চাঁদপুর, বুধবার ২২ মে ২০১৯, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৬ রমজান ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • অনিবার্য কারণে শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনির আজকের চাঁদপুর সফর স্থগিত করা হয়েছে
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫০-সূরা কাফ্

৪৫ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৩৬। আমি তাহাদের পূর্বে আরও কত মানবগোষ্ঠীকে ধ্বংস করিয়াছি যাহারা ছিল উহাদের অপেক্ষা শক্তিতে প্রবল, উহারা দেশে দেশে ঘুরিয়া বেড়াইত; উহাদের কোনো পলায়নস্থল রহিল কি?

৩৭। ইহাতে উপদেশ রহিয়াছে তাহার জন্য যাহার আছে অন্তঃকরণ অথবা যে শ্রবণ করে নিবিষ্ট চিত্তে।


assets/data_files/web

মর্যাদা রক্ষার ব্যাপারে আমি নিজের অভিভাবক। -নিকেলাস রান্ড।


 


 


যদি মানুষের ধৈর্য থাকে তবে সে অবশ্য সৌভাগ্যশালী হয়।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
চাঁদপুর সিএসডিতে কৃষকের কাছ থেকে বোরো ধান সংগ্রহ কার্যক্রম উদ্বোধন
প্রকৃত কৃষক ধান দিবে আমরা সেটাই নিশ্চিত করতে চাই
ইউএনও কানিজ ফাতেমা
মিজানুর রহমান
২২ মে, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর সদর উপজেলার কৃষকদের কাছ থেকে বোরো ধান ২০১৯ সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। চাঁদপুর সিএসডিতে ২৬ টাকা কেজি ও প্রতি মণ ধান ১ হাজার ৪০ টাকা দরে ক্রয় করা হচ্ছে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা সরকারিভাবে ধান-চাল সংগ্রহের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর কেন্দ্রীয় খাদ্য সংরক্ষণাগার (সিএসডি) ব্যবস্থাপক সালমা আক্তার, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা (বালিয়া ইউনিয়ন, চাঁদপুর সদর) ফারুক আহমদ, সিএসডি লেবার হেন্ডলিং ঠিকাদার আলহাজ্ব নান্নু মিয়া, কৃষক স্বপন পাটওয়ারীসহ আরো অনেকে।



সরকার নির্ধারিত মূল্যে চাঁদপুর সদর উপজেলার প্রকৃত কৃষক হতে ১৫৪ মেট্রিক টন ধান ক্রয় করা হবে। এদিন কৃষিকার্ডধারী ৬০ জন কৃষকের ধান সংগ্রহ করা হয়েছে। পাশাপাশি স্থানীয় ১৭টি রাইস মিলের সাথে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের চুক্তি অনুযায়ী বোরো মওসুমের চাল সংগ্রহ শুরু হয়েছে। এদিন ইউএনও গুদামে সংগৃহীত মিলের চাল কার্যক্রমও পর্যবেক্ষণ করেন।



ইউএনও কানিজ ফাতেমা বলেন, কোনো কৃষককে হয়রানি করা যাবে না। প্রকৃত কৃষকই ধান দিবে আমরা সেটাই নিশ্চিত করতে চাই।



চাঁদপুর সিএসডি ব্যবস্থাপক সালমা আক্তার জানান, কৃষি বিভাগ যে তালিকা দিয়েছে, আমরা এর বাইরে কোনো ধান ক্রয় করবো না। তিনি আরো বলেন, সরকারি নির্দেশ মোতাবেক কৃষি বিভাগের ২০১৯ সালের উৎপাদিত বোরো মওসুমের ধান তালিকাভুক্ত কৃষিকার্ডধারী কৃষক ভাইদের নিকট হতে ধান ক্রয় করা হবে। ১ জন কৃষক সর্বনিম্ন ৩ মণ এবং সর্বোচ্চ ৩ মেঃ টন ধান আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে বিক্রি করতে পারবেন।



উল্লেখ্য, এ মৌসুমে চাঁদপুর জেলায় ৬২ হাজার হেক্টরের বেশি জমিতে বোরো-ইরি ধান চাষ করা হয় বলে জানিয়েছেন জেলা কৃষি কর্মকর্তা। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তাদের মাধ্যমে প্রকৃত কৃষকদের তালিকা তৈরি করে সরকারি মূল্যে এ ধান সংগ্রহ করা হচ্ছে।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
১৪৯৭৩৫
পুরোন সংখ্যা