চাঁদপুর, মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৯ জিলকদ ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • এক কিংবদন্তীর প্রস্থান চাঁদপুরবাসী শোকাহত
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৩-সূরা নাজম


৬২ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৩৯। আর এই যে, মানুষ তাহাই পায় যাহা সে করে,


৪০। আর এই যে, তাহার কর্ম অচিরেই দেখান হইবে


৪১। অতঃপর তাহাকে দেওয়া হইবে পূর্ণ প্রতিদান,


৪২। আর এই যে, সমস্ত কিছুর সমাপ্তি তো তোমার প্রতিপালকের নিকট,


 


 


ভালোবাসার ক্ষেত্রে সেই জ্ঞানী যে ভালোবাসা বেশি কিন্তু প্রকাশ করে কম। -জর্জ ডেভিডসন।


 


 


নিঃসন্দেহে তিন প্রকার লোকের দোয়া কবুল হয়। পিতার দোয়া, মোসাফিরের দোয়া এবং অত্যাচারিত ব্যক্তির দোয়া।


 


 


ফটো গ্যালারি
ফরিদগঞ্জে সাংবাদিক শফিকুর রহমান এমপিকে হুমকির প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ কমিটি বাতিলের দাবি
ফরিদগঞ্জ ব্যুরো
২৩ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর-৪ ফরিদগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য মুহম্মদ শফিকুর রহমানকে হুমকি ও অশালীন মন্তব্য করার প্রতিবাদে উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করা হয়েছে। সোমবার বিকেলে ফরিদগঞ্জ পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল হকের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিলটি উপজেলা সদরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে সিনেমা হল মার্কেটের সামনে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পৌর মেয়র মাহফুজুল হক, বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদ চাঁদপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান সউদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মোহাম্মদ হোসেন মিন্টু, আওয়ামী লীগ নেতা জিম এম তাবাচ্চুম, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি হেলাল উদ্দিন, পৌর যুবলীগের সাবেক সভাপতি সজিব আহম্মদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক পাবেল পাটওয়ারী, আওয়ামী লীগ নেতা নজরুল ইসলাম সুমন, সাইফুল ইসলাম, জসিম উদ্দিন, মাসুদ আলম আয়াত, মিথুন দাস, সোহেল প্রমুখ।



বক্তারা উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কর্তৃক বর্তমান সংসদ সদস্য মুহম্মদ শফিকুর রহমানকে নিয়ে অশালীন মন্তব্য ও হুমকি দেয়ার ঘটনার প্রতিবাদ করেন। এসময় তারা অবিলম্বে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদকের পদত্যাগসহ কমিটি বাতিল করে নতুন কমিটি গঠনের দাবি জানান। তা না হলে তারা বৃহত্তর আন্দোলনের ঘোষণা দেন। তারা বলেন, বিগত বছরগুলোতে তারা কী করেছে তা উপজেলাবাসী দেখেছে। ২০০৮ সালের নির্বাচনের সময় তারা মুহম্মদ শফিকুর রহমানের পক্ষে না থেকে উল্টো না ভোট দিয়ে তাকে পরাজিত করেছেন। একইভাবে সর্বশেষ অনুষ্ঠিত নির্বাচনেও তারা নানাভাবে নৌকার পরাজয় নিশ্চিত করার অপচেষ্টা করেছিল। সর্বশেষ তারা দলের প্রতিষ্ঠাবাষির্কী অনুষ্ঠানে নিজেদের ভুল ঢাকতে এমপিকে হুমকি প্রদান এবং তার বিরুদ্ধে অশালীন ভাষা প্রয়োগ করেন। ফলে এই দুই নেতা নেতৃত্ব দানের যোগ্যতা হারিয়েছেন। তাই তাদের পদত্যাগ সময়ের দাবি।



উল্লেখ্য, গত ২০ জুলাই ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ দলের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান করে। সেই সভায় দলের বর্তমান এমপিকে নিয়ে দলের উপজেলা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বিরূপ মন্তব্য করেন, যা পরদিন একটি স্থানীয় পত্রিকায় প্রকাশিত হয়।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৯৭৬৪০২
পুরোন সংখ্যা