চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ মহররম ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • অনিবার্য কারণে শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনির আজকের চাঁদপুর সফর স্থগিত করা হয়েছে
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৭-সূরা হাদীদ


২৯ আয়াত, ৪ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


০৫। আকাশম-লী ও পৃথিবীর সর্বময় কর্তৃত্ব তাঁহারই এবং আল্লাহরই দিকে সমস্ত বিষয় প্রত্যাবর্তিত হইবে।


০৬। তিনিই রাত্রিকে প্রবেশ করান দিবসে এবং দিবসকে প্রবেশ করান রাত্রিতে এবং তিনি অন্তর্যামী।


 


 


 


assets/data_files/web

মর্যাদা রক্ষার ব্যাপারে আমি নিজের অভিভাবক। -নিকেলাস রান্ড।


 


 


যদি মানুষের ধৈর্য থাকে তবে সে অবশ্য সৌভাগ্যশালী হয়।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
২৫০ শয্যাবিশিষ্ট চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে সনাকের মতবিনিময়
হাসপাতালে জনবল সংকটসহ বিভিন্ন সীমাবদ্ধতা থাকা সত্ত্বেও সেবা প্রদান করে যাচ্ছি
----------তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ মোঃ আনোয়ারুল আজিম
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


'স্বাস্থ্যখাতে চাই স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা' এই শ্লোগান নিয়ে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে গতকাল ১৮ সেপ্টেম্বর দুপুর ১টায় সনাকের মতবিনিময় সভা তত্ত্বাবধায়ক-এর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন সনাকের সাবেক সভাপতি ও সদস্য কাজী শাহাদাত। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ মোঃ আনোয়ারুল আজিম। সভার শুরুতেই সনাকের উপদেষ্টা আলহাজ্ব ডাঃ এমএ গফুর ও সনাক সদস্য ডাঃ মোঃ একিউ রুহুল আমিনের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে নিরবতা পালন করা হয়।



প্রধান অতিথির বক্তব্যে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক বলেন, হাসপাতালের প্রতিটি সেক্টরে জনবল সংকটের কারণে সেবা প্রদান বিঘি্নত হচ্ছে। আমরা আউটসোর্সিং থেকে লোক এনে হাসপাতালের বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করছি। হাসপাতালে মাঝে মধ্যে অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু ঘটনা ঘটছে। এমনকি প্রতিনিয়ত কিছু না কিছু সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। তবে এক্ষেত্রে হাসপাতালের নিরাপত্তার স্বার্থে পুলিশ না হোক অন্তত আনসার বাহিনীর সদস্য থাকলে কিছুটা হলেও উপকার হতো।



তিনি আরও বলেন, আউটসোর্সিং থেকে তথ্যকেন্দ্রে সেবা দেয়ার জন্য একজনকে দায়িত্ব দেয়া হয়। পরবর্তীতে টিকেট কাউন্টারে জনবল সংকটের কারণে তাকে সেখানে নিয়োগ দেওয়া হয়। এখন তথ্যকেন্দ্রের সেবা কার্যক্রম বন্ধ আছে। আশা করছি তথ্যকেন্দ্রের সেবা কার্যক্রমের সমস্যা অচিরেই সমাধান করা হবে।



তিনি আরও বলেন, হাসপাতালের বিবিধ সমস্যা নিয়ে আগামী কালকের সভায় আলোচনা করা হবে। তিনি হাসপাতালের সেবার মানোন্নয়নে একটি অ্যাপস তৈরি করতে সনাকের সহযোগিতা কামনা করেন। সনাক-টিআইবি যেভাবে মাঝে মধ্যে হাসপাতালে এসে সেবার মানোন্নয়নে কর্তৃপক্ষের সাথে সভা করে বিভিন্ন সমস্যা ও পরামর্শ দিয়ে থাকে এজন্য তিনি তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। সকলের সমন্বিত প্রচেষ্টায় হাসপাতালের সেবার মান আরও বৃদ্ধি পাবে বলে তিনি মনে করেন। তিনি উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জানান।



সভাপতির বক্তব্যে সনাকের সাবেক সভাপতি ও সদস্য কাজী শাহাদাত বলেন, হাসপাতালের সেবার মান ও সামগ্রিক পরিবেশ খুবই সুন্দর। কিন্তু হাসপাতালের জনবল সংকট প্রচুর। হাসপাতালে সেবা নিতে আসা রোগীদের জন্য রোগী কল্যাণ সমিতিকে কার্যকর করতে হবে। এমনকি তাদের সাথেও সনাকের মতবিনিময় সভার আয়োজন করতে হবে।



তিনি বলেন, হাসপাতালের কমিউনিটি সাপোর্ট কমিটি, রোগী কল্যাণ সমিতি, সমাজসেবা বিভাগ ও ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেল হাসপাতালের সেবার মানোন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা পালন করতে পারে। সেক্ষেত্রে প্রতিটি কমিটির সাথে মতবিনিময় সভার আয়োজন করা যেতে পারে বলে তিনি মনে করেন। তিনি আরও বলেন, আলোচনার মাধ্যমেই হাসপাতালের সকল সমস্যার সমাধান ঘটবে এবং হাসপাতালটি জনবান্ধব হাসপাতালে পরিণত হবে এটাই আমরা প্রত্যাশা করছি।



সনাকের স্বাস্থ্য বিষয়ক উপ-কমিটির আহ্বায়ক ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়া বলেন, হাসপাতালের সীমাবদ্ধতা অনেক আছে। তারপরও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আন্তরিকভাবে সেবা প্রদান করে যাচ্ছেন। হাসপাতালের বিভিন্ন বিভাগে চিকিৎসক নেই। নেই কোনো কনসালটেন্টও। তাই চিকিৎসক না থাকলে চিকিৎসা সেবা ব্যাহত হবে এটাই স্বাভাবিক। হাসপাতালের শুধু চিকিৎসক সংকট নয়, সকল সমস্যা দূরীকরণে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। হাসপাতালের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে প্রয়োজনে রোগী কল্যাণ সমিতির সাথে আলোচনা করে কর্তৃপক্ষ বরাবর স্মারকলিপি দেয়া যেতে পারে। তিনি মতবিনিময় সভায় উপস্থিত হওয়ার জন্যে সকলকে ধন্যবাদ জানান।



মতবিনিময় সভায় নার্সিং সুপারভাইজার, সেবিকাবৃন্দ, হাসপাতালের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, ইয়েস ও ইয়েস ফ্রেন্ডস গ্রুপের সদস্যবৃন্দ ও টিআইবি কর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৮৪২৪৭৪
পুরোন সংখ্যা