চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ জিলকদ ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • এক কিংবদন্তীর প্রস্থান চাঁদপুরবাসী শোকাহত
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৩-সূরা নাজম


৬২ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


২৯। অতএব যে আমার স্মরণে বিমুখ তুমি তাহাকে উপক্ষো করিয়া চল; সে তো কেবল পার্থিব জীবনই কামনা করে।


৩০। উহাদের জ্ঞানের দৌড় এই পর্যন্ত। তোমার প্রতিপালকই ভালো জানেন কে তাঁহার পথ হইতে বিচ্যুত, তিনিই ভালো জানেন কে সৎপথপ্রাপ্ত।


 


assets/data_files/web

যাকে মান্য করা যায় তার কাছে নত হও। -টেনিসন।


 


 


ঝগড়াটে ব্যক্তি আল্লাহর নিকট অধিক ক্রোধের পাত্র।


 


 


ফটো গ্যালারি
এইচএসসি ও আলিমে চাঁদপুর জেলার ফলাফল আকাশছোঁয়া
বোর্ড ও সারাদেশের পাসের হারের চেয়ে চাঁদপুর অনেক এগিয়ে
এএইচএম আহসান উল্লাহ্
১৮ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় চাঁদপুর জেলার ফলাফল এবার শুধু ঈর্ষণীয়ই নয়, বলতে গেলে আকাশছোঁয়া। অনেক বছর পর এমন সাফল্যজনক ফলাফল করলো চাঁদপুর জেলা। বিগত কয়েক বছরের চেয়ে এবার গড় পাসের হার এবং জিপিএ-৫-এর সংখ্যা উভয়ই অনেক বেড়েছে। শুধু তাই নয়, বোর্ড এবং সারাদেশের গড় পাসের হারের চেয়েও চাঁদপুর জেলার পাসের হার অনেক বেশি। প্রকাশিত ফলাফলে দেখা গেছে যে, এইচএসসিতে কুমিল্লা বোর্ডে পাসের হার ৭৭.৭৪% এবং সারাদেশে পাসের হার ৭৩.৯৭%। আর চাঁদপুর জেলার পাসের হার হচ্ছে ৮৬.৭৫%। এছাড়া আলিমেও সারাদেশের পাসের হারের চেয়ে চাঁদপুর জেলার পাসের হার অনেক বেশি। আলিমে সারাদেশে পাসের হার ৮৮.৫৬%। আর চাঁদপুর জেলায় পাসের হার ৯৯.৩৩%।



এদিকে চাঁদপুরের ৮ উপজেলার মধ্যে এইচএসসিতে গড় পাসের হারে প্রথম অবস্থানে আছে কচুয়া। এ উপজেলার পাসের হার ৯৬.১৪ ভাগ। জিপিএ-৫ প্রাপ্তিতেও এ উপজেলা জেলার শীর্ষে। এ উপজেলা থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে মোট ৯৫ জন। আর দ্বিতীয় অবস্থানে আছে সদর উপজেলা, এ উপজেলায় জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৯ জন। এইচএসসির জেলার সার্বিক ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে যে, পাসের হার এবং জিপিএ-৫ প্রাপ্তি সবদিক দিয়েই জেলার শীর্ষে আছে কচুয়ার ড. মুনসুর উদ্দিন কলেজ। এ কলেজ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬২ জন। আর মোট পরীক্ষার্থী ছিলো ১৭৪ জন। পাসের হার শতভাগ।



গতকাল বুধবার সারাদেশে একযোগে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হয়। বেলা ১২টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে সকল বোর্ডের ফলাফলের সারসংক্ষেপ আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি। ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী দেখা গেছে যে, চাঁদপুর জেলায় এবার এইচএসসিতে মোট পরীক্ষার্থী ছিলো ১৪ হাজার ৪শ' ৩১ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ১২ হাজার ৪শ' ৩৩ জন। পাসের হার ৮৬.৭৫ ভাগ। জিপিএ-৫ পেয়েছে মোট ২৪২ জন। আর আলিমে মোট পরীক্ষার্থী ছিলো ২ হাজার ৬শ' ৭৭ জন। পাস করেছে ২ হাজার ৪শ' ৯৮ জন। পাসের হার ৯৯.৩৩। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫৫ জন।



গত কয়েক বছরের চাঁদপুর জেলার এইচএসসি ও আলিমের ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে যে, এবার চাঁদপুর জেলার সার্বিক ফলাফল খুবই সাফল্যজনক। গত বছর এইচএসসির পাসের হার ছিলো ৬৯.২৭% এবং ২০১৭ সালে ছিলো ৫৫.৩৫%। গত বছর এইচএসসিতে সারাজেলায় জিপিএ-৫ পেয়েছে মাত্র ৭৬ জন। মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে আলিমের ফলাফলও গত কয়েক বছরের চেয়ে এবারের ফলাফল অনেক ভালো। গত বছর আলিমের পাসের হার ছিলো ৮৩.২৫%। আর জিপিএ-৫ পেয়েছিলো মাত্র ১৮ জন।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
১০০৪৭৮৪
পুরোন সংখ্যা