চাঁদপুর। রোববার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮। ৮ আশ্বিন ১৪২৫। ১২ মহররম ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • মতলবের জিয়াউর রহমান সাউথ আফ্রিকায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত।
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস











৪১-সূরা হা-মীম আস্সাজদাহ,

৫৪ আয়াত, ৬ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৪৭। কিয়ামতের জ্ঞান আল্লাহর দিকেই প্রবর্তিত, তাঁর অজ্ঞাতসারে কোন ফল আবরণী হতে বের হয় না, কোন নারী গর্ভধারণ করে না এবং সন্তানও প্রসব করে না, যেদিন আল্লাহ তাদেরকে (মুশরিকদেরকে) ডেকে বলবেন : আমরা আপনাকে বলে দিয়েছি যে, এই ব্যাপারে আমাদের কেউ সাক্ষী নেই।

৪৮। পূর্বে তারা যাদেরকে আহ্বান করতো তারা অদৃশ্য হয়ে যাবে এবং অংশীবাদীরা উপলব্ধি করবে যে, তাদের মুক্তির কোন উপায় নেই।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন









 


জাতিকে সঠিক পথে চালনার দিশারী হল বই।

 -আজহারুল হক।


পিতার আনন্দে খোদার আনন্দ এবং পিতার অসন্তুষ্টিতে খোদার অসন্তুষ্টি।





 


ফটো গ্যালারি
জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের প্রস্তুতি সভায় বক্তাগণ
ন্যায্য দাবি আদায়ের লক্ষ্যে ঢাকার মহাসমাবেশ সফল করুন
স্টাফ রিপোর্টার
২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের মহাসমাবেশ সফল করার লক্ষ্যে চাঁদপুরে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিকেলে পুরাণবাজার হরিসভা লোকনাথ মন্দির প্রাঙ্গণে সংগঠন চাঁদপুর জেলা শাখার আয়োজনে সভায় সভাপ্রধানের বক্তব্য রাখেন ছিলেন ঐক্য পরিষদের সভাপতি অ্যাডঃ বিনয় ভূষণ মজুমদার। সভা পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক অ্যাডঃ রনজিত রায় চৌধুরী।

সভায় বক্তাগণ ২৮ সেপ্টেম্বরের মহাসমাবেশ সফল করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, কোনো রাজনৈতিক দল বা গোষ্ঠীর চিন্তা-চেতনা বাস্তবায়নের জন্যে আমাদের মহাসমাবেশ নয়। আমাদের ন্যায্য অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে ঢাকায় মহাসমাবেশ হবে।

তারা বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধ সংঘটিত হয়েছিল। সেদিনের যুদ্ধে মুক্তিকামী হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান, মুসলিমসহ সকল সমপ্রদায়ের মানুষ অংশ নিয়েছিলো। জাতির জনক চেয়েছিলেন সকল সমপ্রদায়ের মানুষের সমঅধিকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সুখি-সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ গড়ে তুলতে। কিন্তু স্বাধীনতার ৪১ বছর অতিবাহিত হলেও বিভিন্ন ক্ষেত্রে ধর্মীয় সংখ্যালঘু সমপ্রদায় তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়েছে। ধর্মীয় সংখ্যালঘু সমপ্রদায়ের দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবির প্রেক্ষিতে অর্পিত সম্পত্তি আইন সংশোধন করা হলেও সরকারের মাঝে ঘাপটি মেরে থাকা কতিপয় কর্মকর্তাদের অসহযোগিতার কারণে তা সম্পূর্ণভাবে বাস্তবায়ন হচ্ছে না।

বক্তারা আরো বলেন, নির্বাচন আমলে ধর্মীয় সংখ্যালঘু সমপ্রদায়ের মাঝে নতুন করে দেখা দেয় ভীতি আশঙ্কা। বিশেষ করে বাড়িঘরে হামলা, দেবালয় ভাংচুর, সম্পত্তি আত্মসাৎসহ অন্যান্য অপরাধ। যা আজ নিয়মে পরিণত হয়েছে। আমরা এসকল অন্যায় অত্যাচারের প্রতিবাদসহ রাষ্ট্রীয় সকল ক্ষেত্রে আমাদের প্রাপ্য অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্যে সরকারের কাছে জোর দাবি জানাই।

সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা ঐক্য পরিষদ উপদেষ্টাম-লীর নেতা অজয় কুমার ভৌমিক, সন্তোষ চন্দ্র দাস, রাধা গোবিন্দ ঘোষ, পূজা উদ্যাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বিবি দাস, উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ নেতা ডাঃ পরেশ চন্দ্র পাল, ডাঃ প্রাণধর দেব, মিঠুন ভদ্র, মুক্তিযোদ্ধা বাসুদেব মজুমদার, বিবেক লাল মজুমদার, হিতেষ শর্মা, লিটন দাস, কাউন্সিলর কিশোর ঘোষ, শ্যামল চন্দ্র দাস, তপন মজুমদার, চন্দন সাহা, অজয় কৃষ্ণ মজুমদার, জেলা ঐক্য পরিষদ নেতা মুক্তিাযোদ্ধা অর্জিত সাহা, তপন সরকার, সুশীল সাহা, গোপাল সাহা, গৌতম রায় চৌধুরী, গৌতম পৌদ্দার, অনন্ত চক্রবর্তী, ডাঃ সহদেব দেবনাথ, জেলা ছাত্র যুব ঐক্য পরিষদ নেতা প্রশান্ত কুমার সেন, প্রভাষক অপু কুমার দেবনাথ, ত্রিপুরা জাতি সমাজ উন্নয়ন সংস্থার জেলা সভাপতি গীত্ত রঞ্জন ত্রিপুরা, নবগঠিত পৌর কমিটির সভাপতি রোটাঃ রিপন সাহা, সাধারণ সম্পাদক ভাস্কর দাস, জেলা সাংস্কৃতিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক পীযূষ কান্তি রায় চৌধুরী প্রমুখ। প্রস্তুতি সভাকে কেন্দ্র করে চাঁদপুর সদরসহ বিভিন্ন উপজেলা থেকে আগত ধর্মীয় সংখ্যালঘু সমপ্রদায়ের ব্যাপক মানুষের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠান স্থল মুখরিত হয়ে ওঠে। বক্তাগণ আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর শুক্রবার দুপুর ১টায় ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত মহাসমাবেশ সকলের উপস্থিতি কামনা করেন। তারা আগামী জাতীয় নির্বাচনের পূর্বেই সংখ্যালঘু মন্ত্রণালয় গঠন, জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠন, সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রণয়ন, অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যার্পণ আইনের যথাযথ বাস্তবায়ন, বর্ণবৈষম্য বিলোপ আইন প্রণয়ন, পার্বত্য ভূমিরোধ নিষ্পত্তি কমিশন আইনের বাস্তবায়নসহ পার্বত্য শান্তি চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়নের রোড ম্যাপ ঘোষণার দাবি জানান।

অনুষ্ঠানে রোটাঃ রিপন সাহাকে সভাপতি ও ভাস্কর দাসকে সাধারণ সম্পাদক করে চাঁদপুর পৌর হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, পীযূষ কান্তি রায় চৌধুরীকে জেলা সাংস্কৃতিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক এবং সঞ্জয় চক্রবর্তীকে আহ্বায়ক ও সাগর চন্দ্র শীলকে সদস্য সচিব করে ২নং ওয়ার্ডের হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের আঞ্চলিক কমিটি গঠন করা হয়।

এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
১০৩৭২৪৩
পুরোন সংখ্যা