চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ১৬ মে ২০১৯, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১০ রমজান ১৪৪০
jibon dip
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৩-সূরা নাজম


৬২ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৩২। উহারাই বিরত থাকে গুরুতর পাপ ও অশ্লীল কার্য হইতে, ছোটখাট অপরাধ করিলেও। তোমার প্রতিপালকের ক্ষমা অপরিসীম ; আল্লাহ তোমাদের সম্পর্কে সম্যক অবগত, যখন তিনি তোমাদিগকে সৃষ্টি করিয়াছিলেন মৃত্তিকা হইতে এবং যখন তোমরা মাতৃগর্ভে ভ্রূণরূপে ছিলে। অতএব তোমরা আত্ম-প্রশংসা করিও না, তিনিই সম্যক জানেন মুত্তাকী কে।


 


assets/data_files/web

মনের যাতনা দেহের যাতনার চেয়ে বেশি। -উইলিয়াম হ্যাজলিট।


 


ন্যায়পরায়ণ বিজ্ঞ নরপতি আল্লাহর শ্রেষ্ঠ দান এবং অসৎ মূর্খ নরপতি তার নিকৃষ্ট দান।


 


ফটো গ্যালারি
হাইমচর থানার ওসি বদলি
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট
১৬ মে, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

হাইমচর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মোঃ মহসীনকে বদলি করা হয়েছে। তাকে রাজশাহী বদলি করা হয়। গতকাল বুধবার এ তথ্য জানা গেছে। নির্ভরযোগ্য এবং বিশ্বস্ত সূত্রে এ তথ্যটি নিশ্চিত হওয়া গেছে। এদিকে তার বদলি নিয়ে নানা গুঞ্জন চলছে। সম্প্রতি হাইমচর থানার কনস্টেবল মোশারফ হোসেন মেঘনায় জেলেদের হামলায় নিহত হওয়ার ঘটনা থানার ওসির দায়িত্ব অবহেলার বিষয়টি জোরালোভাবে আলোচনায় আসে।

এদিকে কনস্টেবল মোশারফ খুন হওয়ার ঘটনাটি চাঁদপুরের পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির বিপিএম, পিপিএম উচ্চতর বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠনসহ পুরো ঘটনাটি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছেন। ওই ঘটনায় হাইমচর থানার কোনো পুলিশ কর্মকর্তার দায়িত্ব অবহেলার বিষয়টি তদন্তে চলে আসলে তিনিও ছাড় পাবেন না এমনটিই বোঝা গেছে। ইতিমধ্যে ৫/৬ জন আসামী আটক হয়েছে এবং ঘটনার একদিন পর হাইমচর থানার এসআই সুমন সরকার ও কনস্টেবল শাহাদাত হোসেনকে ক্লোজড করা হয়েছে। এ দু'জন কনস্টেবল মোশাররফ নিহত হওয়ার ঘটনার সময় সাথে ছিলো।

উল্লেখ্য, গত ২৬ এপ্রিল শুক্রবার রাতে মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত এক আসামিকে গ্রেফতারের জন্যে হাইমচর থানার ৩ পুলিশ, ২ গ্রাম পুলিশ, ১ জন কমিউনিটি পুলিশ সদস্য এবং থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মহসিনের ব্যক্তিগত সোর্স রবিউলসহ ইঞ্জিন চালিত দুটি নৌকাসহ মেঘনার পশ্চিম পাড়ে নীলকমল ইউনিয়নের চরকোড়ালিয়া এলাকায় রওনা করে। ওই সময়ে সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মেঘনায় জাটকা নিধন করা সংঘবদ্ধ জেলেরা তাদের আটক করা হবে সন্দেহ করে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালায়। আর তখনি পুলিশ সদস্য মোশারফ নিখোঁজ হন। ঘটনার দু'দিন পর ২৮ এপ্রিল বরিশাল জেলার হিজলা থানার এলাকায় নিখোঁজ কনস্টেবল মোশাররফের লাশ ভেসে উঠে। এদিকে এ ঘটনার পর রাতে উত্তাল মেঘনা পাড়ি দিয়ে আসামী ধরতে যাওয়ার প্রস্তুতি সে ধরণের না থাকা যেমন লাইফ জেকেট না থাকা, পর্যাপ্ত পুলিশ সদস্য না থাকা এবং ওসির সোর্স রবিউল ঘটনার পর পলাতক থাকার বিষয়টিসহ নানা প্রশ্ন সামনে চলে আসে।

আজকের পাঠকসংখ্যা
৫২৯৪৩৪
পুরোন সংখ্যা