চাঁদপুর। সোমবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮। ৯ আশ্বিন ১৪২৫। ১৩ মহররম ১৪৪০
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৪১-সূরা হা-মীম আস্সাজদাহ,

৫৪ আয়াত, ৬ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৪৯। মানুষ কল্যাণ (ধন-সম্পদ) প্রার্থনায় কোন ক্লান্তিবোধ করে না; কিন্তু যখন তাকে দুঃখ-কষ্ট স্পর্শ করে তখন সে অত্যন্ত নিরাশ ও হতাশ হয়ে পড়ে।

৫০। দুঃখ-কষ্ট স্পর্শ করবার পর যদি তাকে আমি অনুগ্রহের আস্বাদ দিই তখন সে বলেই থাকে : এটা আমার প্রাপ্য এবং আমি মনে করি না যে, কিয়ামত সংঘটিত হবে, আর আমি যদি আমার প্রতিপালকের নিকট প্রত্যাবর্তিত হইও তবে তাঁর নিকট তো আমার জন্যে কল্যাণই থাকবে। আমি কাফিরদেরকে তাদের কৃতকর্ম সম্বন্ধে অবশ্যই অবহিত করবো এবং তাদেরকে আস্বাদান করাবো কঠোর শাস্তি।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন



 


যে মানুষ রাস্তায় থাকে সে আকাশের তারার খোঁজ রাখে না।                    


-ইমারসন।


যারা সংসার থেকে চলে গেছে তাদের দোষ কীর্তন করো না।



 


ফটো গ্যালারি
১০ম ইলিশ উৎসবের চূড়ান্ত প্রস্তুতি সভা
স্টাফ রিপোর্টার
২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের আয়োজনে জেগে উঠো মাটির টানে ১০ম ইলিশ উৎসব আজ সোমবার থেকে চাঁদপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এই উপলক্ষে গতকাল রোববার সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে চূড়ান্ত প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।



চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের চেয়ারম্যান অ্যাডঃ বিনয় ভূষণ মজুমদারের সভাপ্রধানে ও মহাসচিব হারুন আল রশীদের সঞ্চালনায় সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। ১০ম ইলিশ উৎসবের আহ্বায়ক চাঁদপুর সাহিত্য একাডেমির মহাপরিচালক ও দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠের প্রধান সম্পাদক রোটাঃ কাজী শাহাদাত ইলিশ উৎসবের বিভিন্ন প্রসঙ্গ তুলে বক্তব্য রাখেন। বক্তারা বলেন, আমরা ১০ বছর ইলিশের ব্র্যান্ডিংয়ের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। আগামী ১০ বছর থাকব কিনা তা বলতে পারি না। এই উৎসবে যারা ভারত থেকে আসছেন তারা স্বেচ্ছায় এই উৎসবে আসছেন। তাদের আন্তরিকতা আছে বলেই তারা ভারত থেকে চাঁদপুরে আসছেন। চাঁদপুর বড় স্টেশন মোলহেডে একটি আন্তর্জাতিক ইলিশ উৎসব আয়োজন করা হচ্ছে। তারা এই ইলিশ উৎসবের সকল পরামর্শ গ্রহণ করেছেন ডাঃ পীযুষ কান্তি বড়ুয়া ও চাঁদপুরের ইলিশ উৎসবের রূপকার হারুন আল রশীদের কাছ থেকে। আর তারাই এই উৎসবের নাম দিয়েছেন আন্তর্জাতিক ইলিশ উৎসব। আমরা ইলিশ উৎসবকে জাতীয় উৎসব করার জন্যে দাবি জানিয়ে আসছি। এখন আন্তর্জাতিক ইলিশ করা হচ্ছে, এতে আমাদের এই ইলিশ উৎসব আরো এক ধাপ এগিয়ে গেল। পশ্চিমবঙ্গে আমাদের এক বছর আগে ইলিশ উৎসব শুরু হয়েছে। আমাদের পার্শ্ববর্তী আগরতলায় গেলে দেখা যায় ইলিশকে তারা কত ভালোবাসে। আমরা আশা করছি চাঁদপুরের এ ইলিশ উৎসবে ভারতের মতো নেপাল, ভুটানসহ অন্যান্য দেশ থেকেও একদিন অতিথি হিসেবে অনেকে অংশগ্রহণ করবে।



সভায় আরো বক্তব্য রাখেন চতুরঙ্গের উপদেষ্টা প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন, অধ্যাপক আলমগীর হোসেন বাহার, জসীম উদ্দিন শেখ, চাঁদপুর সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট জেলা শাখার সভাপতি তপন সরকার, পৌর মেয়রের প্রতিনিধি কাউন্সিলর ফরিদা ইলিয়াছ, নতুন কুঁড়ি সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি অ্যাডঃ আবুল কালাম সরকার, কান্ট্রি ফিশিং বোট মালিক সমিতির সভাপতি শাহআলম মলি্লক, সম্পাদক পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক কেএম মাসুদ, ডাঃ শেখ মহসিন, নৃত্যধারার অধ্যক্ষ সোমা দত্ত, স্বপ্নকুঁড়ি সাংস্কৃতিক সংগঠনের সভানেত্রী সুলতানা আক্তার সেতু, অগি্নবীণা সাংস্কৃতিক সংগঠনের সভানেত্রী শিপ্রা মজুমদার, রংধনু সৃজনশীল নৃত্য সংগঠনের নৃত্য পরিচালক রাশেদুল রাবি্ব প্রমুখ। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু আবৃত্তি পরিষদের সভাপতি পীযুষ কান্তি রায় চৌধুরী, চতুরঙ্গের ভাইস চেয়ারম্যান কৃষ্ণা সাহা, ইয়াহিয়া কিরণ, কণ্ঠশিল্পী তাহমিনা হারুন, শুভ্র রক্ষিত, মামুন, এম.এইচ. বাতেন, রাজিব চৌধুরী, সাদ্দাম হোসেন রনি, আফসার বাবু, রংধনুর সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান জীবন, মৎস্যজীবী নেতা তছলিম বেপারীসহ আরও অনেকে।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৭২৮১৪৭
পুরোন সংখ্যা