চাঁদপুর, বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৩ জিলকদ ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৩-সূরা নাজম


৬২ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


২৭। যাহারা আখিরাতে বিশ্বাস করে না তাহারাই নারীবাচক নাম দিয়া থাকে ফিরিশ্তাদিগকে;


২৮। অথচ এই বিষয়ে উহাদের কোন জ্ঞান নাই, উহারা তো কেবল অনুমানেরই অনুসরণ করে; কিন্তু সত্যের মুকাবিলায় অনুমানের কোনই মূল্য নাই।


 


assets/data_files/web

একটা হাত পরিষ্কার করতে অন্য একটা হাতের সাহায্য দরকার।


-সিনেকা।


 


 


দয়া ঈমানের প্রমাণ; যার দয়া নেই তার ঈমান নেই।


 


ফটো গ্যালারি
ভারে ভারে ন্যুব্জ চাঁদপুর পৌর আওয়ামী লীগ ৩ বছর মেয়াদী কমিটির এক যুগ পার
ডজনখানেক পদ শূন্য অবস্থায় আছে দীর্ঘদিন
গোলাম মোস্তফা
১৭ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ চাঁদপুর শহর বা পৌর শাখা কমিটির মেয়াদ শেষ হয়ে এক যুগ পার হলেও সম্মেলন কবে নাগাদ হচ্ছে তা বলতে পারছেন না কেউই। এ কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক দুটি পদই ভারপ্রাপ্তের ভারে ন্যুব্জ অবস্থায় আছে। শুধু তাই নয়, গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটিসহ এক ডজনের বেশি পদ শূন্য থাকলেও এ অবস্থায়ই চলছে পৌর আওয়ামী লীগের কার্যক্রম। যারা ভারপ্রাপ্ত আছেন, মনে হচ্ছে যেনো তাদেরও সদিচ্ছার অভাব রয়েছে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি করার।



টানা ৩য় বারের মতো রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকা দেশের ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ চাঁদপুর পৌর কমিটির সর্বশেষ সম্মেলন হয়েছে ২০০৫ সালের প্রথম দিকে। মূলত তৎকালীন সময়ে চাঁদপুর পৌরসভার নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এ সম্মেলনটি হয়। সেই সম্মেলনে বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র আলহাজ্ব নাছির উদ্দিন আহমেদকে পৌর কমিটির সভাপতি এবং লুৎফুর রহমান (লুতু) পাটোয়ারীকে সাধারণ সম্পাদক করে শহর আওয়ামী লীগের ৩ বছর মেয়াদী কমিটি ঘোষণা করা হয়। পরবর্তীতে তৎকালীন দলীয় গঠনতন্ত্র মোতাবেক ৭১ সদস্যবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটিকে কেন্দ্রীয় কমিটি অনুমোদন দেয়। এ কমিটি গঠনের প্রায় আট বছরের মাথায় লুৎফুর রহমান পাটওয়ারী মৃত্যুবরণ করায় এবং নাছির উদ্দিন আহমেদ জেলা সভাপতি হয়ে যাওয়ায় এ দু'টি পদে ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয় যথাক্রমে রাধা গোবিন্দ গোপ ও আমিনুর রহমান বাবুলকে।



এ সম্মেলনের আগে এবং পরে এ কমিটির উদ্যোগে তাদের অধীনস্থ ১৫টি সাংগঠনিক কমিটি বা ওয়ার্ড কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটিগুলোর মেয়াদও ৩ বছর। সেই থেকে মূল ও ইউনিট কমিটিগুলোর পথচলা যে শুরু হয়েছে তা আজো সে অবস্থায় আছে। দলীয় গঠনতন্ত্রে কমিটির ৩ বছর মেয়াদ থাকলেও ১৪ বছর ধরে চলছে পৌর আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটি। এ কমিটি অনুমোদন থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত বিভিন্ন কারণে কমিটির পদ শূন্য অবস্থায় আছে ১২টির মতো।



দীর্ঘদিন কয়েক মেয়াদে চাঁদপুর শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে থাকা মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক জননেতা লুৎফুর রহমান পাটোয়ারী ২০১৩ সালের ১৩ অক্টোবর মৃত্যুবরণ করেন। সেই থেকে দলীয় গঠনতন্ত্র মোতাবেক ১নং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুর রহমান বাবুল এ পদে ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দায়িত্ব পান এবং তিনি এই ভার নিয়ে এখনো আছেন। অপরদিকে পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব নাছির উদ্দিন আহমেদ ২০১৬ সালের ২৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। তখন আলোচনায় চলে আসে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি পদ নিয়ে। কারণ, আওয়ামী লীগের দলীয় গঠনতন্ত্রে রয়েছে এক নেতার এক পদ। তাই নাছির উদ্দিন আহমেদ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় সঙ্গত কারণে চাঁদপুর শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি পদটি খালি হয়ে যায়। তখন ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব পান সিনিয়র সহ-সভাপতি রাধা গোবিন্দ গোপ। তিনি এখনো এ পদের ভার নিয়ে আছেন।



এছাড়া পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক বিবি দাস, সাংগঠনিক সম্পাদক আক্তার হোসেন বাচ্চু পাটোয়ারীসহ বেশ কিছু নেতার মৃত্যুতে সহ-সভাপতি, সম্পাদক ম-লীর সদস্য, কার্যনির্বাহী সদস্যসহ এক ডজনের মতো পদ শূন্য রয়েছে। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ ২টি পদে ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব দিয়ে দল পরিচালনা করলেও বাকি পদগুলো পূরণ বা কোঅপ্ট আজো করা হয়নি।



কমিটির মেয়াদ শেষ এবং বর্তমান কমিটি ১৪ বছরে পদার্পণ করলেও কবে নাগাদ সম্মেলন হবে এ বিষয়ে নিশ্চিত কিছু বলতে পারছেন না শীর্ষ নেতৃবৃন্দ। শুধু হচ্ছে হবে এভাবেই চলছে বছরের পর বছর। এখানেই শেষ নয়, এ শহর আওয়ামী লীগের অধীনস্থ ১৫টি ওয়ার্ড বা ইউনিট কমিটিও একই অবস্থায় চলছে। এ অবস্থায় অর্থাৎ ৩ বছর মেয়াদী কমিটি যুগ পার করার ফলে সৃষ্টি হচ্ছে না নতুন নেতৃত্ব। যে কারণে নতুন নেতৃত্ব পাওয়ার আশায় যারা সংগঠনের কাজ করছেন তারা ভুগছেন হতাশায়।



এ বিষয়ে চাঁদপুর শহর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রাধা গোবিন্দ গোপ ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আমিনুর রহমান বাবুলের সাথে কথা হলে তারা উভয়ই বলেন, সহসাই সম্মেলন হবে। এজন্যে আমরা ইতিমধ্যে ২/১টি ওয়ার্ডের সম্মেলন প্রস্ততি কমিটি করেছি এবং সদস্য সংগ্রহ অভিযানও চলছে। সহসাই সকল ওয়ার্ড সম্মেলন করে অচিরেই শহর আওয়ামী লীগের সম্মেলন করবো।



এ বিষয়ে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র আলহাজ্ব নাছির উদ্দিন আহমেদ এবং সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটোয়ারী দুলাল বলেন, আমাদের সাংগঠনিক যে সকল ইউনিটের মেয়াদ শেষ হয়েছে, সেগুলোর সম্মেলন করে পৌর সম্মেলন করবো। ইতিমধ্যে তাদের অধীনস্থ সাংগঠনিক ইউনিটগুলোর বিষয়ে দিকনির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আমরা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি এবং চাঁদপুর জেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতার সাথে আলাপ আলোচনা করে পর্যায়ক্রমে সকল সাংগঠনিক ইউনিট বা ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, পৌর ও উপজেলাগুলোর সম্মেলন করবো। তবে সহসাই করার চেষ্টা করবো।



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৮৪২০৩
পুরোন সংখ্যা