চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬, ২০ জিলহজ ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৪-সূরা কামার


৫৫ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


 


 


 


assets/data_files/web

একজন ভাগ্যবান ব্যক্তি সাদা কাকের মতোই দুর্লভ। -জুভেনাল।


 


 


মানুষ যে সমস্ত পাপ করে আল্লাহতায়ালা তার কতকগুলো মাপ করে থাকেন, কিন্তু যে ব্যক্তি মাতা-পিতার অবাধ্যতাপূর্ণ আচরণ করে, তার পাপ কখনো ক্ষমা করেন না।


 


 


ফটো গ্যালারি
ফরিদগঞ্জে শোক দিবস ও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে আলোচনা সভা
ষড়যন্ত্রকারীদের ব্যাপারে সবসময় সর্তক থাকতে হবে
-----------আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল
প্রবীর চক্রবর্তী
২২ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস ও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে আলোচনা সভা, গণভোজ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে অনুষ্ঠিত এ আলোচনা সভাটি এক পর্যায়ে আওয়ামী লীগের কয়েক হাজার নেতা-কর্মীসহ সর্বস্তরের জনসাধারণের উপস্থিতিতে জনসমুদ্রে পরিণত হয়। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডঃ জাহিদুল ইসলাম রোমানের সভাপ্রধানে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল। এ সময় তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি নাম নয়, একটি ইতিহাস, তিনি একটি স্বাধীন দেশের জন্মদাতা। তিনি সারাজীবনের মেধা ও শ্রম দিয়ে এদেশের মানুষের মুক্তির জন্যে কাজ করে গেছেন। কিন্তু পাকিস্তানী প্রেতাত্মারা তাঁকে সপরিবারে হত্যার মধ্যে দিয়ে এদেশকে আবারো পাকিস্তান বানানোর চেষ্টা চালিয়েছিল। কিন্তু সেদিন মহান আল্লাহ জাতির পিতার দুই সন্তানকে বাঁচিয়ে রেখেছিলেন। সেদিনের খন্দকার মোশতাকরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যার চেষ্টায় সফল হলেও ২০০৪ সালে তাদের উত্তরসূরীরা গ্রেনেড হামলা চালিয়ে সেই নীল নকশা চালিয়ে ব্যর্থ হয়। আমাদের প্রধানমন্ত্রী ও দলের সভাপতি শেখ হাসিনাকে বাঁচাতে নেতা-কর্মীরা মানব ঢাল রচনা করে তাদের চেষ্টা ব্যর্থ করে দেন। আজ তিনি ক্ষমতায় থাকার কারণে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বিশ্বের দ্বিতীয় দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনৈতিক দেশ হিসেবে উঠে এসেছে বাংলাদেশ। কিন্তু এখনো ওই গোষ্ঠী এদেশকে নিয়ে ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে।



তিনি বলেন, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসী কর্মকা-, গুজব, কৌশলে বিভিন্ন সমস্যার সৃষ্টিসহ নানাভাবে এই উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টায় লিপ্ত। কিন্তু বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা বেঁচে থাকতে তাদের এই স্বপ্নকে সফল হতে দিবে না। আমরা অহিংসা ও শান্তিতে বিশ্বাসী। আমরা চাই না এদেশ ইরাক ইরান, ইয়েমেন, আফগানিস্তানের মতো দেশে পরিণত হোক। আপনারা দেখেন আজ পাকিস্তানে শান্তি নেই, শুধু হানাহানি। তাই এসব থেকে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুুজিবুর রহমান আমাদের স্বাধীনতা এনে দিয়েছিলেন আর তাঁর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের অর্থনৈতিক মুক্তি এনে দেয়ার কাজ করছেন। তাই এ কাজে আমাদের শুধু আওয়ামী লীগ নয়, দলমত নির্বিশেষে সকলকে তাকে সহযোগিতা করার জন্য হাত বাড়াতে হবে। একই সাথে ষড়যন্ত্রকারীরা যাতে আবারো রক্তের হলি খেলায় মেতে উঠতে না পারে এবং গুজবের মতো ভিত্তিহীন কাজগুলো যাতে ছড়াতে না পারে সেজন্য সর্তক থাকতে হবে।



সভাপতির বক্তব্য রাখতে গিয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডঃ জাহিদুল ইসলাম রোমান বলেন, আজ আবারো প্রমাণ হলো ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ একটি শক্তিশালী সংগঠন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল খায়ের পাটওয়ারী ও সাধারণ সম্পাদক উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবু সাহেদ সরকারের সুদৃঢ় নেতৃত্বের কারণে পুরো উপজেলায় আজ প্রতিটি নির্বাচনে নৌকার জয়জয়কার। তাই আগামী দিনগুলোতে এই ধারা অব্যাহত রাখতে হলে দলকে আরো শক্তিশালী করতে হবে। এজন্য আমাদের ঐক্যবদ্ধতার বিকল্প নেই। কিন্তু যারা একে বিশ্বাস করে না, ব্যক্তিভিত্তিক রাজনৈতিক করছেন, তাদেরকে এর থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। কারণ ব্যক্তির চেয়ে দল বড়। সংগঠন শক্তিশালী থাকার কারণেই আজ আমি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান।



জেলা পরিষদ সদস্য মশিউর রহমান মিটু ও সাইফুল ইসলাম রিপনের যৌথ পরিচালনায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল খায়ের পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবু সাহেদ সরকার, জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আবুল কাশেম, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল আমিন কাজল, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাজুদা বেগম, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াহিদুর রহমান রানা, আলমগীর হোসেন স্বপন, ইউপি চেয়ারম্যান শওকত আলী, এইচএম হারুন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার সহিদ উল্ল্যাহ তপদার, সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ এম তবিবুল্ল্যা, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক বিল্লাল হোসেন, যুগ্ম আহ্বায়ক হাজী সফিকুর রহমান, মহিউদ্দিন ভূঁইয়া ইরান, আকবর হোসেন মনির, ছাত্রলীগের সভাপতি মাহবুব আলম সোহাগ, ওলামা লীগের সভাপতি মাওঃ মিজানুর রহমান খন্দকার এবং আওয়ামী লীগ নেতা জাকির হোসেন খান। আলোচনা শেষে দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন উপজেলা কেন্দ্রীয় জামে মসিজদের খতিব মাওঃ মমিনুল ইসলাম খান।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৮০৬৭৮৬
পুরোন সংখ্যা