চাঁদপুর, বুধবার ১২ জুন ২০১৯, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ৮ শাওয়াল ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭৮ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


 


৬। তৃণলতা ও বৃক্ষাদি তাঁহারই সিজ্দায় রত রহিয়াছে,


৭। তিনি আকাশকে করিয়াছেন সমুন্নত এবং স্থাপন করিয়াছেন মানদ-,


৮। যাহাতে তোমরা সীমালঙ্ঘন না কর মানদন্ডে।


 


 


 


assets/data_files/web

যার বন্ধু নাই তার শত্রুও নাই।


-টেনিসন।


 


 


যে পরনিন্দা গ্রহণ করে সে নিন্দুকের অন্যতম।


 


 


ফটো গ্যালারি
চাঁদপুরে নকল নবিসদের 'ঘেরাও কর্মসূচি'
স্টাফ রিপোর্টার
১২ জুন, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


'এক দফা এক দাবি মেনে নাও মেনে নাও, মেহনতি শ্রমিকের পরাজয় নাই' এ শ্লোগানে চাকুরি জাতীয়করণের দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে চাঁদপুরে বাংলাদেশ এঙ্টা মোহরা-নকল নবিস অ্যাসোসিয়েশনের ঘেরাও কর্মসূচি পালিত হয়েছে। গতকাল ১১ জুন মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত জেলা রেজিস্ট্রার কার্যালয়ের সামনে শান্তিপূর্ণভাবে এ কর্মসূচি পালন করে।



সংগঠনের চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি মানিক গাজীর সভাপ্রধানে ও সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামালের সঞ্চালনায় সদর উপজেলা সভাপতি ইসমাইল মাহমুদ সাগর, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন খান, ফরিদগঞ্জ উপজেলা সভাপতি শাহআলম, সাধারণ সম্পাদক শাহ ইমরান, হাজীগঞ্জ উপজেলা সভাপতি কাজী জাকির হোসেন, চিতশী সভাপতি ফিরোজ আলম মামুন, সাধারণ সম্পাদক উম্মে কুলসুম, মহনপুর সভাপতি মহিউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক তমিজ উদ্দিনসহ অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।



বক্তারা বলেন, একজন নকল নবিসকে মাসে ৩শ' পৃষ্ঠা লিখতে হয়। ৩শ' পৃষ্ঠা লেখনি বাবদ সরকার জনগণের কাছ থেকে ১২ হাজার টাকা আদায় করেন। চাকুরি জাতীয়করণ করলে ৪২তম গ্রেডে একজন নকল নবিসকে সব মিলিয়ে দিতে হবে ৮ হাজার ১২ টাকা। সরকারের অতিরিক্ত রাজস্ব আয় হবে ৩ হাজার ৯শ' ৮৭ টাকা। তারা আরো বলেন, এটি এমন একটি খাত যেখানে নকল নবিসদের চাকুরি জাতীয়করণ করলে সরকারকে অন্য কোনো খাত থেকে অর্থ সংস্থান করতে হবে না। বরং রাজস্ব আয় বৃদ্ধির পাশাপাশি এ গুরুত্বপূর্ণ খাতটিকে জবাবদিহিতার মধ্যে এনে কাজের গুণগত মান বৃদ্ধি করা সম্ভব। ১৯৭৩ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং ১৯৮৪ সালের ১৬ আগস্ট বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বিরোধী দলে থাকাকালীন এঙ্টা মোহরারদের চাকুরি স্থায়ীকরণের ঘোষণা দেন। আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় বর্তমানে তা আটকে আছে। দাবি আদায়ের লক্ষ্যে আগামী ১৭ জুন জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করা হবে বলে তারা জানান।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৮৫৭০৬
পুরোন সংখ্যা