চাঁদপুর। মঙ্গলবার ২৩ অক্টোবর ২০১৮। ৮ কার্তিক ১৪২৫। ১২ সফর ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৪২-সূরা যূখরুফ

৮৯ আয়াত, ৭ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

১০। যিনি তোমাদের জন্যে পৃথিবীকে করেছেন শয্যা এবং ওতে করেছেন তোমাদের চলার পথ যাতে তোমরা সঠিক পথ পেতে পার;

১১। এবং যিনি আকাশ হতে পানি বর্ষণ করেন পরিমিতভাবে এবং আমি তার দ্বারা জীবিত করি নির্জীব ভূ-খ-কে। এভাবেই তোমাদেরকে পুনরুত্থিত করা হবে।

১২। এবং যিনি জোড়াসমূহের প্রত্যেককে সৃষ্টি করেন এবং যিনি তোমাদের জন্যে সৃষ্টি করেন এমন নৌযান ও চতুষ্পদ জন্তু যাতে তোমরা আরহণ কর।   

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন



 


কোনো কিছু যদি পবিত্ররূপে সৃষ্টি হয়ে থাকে তবে তা মানবদেহ।     


-ওয়াল্ট হুইটম্যান।


যে ব্যক্তি আল্লাহ ও আখেরাতের উপর ঈমান রাখে তার ভালো ও পরিচ্ছন্ন কথা বলা উচিত অথবা নীরব থাকা বাঞ্ছনীয়। পরিচ্ছন্ন কথা হচ্ছে দান কাজের সমতুল্য।

 


ফটো গ্যালারি
বিদেশে নেয়ার কথা বলে ৭ লাখ টাকা আত্মসাৎ তিনজন গ্রেপ্তার
মতলব ব্যুরো
২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


মতলব দক্ষিণ উপজেলার নায়েরগাঁও দক্ষিণ ইউনিয়নের পাটন গ্রামের এক ব্যক্তিকে বিদেশে নেয়ার কথা বলে ৭ লাখ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর দায়েরকৃত মামলার তিন আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।



মতলব দক্ষিণ থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নায়েরগাঁও গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল খালেকের ছেলে মোঃ রিপন দীর্ঘদিন ধরে সৌদি আরবে থাকছেন। গত বছরের ডিসেম্বরে ছুটি পেয়ে রিপন দেশে আসেন। এরপর পার্শ্ববর্তী পাটন গ্রামের বাসিন্দা মুক্তার হোসেনকে (৩৫) বিদেশ নেয়ার ব্যাপারে তার সাথে কথা হয়। গত বছরের ১৪ ডিসেম্বর প্রাথমিকভাবে রিপনের পিতা আব্দুল খালেকের কাছে ১ লাখ টাকা জমা দেন মুক্তার। এর কিছুদিন পর মুক্তারের কাছ থেকে রিপনের ভাই মোহাম্মদ আলী ও মোঃ স্বপন এবং তার ভগি্নপতি মোঃ সোহাগকে সাক্ষী রেখে বিদেশ যাওয়া বাবদ আরও ৪ লাখ টাকা নেয়া হয়। ৫ লাখ টাকা পাওয়ার পর রিপন মুক্তারকে কিছু না জানিয়ে বিদেশে চলে যায়। বিদেশে যাওয়ার পর রিপনের সঙ্গে মুক্তার যোগাযোগ করলে তাকে জানানো হয় বিদেশে যাওয়ার সমস্ত আয়োজন শেষ। এদিকে গত ১৫ এপ্রিল রিপনের পিতা আব্দুল খালেকের কাছে এ খাতে আরও ২ লাখ টাকা দেন মুক্তার। মোট ৭ লাখ টাকা দেয়ার পর রিপন মুক্তারের সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। রিপনের মুঠোফোন নম্বরে মুক্তার একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেন। কিন্তু মুঠোফোনটির সংযোগ বন্ধ পাওয়া যায়।



মুক্তার হোসেন বলেন, তাকে বিদেশে নেয়ার কথা বলে অনেক সময় নষ্ট করেছে রিপন। এ ব্যাপারে তার পিতা, তিন ভাই ও ভগি্নপতির সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা বিষয়টি এড়িয়ে যান। ৭ লাখ টাকা ফেরত চাইলে তারা ওই টাকা দেই দিচ্ছি বলে টালবাহানা করতে থাকে। বিষয়টি নিয়ে গত ১৮মে এলাকায় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে উভয়পক্ষ সালিসে বসে। সালিসে তারা মুক্তারের কাছ থেকে বিদেশে নেয়ার ব্যাপারে যে ৭ লাখ টাকা নিয়েছে তা স্বীকার করেন। কিন্তু টাকা ফেরত দিয়ে দিবে বলে একাধিকবার সময় নিয়েও নানা অজুহাতে গড়িমসি করেন। বাধ্য হয়ে গত ১৫ অক্টোবর মোঃ রিপন, তার পিতা আব্দুল খালেক, তার ভাই মোঃ আলী ও মোঃ স্বপন এবং ভগি্নপতি মোঃ সোহাগকে আসামী করে চাঁদপুর বিচারিক হাকিমের আদালতে মামলা করা হয়। মুক্তার আরও বলেন, ধার-কর্জ করে ওই ৭ লাখ টাকা জোগাড় করেন। এ টাকা আত্মসাৎ হওয়ায় তিনি সর্বস্বান্ত। এখন কী করবেন বুঝতে পারছেন না। টাকা ফেরত না পেয়ে এবং বিদেশে যেতে না পেরে তিনি দিশেহারা। মতলব দক্ষিণ থানার পরিদর্শক মোঃ ইব্রাহিম খলিল বলেন, বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও অভিবাসী আইনে আদালতে ওই মামলা করা হয়। মামলার আসামী আব্দুল খালেক, মোঃ স্বপন ও মোঃ সোহাগকে আজ দুপুরে তাঁদের বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।



এ ব্যাপারে থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মোঃ ইব্রাহিম খলিল বলেন, আটককৃতদের আজ মঙ্গলবার বিচারিক আদালতে প্রেরণ করা হবে।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
১২৭৯৫১৭
পুরোন সংখ্যা