চাঁদপুর, শুক্রবার ১২ জুলাই ২০১৯, ২৮ আষাঢ় ১৪২৬, ৮ জিলকদ ১৪৪০
jibon dip
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৩-সূরা নাজম


৬২ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


 


assets/data_files/web

মনের যাতনা দেহের যাতনার চেয়ে বেশি। -উইলিয়াম হ্যাজলিট।


 


ঝগড়াটে ব্যক্তি আল্লাহর নিকট অধিক ক্রোধের পাত্র।


 


 


ফটো গ্যালারি
আট উপজেলার সাথে যুক্ত হয়েছেন জেলা প্রশাসক
গ্রাম আদালতে মামলার অগ্রগতি ও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা শীর্ষক ভিডিও কনফারেন্স
স্টাফ রিপোর্টার
১২ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


গতকাল ১১ জুলাই সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে 'গ্রাম আদালতে মামলার অগ্রগতি ও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা' শীর্ষক ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান।



অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও স্থানীয় সরকার উপ-পরিচালক মোহাম্মদ শওকত ওসমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামান।



সভায় জানানো হয়, গ্রাম আদালতের অগ্রগতি ও চ্যালেঞ্জ শীর্ষক এই ২য় ভিডিও কনফারেন্সে নিজ নিজ উপজেলা কমপ্লেঙ্রে সম্মেলন কক্ষে নেতৃত্ব দেন মতলব দক্ষিণের ইউএনও মোঃ শাহিদুল ইসলাম, শাহরাস্তির ইউএনও শিরিন আক্তার, কচুয়ার সহকারী কমিশনার (ভূমি) রুমন দে, মতলব উত্তরের সহকারী কমিশনার (ভূমি) শুভাষিশ ঘোষ, হাজীগঞ্জের সহকারী কমিশনার (ভূমি) জিয়াউল ইসলাম চৌধুরী এবং ফরিদগঞ্জের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মমতা আফরিন।



এতে আরো অংশগ্রহণ করেন হাজীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী মোঃ মাঈনুদ্দীন, কচুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাজাহান শিশির, শাহরাস্তি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ফরিদ উল্লাহ চৌধুরী, শাহরাস্তি পৌরসভার মেয়র মোঃ আব্দুল লতিফ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) উম্মে হাবীবা মীরা ও থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহ্ আলম। এ সময় নিজ নিজ উপজেলার সম্মেলন কক্ষে উপস্থিত থেকে জেলার সকল ইউপির ইউপি চেয়ারম্যান, সচিব এবং প্রকল্পাধীন গ্রাম আদালত সহকারীবৃন্দ জেলা প্রশাসকের সাথে সরাসরি ভিডিও কনফারেন্সে অংশগ্রহণ করেন এবং বিভিন্ন মতামত প্রদান করেন।



১ম ভিডিও কনফারেন্স আয়োজনের পর প্রকল্পাধীন প্রায় সকল ইউনিয়নে গ্রাম আদালতের প্রতি মানুষের আস্থা বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে মানুষ দিনদিন গ্রাম আদালতমুখী হচ্ছে। জুলাই-২০১৭ হতে গ্রাম আদালতে মামলা গ্রহণের হিসেব শুরু হয়। ১ম ভিডিও কনফারেন্সের আগ পর্যন্ত চাঁদপুরে প্রতি ইউনিয়নে প্রতি মাসে গড়ে মাত্র ৩.৫ টি মামলা ছিল। কিন্তু উক্ত ভিডিও কনফারেন্সের পর গত চার মাসে এর গড় দাঁড়িয়েছে দ্বিগুণেরও বেশি অর্থাৎ ৭.৩ টি মামলা।



 



 



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৩৯৫২৪
পুরোন সংখ্যা