চাঁদপুর, শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৫ জিলকদ ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৩-সূরা নাজম


৬২ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


assets/data_files/web

আকৃতি ভিন্ন ধরনের হলেও গৃহ গৃহই। -এন্ড্রি উল্যাং।


 


 


স্বদেশপ্রেম ঈমানের অঙ্গ।


 


 


ফটো গ্যালারি
সমকালীন ভাবনা : সাক্ষাৎকার-২
মেয়র পদে প্রার্থী হবার ভিত্তি এবং ইচ্ছে অবশ্যই আমার রয়েছে
---------অ্যাডঃ মজিবুর রহমান ভূঁইয়া
গোলাম মোস্তফা
১৯ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর জেলা ছাত্রলীগের নির্বাচিত সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সভাপতি, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের দুই বারের সাংগঠনিক সম্পাদক, চাঁদপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডঃ মজিবুর রহমান ভূঁইয়া বলেছেন, আমি ছাত্রজীবন থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি। পেশাগত জীবনে আইন পেশায় জড়িত। এ দুটোই জনসেবার আওতায় পড়ে। অতএব জনপ্রতিনিধি হিসেবে জনগণের সেবা করার আশা-আকাঙ্ক্ষা বা ইচ্ছা অবশ্যই রয়েছে। সেক্ষেত্রে দলীয় সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত বলে আমি মনে করি।



দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠের পক্ষ থেকে 'সমকালীন ভাবনা' শীর্ষক সিরিজে চাঁদপুর পৌরসভার সম্ভাব্য মেয়র পদে অ্যাডঃ মজিবুর রহমান ভূঁইয়ার প্রার্থিতার বিষয়ে তার সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হয়, যা নিম্নে তুলে ধরা হলো :



দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠ : বর্তমান সময়ে কোন্ ভাবনাটি আপনার মাথায় সবচে' বেশি চেপে আছে, যেটি কখনো কখনো আপনাকে ঘুমুতেই দেয় না?



অ্যাডঃ মুজিবুর রহমান : বর্তমান সময়ের ছাত্ররাজনীতি আমাকে খুব পীড়া দেয়। এখনকার ছাত্ররাজনীতি হয়ে গেছে ভাই নির্ভরশীল ছাত্ররাজনীতি। যে কোনো ছাত্র সংগঠনের জেলার একজন শীর্ষ নেতাকে মঞ্চে ডেকে বক্তব্য দেওয়ার জন্যে বলা হলে দেখা যাবে তার মুখ থেকে কোনো কথাই বের হচ্ছে না। শুধু নেতা-নেত্রী নির্ভর এ রাজনীতি আমাকে পীড়া দেয়। মাঝে মাঝে আমাদের সময়কার এবং বর্তমান সময়কার ছাত্র রাজনীতির পার্থক্য চিন্তা করলে সত্যি বলছি, ওই রাতে আমার ঘুম হয় না।



দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠ : চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থী হবেন তো? যদি হন তাহলে এ ব্যাপারে আপনার বক্তব্য তুলে ধরুন।



অ্যাডঃ মুজিবুর রহমান : ছাত্র জীবন থেকে রাজনীতি শুরু করে আজো এ রাজনীতি করছি। আবার পেশায় একজন আইনজীবী। রাজনীতি এবং আইনজীবী এ দুটিই জনসেবা। সে আলোকে একজন রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে মেয়র পদে প্রার্থী হবার ভিত্তি এবং ইচ্ছে অবশ্যই আমার রয়েছে।



আমার নিম্নোক্ত বিষয়গুলো বিবেচনা করে নেতৃবৃন্দকে সিদ্ধান্তগ্রহণের বিনীত অনুরোধ জানাতে চাই। ১৯৮৪ সাল থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একজন আদর্শের কর্মী হিসেবে ছাত্রলীগের রাজনীতি শুরু করি। ১৯৮৭ সালে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন করতে গিয়ে ডিটেনশনে জেল খাটি। একই বছর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, '৮৯ সালের ২৩ মে সম্মেলনের মাধ্যমে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হই। '৯০ সালে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন করতে গিয়ে সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের সদস্য সচিব হই এবং নির্যাতন ও কারাভোগ করি। '৯২ সালের ২৭ নভেম্বর জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে সভাপতি পদে নির্বাচিত হই। ১৯৯২-৯৪ সালে জেলার সে সকল কলেজের ছাত্র সংসদ নির্বাচন হয়, সে সকল কলেজে আমার নেতৃত্বে প্যানেল দিলে ছাত্রলীগ নিরঙ্কুশভাবে বিজয়ী হয়। ৪টি মামলা নিয়ে ১৯৯৪ সালে পর পর কারাভোগ করি। ২০০১ সালে জোট সরকারের রোষানলে পড়ে চুরি সহ মোট ১০টি মিথ্যা মামলার আসামী হয়ে কারাভোগ করি। এক কথায় ছাত্রজীবন থেকে শুরু করে অদ্যাবধি এমন কোনো আন্দোলন-সংগ্রাম নেই যেখানে আমি নেই এবং সক্রিয় নেই।



আমার পুরো পরিবার আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। আমার মামা মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আঃ মালেক ভূঁইয়া, দুই ভাই মুক্তিযোদ্ধা এবং আমার পরিবারের লোকজন বা আমার ভাইগণ আওয়ামী লীগের অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃত্বে আছেন। সবকিছু বিবেচনায় রেখে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ২০০৫ সালে ও ২০১৬ সালে পর পর দুবার আমাকে সংগঠনিক সম্পাদক পদে অধিষ্ঠিত করেছেন। অতএব চাঁদপুরের মাটি ও মানুষের নেত্রী শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি মহোদয় আমার বিগত দিনের রাজনৈতিক বিষয়গুলো বিবেচনা করবেন।



দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠ : আপনি কোন্ প্রতিশ্রুতিতে বা কী কী আশ্বাস দিয়ে নাগরিক বা ভোটারদের নজর কাড়বেন বলে ভাবছেন?



অ্যাডঃ মুজিবুর রহমান : প্রতিশ্রুতি দেওয়া নির্বাচনী আইন অনুাযায়ী সঠিক নয়। তবে আমার কিছু স্বপ্ন তো রয়েছেই। বাংলাদেশ যেভাবে দুর্বার গতিতে উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে গেছে, সেই উন্নয়নের সহযাত্রী করতে চাই চাঁদপুর পৌরবাসীকে। পাশাপাশি ১ম শ্রেণীর চাঁদপুর পৌরসভায় বর্তমান সরকারের নিরাপদ খাদ্যের বিষয়টিকে প্রাধান্য দিয়ে একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে করণীয় অন্য সকল কাজ যথাযথভাবে করবো।



দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠ : উপরোক্ত প্রশ্নগুলোর বাইরে আপনার কোনো বক্তব্য থাকলে তা উল্লেখ করতে পারেন।



অ্যাডঃ মুজিবুর রহমান : আমার রাজনৈতিক জীবনের প্রায় সকল কিছু উল্লেখ করলাম। তারপরও বলা দরকার, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় আমার দুই ভাই আহত হয়েছেন। গোটা পরিবার আওয়ামী লীগ পরিবার বা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী। অতএব এ সকল কিছু বিবেচনায় আমি আমার নেতৃবৃন্দের নিকট মেয়র পদে মনোনয়নের বিষয়টিতে সদয় বিবেচনার আহ্বান জানাচ্ছি।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
১৮৯০৩২
পুরোন সংখ্যা