চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২৮ ভাদ্র ১৪২৬, ১২ মহররম ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুর সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কসহ আরো ৯ জনের করোনা শনাক্ত, মোট আক্রান্ত ২১৯
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৯-সূরা হাক্কা :


৫২ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


৩৪। এবং অভাবগ্রস্তকে অন্নদানে উৎসাহিত করিত না,


৩৫। অতএব এইদিন সেথায় তাহার কোন সুহৃদ থাকিবে না,


৩৬। এবং কোন খাদ্য থাকিবে না ক্ষত নিঃসৃত স্রাব ব্যতীত,


 


 


 


assets/data_files/web

অতিরিক্ত চাহিদাই মানুষের পতনকে ডেকে আনে।


-জন অলকৃট।


 


 


 


মানবতাই মানুষের শ্রেষ্ঠতম গুণ।


 


 


 


 


ফটো গ্যালারি
ফরিদগঞ্জে জায়গা নিয়ে দু' ভাইয়ের দ্বন্দ্বে দীর্ঘদিন চলাচলের রাস্তা বন্ধ
বিশেষ প্রতিনিধি
১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


ওরা একই মায়ের পেটের দুই ভাই। একজনের নাম আবদুল হাকিম, আরেক জনের নাম আবদুল হাদি। দু ভাইয়ের মধ্যে পৈত্রিক সম্পত্তির মালিকানার ভোগদখল নিয়ে চলছে দীর্ঘদিনের দ্বন্দ্ব। এই দ্বন্দ্বের জের হিসেবে এক ভাইয়ের পরিবারের চলাচলের রাস্তায় বাঁশ দিয়ে তিনটি বেড়া দিয়ে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ফরিদগঞ্জের ভোটাল গ্রামে। এতে করে আবদুল হাকিমের পরিবারটি গত একমাস ধরে একরকম অবরুদ্ধ হয়ে আছে বলে তারা দাবি করেছেন।



ভুুক্তভোগী পরিবার ও এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, ভোটাল গ্রামের আলহাজ্ব ইদ্রিছ মিয়ার ৭ ছেলে ও ১ কন্যা রয়েছে। ৭ ভাইয়ের মধ্যে আঃ হাকিম ও আঃ হাদি পৈত্রিক জায়গার পাশাপাশি বসতবাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করে আসছিল। এক পর্যায়ে তাদের জায়গার ভোগদখল নিয়ে দ্বন্দ্ব বাড়তে থাকে। স্থানীয়ভাবে এর সুরাহা না হওয়ায় আবদুল হাকিম সম্প্রতি ফরিদগঞ্জ থানায় ছোট ভাই আবদুল হাদির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেয়।



সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, আব্দুল হাকিমের বাড়ি থেকে বের হওয়ার তথা চলাচলের রাস্তায় বাঁশ দিয়ে প্রায় ২০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৬ ফুট উচ্চতাবিশিষ্ট তিন স্থানে তিনটি বেড়া। রাস্তার পাশেই থাকা পুকুরে আবদুল হাদি অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে মাটি কাটার কাজ করছে। এদিকে চলাচলের রাস্তায় বেড়া থাকায় প্রায় একমাস ধরে আবদুল হাকিমের পরিবারের লোকজন ওই বেড়া ডিঙ্গিয়ে চলাচল করতে বাধ্য হয়। আবদুল হাকিমের জায়গা যেন ধসে পড়ে সে জন্যে ড্রেজার লাগানো হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন। এদিকে অবৈধভাবে পুকুরে ড্রেজার দিয়ে মাটি তোলার খবর পেয়ে ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মমতা আফরিনের হস্তক্ষেপে ওই ড্রেজার তুলে নিতে বাধ্য হয়েছেন আবদুল হাদি।



এ নিয়ে আবদুল হাকিম তার ভাইয়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ২০০০ সালে স্থানীয় দেন দরবারের মাধ্যমে আমাদের জায়গা সম্পদের ভাগবাঁটোয়ারা মাপঝোখ করে একটি চিটা তৈরি করে উভয় পক্ষের মধ্যে তা মীমাংসা হয়েছিল। কিন্তু আবদুল হাদি হঠাৎ করে ওই মাপঝোখের চিটা গোপন রেখে একের পর এক আমার জায়গা তার দাবি করে অহেতুক ঝামেলা সৃষ্টি করছে।



অপরদিকে আবদুল হাকিমের ছোট ভাই সাবেক ইউপি মেম্বার আবদুল হাদি বলেন, আমি পুকুর ঘাটে যেন যেতে না পারি সে জন্যে আমার বড় ভাই বাইলের বেড়া দিয়ে বন্ধ করে দেয়ায় আমি রাগের বশে তার চলাচলের রাস্তায় বাঁশ দিয়ে বেড়া দিয়েছি। তবে এটি ফয়সালার জন্যে আমরা অচিরেই বৈঠকে বসছি।



তবে ওই এলাকারই কজন জানান, এ পরিবারটির মধ্যে শিক্ষিত লোক ছাড়াও রয়েছে শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি ও ব্যাংকার । বলতে গেলে এই পরিবারে দীর্ঘদিনের বিরোধের জের হিসেবে তাদের দৃশ্যমান বিতর্কিত কার্যক্রমে মনে হচ্ছে তাদের মধ্যে শিক্ষা থাকলেও মূলত রয়েছে সুশিক্ষার অভাব রয়েছে।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৭৩২১৬১
পুরোন সংখ্যা