চাঁদপুর, শুক্রবার ১৫ মার্চ ২০১৯, ১ চৈত্র ১৪২৫, ৭ রজব ১৪৪০
jibon dip
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৩-সূরা নাজম


৬২ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৩৩। তুমি কি দেখিয়াছ সেই ব্যক্তিকে যে মুখ ফিরাইয়া লয় ;


৩৪। এবং দান করে সামান্যই, পরে বন্ধ করিয়া দেয়?


৩৫। তাহার কি অদৃশ্যের জ্ঞান আছে যে, সে প্রত্যক্ষ করে?


 


 


assets/data_files/web

মনের যাতনা দেহের যাতনার চেয়ে বেশি। -উইলিয়াম হ্যাজলিট।


 


বিদ্যা শিক্ষার্থীগণ বেহেশতের ফেরেশতাগণ কর্তৃক অভিনন্দিত হবেন।


 


 


ফটো গ্যালারি
হাজীগঞ্জে চোখের জলে ৭ শিক্ষকের বিদায় সংবর্ধনা
বিশেষ প্রতিনিধি
১৫ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


হাজীগঞ্জ সরকারি মডেল পাইলট হাইস্কুল এন্ড কলেজের ৭ শিক্ষককে বিদায় সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এ বিদায় সংবর্ধনা দেয়া হয়। ৭ শিক্ষককে একত্রে বিদায় দিতে গিয়ে অনুষ্ঠানের অতিথি, বিদায়ী শিক্ষকবৃন্দ, কর্মরত শিক্ষকবৃন্দ ও শিক্ষার্থীরা নীরবে চোখের জল ঝরিয়েছেন।



৭ জনের মধ্যে ৫ জন অবসরজনিত কারণে ও দুইজন শিক্ষক অন্যত্র বদলিজনিত কারণে বিদায় নিয়েছেন। অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকরা হলেন : গণিতের শিক্ষক অমলেন্দু মজুমদার ও মহিবুর রহমান, ভাষা শিক্ষক রত্নেশ্বর চৌধুরী, হিসাববিজ্ঞানের শিক্ষক মোঃ মুকসুদুর রহমান, কৃষি বিষয়ের শিক্ষক মোঃ আলেফ হোসেন। বদলিজনিত শিক্ষকরা হলেন : ইংরেজি বিষয়ের মোঃ আল-আমিন গাজী ও লাইব্রেরিয়ান শেখ মিজানুর রহমান।



বিদায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিতে গিয়ে সবাই অশ্রু ঝরিয়েছেন। প্রথমেই স্বাগত বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মোঃ আবু ছাইদ আবেগমথিত বক্তব্য দেন। পরে বিদ্যালয়ে কর্মরত শিক্ষক, বিদায়ী শিক্ষকবৃন্দ, পরিচালনা পর্ষদের সাবেক সদস্যবৃন্দ ও শিক্ষার্থীরাও বক্তব্য রাখতে গিয়ে চোখের জল ফেলেছেন।



বিদায়ী শিক্ষক রত্নেশ্বর চৌধুরী বলেন, ১৯৮৫ সালে ফেব্রুয়ারি মাসে তিনি এ প্রতিষ্ঠানে যোগদান করেছেন। শিক্ষকতা জীবনে তিনি কোনো ফাঁকি দেননি। বর্তমান শিক্ষকদেরকেও শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের মনোযোগ সহকারে পাঠদানের আহ্বান জানান। তিনি শিক্ষার্থীদের নিয়মিত লেখাপড়া করার পরামর্শ দেন এবং ভবিষ্যতে আলোকিত মানুষ হওয়ার আহ্বান জানান।



অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বৈশাখী বড়ুয়াও বক্তব্য রাখতে গিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। তিনি শিক্ষাজীবনে তাঁর শিক্ষকের কথা স্মরণ করেন। তিনি শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের আরো ভালোভাবে পাঠদান করে হাজীগঞ্জ সরকারি মডেল পাইলট হাইস্কুল এন্ড কলেজকে অধিকতর যোগ্য প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলার আহ্বান জানান।



অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক কর্মকর্তা মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ও পরিচালনা পর্ষদের সাবেক সদস্য আসফাকুল আলম চৌধুরী, আনিছুর রহমান তালুকদার, শাহজাহান তালুকদার, আবুল কালাম আজাদ ও শহীদুল্লাহ মৃধা, সহকারী প্রধান শিক্ষক হোসাইনুল আজম, মোহাম্মদ শাহজাহান প্রমুখ। অনুষ্ঠান শেষে বিদায়ী শিক্ষকদের হাতে উপহার তুলে দেন প্রধান অতিথি বৈশাখী বড়ুয়াসহ অন্য অতিথিবৃন্দ।



 



 



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
১৭০৬২৮
পুরোন সংখ্যা