চাঁদপুর, বুধবার ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬, ২২ শাওয়াল ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • শাহরাস্তিতে ডাকাতি মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড ও ৪ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে চাঁদপুরের জেলা ও দায়রা জজ আদালত। || 
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫১-সূরা সূরা তূর

৪৯ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

১৯। ‘তোমরা যাহা করিতে তাহার প্রতিফল স্বরূপ তোমরা তৃপ্তির সহিত পানাহার করিতে থাক।’

২০। তাহারা বসিবে শ্রেণীবদ্ধভাবে সজ্জিত আসনে হেলান দিয়া; আমি তাহাদের মিলন ঘটাইব আয়তলোচনা হূূরের সংগে;


জাতীয় সংসদ আদর্শ লোকজনের এক বিরাট সমাবেশ ব্যতীত আর কিছু নয়।

 -ওয়াল্টার বেজইট।


দুষ্কর্মের প্রকৃত অনুতাপকারী এবং যে কখনো দুষ্কর্ম করেনি-এদের মধ্যে কোন পার্থক্য নেই।


ফটো গ্যালারি
রামপুর ইউনিয়নে ১ কোটি ৪১ লাখ টাকা ব্যয়ে দুটি সড়কের সংস্কার কাজ চলছে
ডাকাতিয়ার পাড়ে গাইডওয়াল ও সিসি বস্নক দিয়ে বাঁধাই করায় অপূর্ব দৃশ্যের অবতারণা
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট
২৬ জুন, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর সদর উপজেলার ৫নং রামপুর ইউনিয়নস্থ ছোটসুন্দর-রামপুর-রাঢ়ীরচর সড়ক দিয়ে হেঁটে গেলে চোখ জুড়ানো অপূর্ব দৃশ্য চোখে পড়বে। রামপুর আদর্শ আলিম মাদ্রাসার সামনে দিয়ে যে রাস্তাটি দক্ষিণ দিকে গেছে, সে রাস্তার ডাকাতিয়ার পাড় যেখানে এবং যে স্থানে রাস্তা ও নদী ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে, সেসব জায়গায় গাইডওয়াল নির্মাণ করা হয়েছে। একই সাথে ডাকাতিয়ার পাড়ে জিও টেঙ্টাইল ব্যাগ ফেলে তার উপর সিসি বস্নক বসানো হয়েছে। এখানেই শেষ নয়। গ্রামবাসী যেনো নদীতে গোসলসহ প্রয়োজনীয় কাজ সহজভাবে সারতে পারে সেজন্যে দৃষ্টিনন্দন ৪টি ঘাটলা করা হয়েছে। নদীর পাড়ে এভাবে সিসি বস্নক দিয়ে বাঁধাই করা এবং দৃষ্টিনন্দন ঘাটলা দেখতে এলাকায় প্রতিদিন শত শত মানুষ আসছে এবং অবকাশ যাপন করছে। কেননা এ দৃশ্যটি দেখলে যে কারো চোখ জুড়িয়ে যায়।



চাঁদপুর এলজিইডি কর্তৃক ছোটসুন্দর-রামপুর-রাঢ়ীরচর সড়ক এবং কামরাঙ্গা-তুলাতল-বাকিলা সড়ক (৪ কিঃমিঃ) সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে। ১ কোটি ৮১ লাখ টাকা ব্যয়ে এ ২টি সড়কের সংস্কার কাজ চলমান। অনেকদিন যাবৎ এ সড়ক দুটি খুবই নাজুক অবস্থায় ছিলো। বিশেষ করে ডাকাতিয়া নদীর তীরবর্তী হওয়ায় রামপুর গ্রামের রাস্তাটি খুবই ঝুঁকিপূর্ণ ছিলো। শিক্ষামন্ত্রী ও স্থানীয় সংসদ সদস্য ডাঃ দীপু মনির বিশেষ উদ্যোগে রাস্তাটির ডাকাতিয়া নদীর তীরবর্তী ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে গাইডওয়ালসহ বালুভর্তি জিও টেঙ্টাইল ব্যাগের ওপর সিসি বস্নক বসানোর কাজ সমাপ্ত হয়েছে। শুধু তাই নয়, এ রাস্তার পার্শ্ববর্তী বাড়ির মানুষের ডাকাতিয়া নদীতে গোসলসহ প্রয়োজনীয় কাজের সুবিধার্থে ৪টি দৃষ্টিনন্দন ঘাটলা করা হয়েছে। এতে করে উক্ত রাস্তাটি পূর্বের তুলনায় অনেক টেকসই হবে এবং ডাকাতিয়া নদীর তীরবর্তী হওয়ায় রাস্তাটির সৌন্দর্য কয়েকগুণ বেড়ে গেছে। উক্ত রাস্তাটি দেখতে এবং অবসর সময় কাটাতে এলাকাবাসীসহ বিভিন্ন এলাকার ভ্রমণপিপাসু মানুষ প্রতিদিন এখানে আসছে। এমন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের একটি জায়গায় মানুষ এসে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছে। এজন্যে রামপুর গ্রামবাসীসহ ঘুরতে আসা জনগণ শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপির প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন।



এ প্রসঙ্গে রামপুর ইউপি চেয়ারম্যান আল-মামুন পাটওয়ারী বলেন, এ কাজ খুবই মানসম্মত হবে আশা করছি। ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে গাইডওয়াল করায় রাস্তাটি আর ভেঙ্গে নদীতে পড়ার আশঙ্কা নেই। তাছাড়া নদীর পাড় যেভাবে সুন্দর করা হয়েছে, তাতে যে কারো এখানে ঘুরতে আসতে মন চাইবে। বড় বাজেটে রাস্তা দুটি সংস্কার কাজের বরাদ্দ দেয়ায় তিনি ইউনিয়নবাসীর পক্ষ থেকে শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪০৮৮৩১
পুরোন সংখ্যা