চাঁদপুর। শনিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮। ৩১ ভাদ্র ১৪২৫। ৪ মহররম ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৪১-সূরা হা-মীম আস্সাজদাহ,

৫৪ আয়াত, ৬ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

২৯। কাফিররা বলবে : হে আমার প্রতিপালক! যেসব জি¦ন ও মানব আমাদেরকে পথভ্রষ্ট করেছিল তাদের উভয়কে দেখিয়ে দিন, যাতে তারা নি¤œ শ্রেণীর অন্তর্ভুক্ত হয়।

৩০। নিশ্চয়ই যারা বলে : আমাদের প্রতিপালক আল্লাহ, অতঃপর অবিচলিত থাকে, তাদের নিকট অবতীর্ণ হয় ফেরেশ্তা এবং বলে : তোমরা ভীত হয়ো না, চিন্তিত হয়ো না এবং তোমাদেরকে যে জান্নাতের প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছিল তার সুসংবাদ পেয়ে আনন্দিত হও।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন



 


বন্ধু অপেক্ষা শত্রুকে পাহারা দেওয়া সহজ।

-আলকমেয়ন।




যে ধনী বিখ্যাত হবার জন্য দান করে, সে প্রথমে দোজখে প্রবেশ করবে।



 


ফটো গ্যালারি
চাঁদপুর স্টেডিয়ামে উদ্যাপিত হলো এসএসসি '৯৩ ব্যাচের রজতজয়ন্তী
চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম
১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


'তোরা ছিলি তোরা আছিস জানি তোরাই থাকবি' এ সস্নোগানে স্মৃতিকে ধরে রেখে চাঁদপুর স্টেডিয়ামে উদ্যাপিত হলো চাঁদপুর জেলাস্থ এসএসসি '৯৩ ব্যাচের রজতজয়ন্তী। এ উপলক্ষে ওই ব্যাচের শিক্ষার্থীরা গতকাল শুক্রবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করে।



সকাল সাড়ে ৮টায় চাঁদপুর শহরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা সড়কস্থ অঙ্গীকার পাদদেশের সামনে থেকে ৯৩ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালি বের করে। র‌্যালিটিতে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন সাজে সজ্জিত হয়ে অংশ নেন। র‌্যালিতে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীদের সাথে তাদের সন্তানদের দেখা যায়। র‌্যালি শেষে চাঁদপুর স্টেডিয়ামে দেখা যায় এক মিলনমেলা। তারা একে অপরকে জড়িয়ে স্মৃতিময় কথা বলছেন এবং আনন্দ উল্লাস করেন। র‌্যালি শেষে সকালের নাস্তার পরেই ছাত্র-ছাত্রীরা কেক কাটা অনুষ্ঠানে বন্ধু-বান্ধব ও পরিবারের সদস্যদের নিয়ে কেক কাটেন। এ সময় দেখা যায় শিক্ষার্থীরা তাদের দলমত ভুলে গিয়ে একে অপরকে কেক খাওয়াচ্ছেন। কেক কাটা শেষে সকল শিক্ষার্থী তাদের যৌথ পরিবেশনা জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে রজতজয়ন্তীর আনুষ্ঠানিকতা শুরু করেন।



রজতজয়ন্তী কমিটির পক্ষ থেকে তাদের সন্তানদের জন্যে বেলা সাড়ে ১১টায় প্যাপেট শো পুতুল নাচের আয়োজন করা হয় এবং সাথে সাথে তাদের স্ত্রীদের জন্যে আয়োজন করা হয় বালিশ ছোড়া প্রতিযোগিতা। সাড়ে ১২টায় শিশুদের জন্যে আয়োজন করা হয় মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বিকেল ৩টায় চাঁদপুরের বিভিন্ন ব্যান্ড শিল্পীরা শিক্ষার্থীদের পছন্দ অনুযায়ী বিভিন্ন গান পরিবেশন করেন। এ সময় শিক্ষার্থীরা আড্ডায় মেতে উঠেন এবং স্কুল জীবনের বিভিন্ন স্মৃতিকথা তুলে ধরেন । এরপরই সবচেয়ে মজার আয়োজন জাদু শিল্পীর জাদু প্রদর্শনী (ম্যাজিক শো)। রাতে স্টেডিয়ামে গান পরিবেশন করেন ক্লোজআপ তারকা রাজীব। গান শেষে আয়োজকদের পক্ষ র‌্যাফেল ড্র, ফানুস ও আতশবাজি ফুটানো হয়।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৪৯৩৩৭
পুরোন সংখ্যা