সেলিম গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনকে আরো বেগবান করতে তো-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৭৪৩১৭
পুরোন সংখ্যা