চাঁদপুর, বুধবার ১৯ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬, ১৫ শাওয়াল ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫১-সূরা যারিয়াত


৬০ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


৫৬। আমি সৃষ্টি করিয়াছি জিন এবং মানুষকে এই জন্য যে, তাহারা আমারই ইবাদত করিবে।


৫৭। আমি উহাদের নিকট হইতে জীবিকা চাহি না এবং ইহাও চাহি না যে, উহারা আমার আহার্য্য যোগাইবে।


 


 


 


খ্যাতিমান লোকের ভালোবাসা অনেক ক্ষেত্রে গোপন থাকে। -বেন জনসন।


 


 


যার দ্বারা মানবতা উপকৃত হয়, মানুষের মধ্যে তিনি উত্তম পুরুষ।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
চাঁদপুর কণ্ঠের রজতজয়ন্তী ও একাদশ পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতার ফাইনাল
দেশবরেণ্য সাহিত্যব্যক্তিত্ব ও একঝাঁক মেধাবী বিতার্কিকের পদচারণায় মুখরিত ছিলো চাঁদপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমি
এএইচএম আহসান উল্লাহ
১৯ জুন, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর জেলার প্রথম এবং শীর্ষস্থানীয় দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠের ২৫ বছর পূর্তি তথা রজতজয়ন্তী ছিলো গত ১৭ জুন, সোমবার। চাঁদপুর কণ্ঠের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীকে ঘিরে ২০০৯ সাল থেকে শুরু হওয়া 'পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতা'র এবারের ১১তম আসরের উল্লাস তথা ফাইনাল পর্বটিও অনুষ্ঠিত হয়েছিলো ১৭ জুন। বিগত কয়েক বছর চাঁদপুর কণ্ঠের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী দিবসটি (১৭ জুন) রমজান, ঈদের ছুটি বা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর অর্ধবার্ষিক পরীক্ষার কারণে বিতর্ক প্রতিযোগিতার ফাইনাল পর্বটি ১৭ জুন করা সম্ভব হয়নি। কিন্তু এবার যেনো 'ব্যাটে-বলে' মিলে গেছে। সেটি হয়তো চাঁদপুর কণ্ঠের রজতজয়ন্তী উৎসবের কারণেই।



১৭ জুন, ২০১৯ চাঁদপুর কণ্ঠের ২৫ বছর পূর্ণ হওয়ার দিনটি স্মরণীয় করে রাখার জন্যে রজতজয়ন্তী অনুষ্ঠান এবং বিতর্কের ফাইনাল পর্বটি ভিন্ন মাত্রা ও ভিন্ন আমেজে করার পরিকল্পনা নেয় চাঁদপুর কণ্ঠ পরিবার এবং চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক ফাউন্ডেশন। পুরো আয়োজনে প্রধান অতিথি থাকার কথা ছিলো চাঁদপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি। তিনি এর জন্যে সম্মতিও দিয়েছেন। কিন্তু এ দিন রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ কাজ থাকায় তিনি অনুষ্ঠানে থাকতে পারেনি। এ বিষয়টি আয়োজক কর্তৃপক্ষ আগেই জানতে পেরে তাঁর শূন্যতা পূরণে প্রধান অতিথি করলেন দেশের খ্যাতিমান সাহিত্যব্যক্তিত্ব, জনপ্রিয় মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, একুশে পদক ও বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত দেশবরেণ্য কথাসাহিত্যিক সৈয়দ মনজুরুল ইসলামকে। তিনি তো এসেছেনই, তাঁর সাথে সম্মানীয় অতিথি হিসেবে এসেছেন একুশে পদক ও বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত কথাসাহিত্যিক ও খ্যাতিমান আরো তিনজন লেখক এবং দেশের প্রকাশনা জগতের তিনজন উজ্জ্বল নক্ষত্র। এঁরা হচ্ছেন একুশে পদক ও বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত কথাসাহিত্যিক মঈনুল আহসান সাবের, বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত কবি মারুফুল ইসলাম ও লেখক শাকুর মজিদ, স্বনামধন্য প্রকাশনা সংস্থা 'অন্যপ্রকাশ'-এর প্রকাশক মাজহারুল ইসলাম ও সিরাজুল কবির চৌধুরী এবং পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লিঃ-এর চেয়ারম্যান চাঁদপুরের কৃতীসন্তান দেশের প্রকাশনা শিল্পে ব্যতিক্রম ধারার উদ্ভাবক কামরুল হাসান শায়ক। এঁরা ১৭ জুন শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। আরো ছিলেন চাঁদপুরের বিশিষ্ট ব্যক্তিগণ। বিতর্ক প্রতিযোগিতার ফাইনালে অংশ নেয়া ৮টি দলের একঝাঁক মেধাবী বিতার্কিক দেশখ্যাত এই শিক্ষাবিদদের সানি্নধ্য পেয়ে খুবই গর্বিত এবং আনন্দিত। এসব ফাইনালিস্ট বিতার্কিকের সাথে দলবেঁধে তাদের সহপাঠীরাও এসেছে অনুষ্ঠানে। আরো ছিলেন প্রতিষ্ঠান প্রধান, দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষক ও অভিভাবকগণ। জাতির পথনির্দেশক কবি-সাহিত্যিক এবং আগামীর স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ার কারিগর একঝাঁক মেধাবী তারুণ্যের পদচারণায় মুখরিত ছিলো জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তন। এসব সম্মানীয় ব্যক্তিত্বের উপস্থিতিতে চাঁদপুর কণ্ঠের রজতজয়ন্তী এবং একাদশ পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতার ফাইনাল পর্বটি অনুষ্ঠানটি প্রাণবন্ত হয়। দেশবরেণ্য কথাসাহিত্যিকগণ আগামীর বাংলাদেশ গড়ার কারিগরদের যে প্রণোদনা দিয়েছেন, তাঁদের উপস্থিতি তাদেরকে যে অনেক সমৃদ্ধ করেছে, শক্তি সঞ্চারিত করেছে তা জানান দিয়েছে অনুষ্ঠানটি সফল সমাপ্তির মধ্য দিয়ে।



দেশবরেণ্য এসব ব্যক্তিত্বকে সম্মান দিতে আয়োজক কর্তৃপক্ষ কোনো কার্পণ্য করেনি। তাঁদেরকে হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসা দিয়ে দাঁড়িয়ে করতালির মধ্য দিয়ে সম্মান জানানো, সম্মানসূচক উত্তরীয় পরিয়ে দেয়া ও শুভেচ্ছা ক্রেস্ট প্রদানের মাধ্যমে তাঁদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানানো হয়। অতিথিগণও চাঁদপুরবাসীর এই অকৃত্রিম ভালোবাসা ও আতিথেয়তায় মুগ্ধ। যা তাঁরা বক্তৃতায় অভিব্যক্তি প্রকাশের মাধ্যমে তুলে ধরেছেন।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৭০৬৬৭
পুরোন সংখ্যা