চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০১৯, ২৭ আষাঢ় ১৪২৬, ৭ জিলকদ ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী লায়ন কাজী মাহাবুবুল হক স্কয়ার হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে আছেন, তার জন্য সকলের নিকট দোয়া চেয়েছেন পরিবারবর্গ
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৩-সূরা নাজম


৬২ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


assets/data_files/web

অশিক্ষিত সন্তানের চেয়ে সন্তান না থাকাই ভালো।


-জন হে উড।


 


 


 


কবরের উপর বসিও না এবং উহার দিকে মুখ করিয়া নামাজ পড়িও না।


 


 


ফটো গ্যালারি
শাহরাস্তিতে শিক্ষার্থীকে তুলে নেয়ার চেষ্টা সংঘর্ষে আহত ৫
মঈনুল ইসলাম কাজল
১১ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


শাহরাস্তিতে বিয়ের দাবিতে কলেজপড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে তুলে নিতে গিয়ে ৫ জন গুরুতর জখম হয়েছে। গত সোমবার দিবাগত রাত পৌনে ৩টায় উপজেলার মেহের দক্ষিণ ইউপির দেবকরা গ্রামের ভঁূইয়া বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।



ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থীর পরিবার ও স্থানীয়রা জানায়, ২০১৭ সালে দেবকরা গ্রামের জনৈক প্রবাসীর মেয়ে (১৮) খিলাবাজার স্কুল এন্ড কলেজে পড়াবস্থায় একই গ্রামের কালা মিয়া বেপারী বাড়ির আবু তাহেরের পুত্র আলমগীর (৩৮) তাকে বিয়ে করতে চায়। সে বিভিন্ন সময় ওই শিক্ষার্থী ও তার পরিবারের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়তে চেষ্টা করে। তারপর শিক্ষার্থীর পরিবার তার এসব আচরণে ক্ষুব্ধ হয়ে ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে শাহরাস্তি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট একটি লিখিত আবেদন করে। সে প্রেক্ষিতে একই ইউপির চেয়ারম্যান শফি আহমেদ মিন্টু তার দপ্তরে আলমগীর থেকে এমন কিছু কখনো হবে না মর্মে মুচলেকায় স্বাক্ষর নেন।



তারপর দীর্ঘদিন বিষয়টি সহনীয় পর্যায় থেকে ঘটনার দিন সোমবার দিবাগত রাতে আবার একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে বলে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার জানায়। ওই রাতে প্রতিদিনের ন্যায় পরিবারটি ঘুমিয়ে পড়ে। রাতে পরিবারের সদস্য মৃত মনসুর আলী ভূঁইয়ার পুত্র (চাচা) আব্দুল মান্নান (৩৪) প্রকৃতির ডাকে ঘর থেকে বের হতে গিয়ে দরজা বন্ধ পায়। পরে তিনি দরজার বাঁধন খুলে বেরিয়ে দেখেন বাড়ির সব লাইট বন্ধ। এরই মধ্যে পূর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা কে বা কারা মুখে কালো কাপড় বেঁধে তার উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। ওইসময় তার আর্তচিৎকারে ও ধস্তাধস্তির শব্দ শুনে পরিবারের অন্য সদস্যরা জেগে উঠলে সঙ্গবদ্ধ দল ওই শিক্ষার্থীকে তুলে নিতে চেষ্টা চালায়। এতে তার পরিবারের চাচা আঃ সাত্তার (৩৮), জেঠা শাহজাহান (৫০), শিক্ষার্থীর ভাই মোঃ ফখরুল ইসলাম (১৯) গুরুতর জখম হন। সংঘর্ষ চলাকালে শিক্ষার্থীর চাচা আঃ সাত্তার আগত আলমগীরকে ঝাপটিয়ে ধরলে তার সঙ্গে থাকা মুখোশ পরা ব্যক্তিদের সঙ্গে বাড়ির লোকজনের প্রচ- সংঘর্ষ হয়। এতে চাচা আঃ সাত্তার ও শিক্ষার্থীকে তুলে নিতে আসা আলমগীরও গুরুতর আহত হয়। ওইসময় আলমগীরের সঙ্গে থাকা মুখোশধারী জনৈক ব্যক্তিরা পালিয়ে যায়। পরে এ সংবাদ পেয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) হাবিবুর রহমান, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) শাহজালাল, ইউনুছ আলীসহ সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে শাহরাস্তি হাসপাতালে ভর্তি করে।



পরে আহত সাত্তারের অবস্থা বেগতিক দেখে তাকে প্রথমে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়। একই সময় সংঘর্ষে আহত আলমগীরকে চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে ভর্তির জন্যে প্রেরণ করা হয়। অন্য আহতরা শাহরাস্তি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্ েচিকিৎসা নিচ্ছেন।



এ ঘটনায় প্রবাসীর স্ত্রী (৩৮) বাদী হয়ে আলমগীর বিরুদ্ধে মঙ্গলবার একটি মামলা রুজু করেন। মামলার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খিলা পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) জাকির হোসেন জানান, তদন্ত সাপেক্ষে বাকি ব্যবস্থা নেয়া হবে।



এদিকে অভিযুক্ত আলমগীরের মা গুলশান আরা জানান, আমার ছেলে ষড়যন্ত্রের শিকার। ওই মেয়েকে বিয়ে দেবে বলে তারা আমাদের আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করে।



এদিকে ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থীর মা বলেন, আমি এই ঘটনায় অভিযুক্তদের বিচার চাই।



 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৩,৩৯,৩৩২ ২,৯২,০১,৬৮৫
সুস্থ ২,৪৩,১৫৫ ২,১০,৩৫,৯২৬
মৃত্যু ৪,৭৫৯ ৯,২৮,৬৮৬
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৭৪৯৫৬৫
পুরোন সংখ্যা