চাঁদপুর। রোববার ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮। ২ পৌষ ১৪২৫। ৮ রবিউস সানি ১৪৪০
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • ফরিদগঞ্জের মনতলা হাজী বাড়ির মোতাহের হোসেনের ছেলে ফাহিম মাহমুদ (৩) নিজ বাড়ির পুকুরে ডুবে মারা গেছেন। ||  শনিবার সকালে ফাহিমের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক। || 
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৪৮-সূরা ফাত্হ্

২৯ আয়াত, ৪ রুকু, ‘মাদানী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৪। তিনিই মু’মিনদের অন্তরে প্রশান্তি দান করেন যেন তাহারা তাহাদের ঈমানের সহিত ঈমান দৃঢ় করিয়া লয়, আকাশম-লী ও পৃথিবীর বাহিনীসমূহ আল্লাহরই এবং আল্লাহ সর্বজ্ঞ, প্রজ্ঞাময়।







 


assets/data_files/web

সৌভাগ্যবান হওয়ার চেয়ে জ্ঞানী হওয়া ভালো।        


-ডাবলিউ জি বেনহাম।


স্বভাবে নম্রতা অর্জন কর।



 


ফটো গ্যালারি
ড. জালাল উদ্দিনের উপর হামলার ঘটনায় প্রেসব্রিফিং
প্রার্থী ও নেতা-কর্মীদের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ
১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১১:৪৪:২৫
প্রিন্টঅ-অ+




    চাঁদপুর-২ (মতলব) আসনের বিএনপির প্রার্থী ড. জালাল উদ্দিনের উপর হামলার ঘটনায় চাঁদপুরে প্রেসব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল  ১৫ ডিসেম্বর শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টায় জেলা বিএনপির আহ্বায়ক শেখ ফরিদ আহমেদ মানিকের বাসভবন মুনিরা ভবনে এই প্রেসব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়।

    প্রেসব্রিফিংকালে মতলব দক্ষিণ পৌরসভার সাবেক মেয়র ও চাঁদপুর-২ আসনের (মতলব দক্ষিণ) ধানের শীষের প্রধান সমন্বয়কারী এনামুল হক বাদল বলেন, আমাদের প্রার্থী ড. জালাল উদ্দিন আজ তার নিজ বাড়িতে বাবা-মায়ের কবর জিয়ারতের মধ্য দিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করার কথা ছিলো। সেই কথামতো তিনি ধানের শীষের প্রচারণা ও গণসংযোগকালে সুলতানাবাদ ইউনিয়নের লুধুয়া গ্রামে (নিজ বাড়ি) আসেন। সেখানে পূর্ব থেকেই আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী ও বিপুল সংখক পুলিশ উপস্থিত ছিলো। ড. জালাল উদ্দিন তার বাবা-মায়ের কবর জিয়ারত করে ফেরার সময় পুলিশের উপস্থিতিতে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হামলা করে।

    তিনি আরও জানান, এই ঘটনায় আমাদের প্রার্থী ড. জালাদ উদ্দিনসহ বহু নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক। ড. জালাল উদ্দিনকে বর্তমানে তার নিজ বাড়িতে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। বর্তমানে আমাদের প্রার্থী ও নেতা-কর্মীদের জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে আমরা শঙ্কিত। এর আগেও আমাদের বহু নেতা-কর্মীর উপর হামলা এবং মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হয়েছে। আমরা পুলিশ সুপার ও রিটার্নিং অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেও এর কোনো সুরাহা পাইনি।

    প্রেসব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক মির্জা জাকিরসহ সিনিয়র সাংবাদিক, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মনির চৌধুরী, ফেরদৌস আলম বাবু, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ বাহার, মতলব উত্তর বিএনপির সহ-সভাপতি সফিকুল ইসলাম সাগর, সাধারণ সম্পাদক এমরান হোসেন মিলন, মতলব পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ডাঃ সোয়েব আহমেদ, পৌর শ্রমিক দলের সভাপতি মনির ফরায়েজি, মতলব সদর বিএনপির সভাপতি ওয়ালি উল্যা ঢালী, উপজেলা যুবদলের সভাপতি মোজাহিদুল ইসলাম কিরণ, ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলাম নয়নসহ নেতৃবৃন্দ।

 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৯২১৩৬৪
পুরোন সংখ্যা